বাজেট যদি হয় ২০ হাজার তাহলে সেরা ফোনটিও হবে আপনার- Last Episode!

সবাইকে আসসালামু আলাইকুম সবাই কেমন আছেন?
যারা এই ঈদে কেনাকাটার শেষ প্রান্তে আছেন কিন্তু এখনো আমার মত বাজেট অনুযায়ী কোন ফোনটি কেনা সবথেকে বেস্ট হবে তা ভেবে উঠতে পারেননি। তাদের জন্য আজকের এই পোস্টটি।
তো আজকে এই পর্বে আমরা দেখব ২০ হাজার টাকার মধ্যে সেরা স্মার্টফোন গুলি। যদিও এই বাজেটে অনেক ভাল মানের ফোন পাওয়া যায়।
কিন্তু এই ভালো মানের ফোন গুলোর মধ্য থেকে কোন ফোনটি সবথেকে ভালো হবে তা খুঁজে বের করতে আমাদের সমস্যায় পড়তে হয়।
তাই সেই সমস্যার সমাধান হল আজকের এই পোস্টটি।
আজকে আমরা দেখবো এই প্রাইস এর মধ্যে সবথেকে জনপ্রিয় ব্র্যান্ডের ফোন গুলা। আর টার্গেট থাকবে ৪ জিবি র্যাম এর ফোন গুলাতে।

স্যামসাং গ্যালাক্সি এ৩০
যারা ব্রান্ডের ফোন ইউজ করতে পছন্দ করেন তাদের জন্য বেস্ট হবে এটি ফোন টির মধ্যে ৪ জিবি র্যাম এবং ৬৪ জিবি ইন্টারনাল মেমরি দেয়া হয়েছে।
ফোনটির রেগুলার প্রাইস ২২৯৯০ টাকা হলেও ঈদ উপলক্ষে বিশেষ ছাড়ে
২০৯৯০ টাকায় এটি কেনার সুযোগ পাবেন ক্রেতারা।
স্যামসাং যে তাদের ফোনের ডিসপ্লে অন্যান্য ব্র্যান্ড এর থেকে ভালো দিয়ে থাকে এ খবর তো আমাদের প্রায় সবারই জানা।
তাই এই ফোনটিতে ও দেয়া হয়েছে ৬ দশমিক ৪ ইঞ্চি সুপার অ্যামোলেড ডিসপ্লে যা একদম অরজিনাল কালার দিতে সক্ষম।
আর সেলফি ওঠার জন্য ১৩ মেগাপিক্সেল এর ক্যামেরা এতে দেয়া হয়েছে। এবং পিছনে ১৩-৫ মেগা পিক্সেলের ডুয়াল ব্যাক ক্যামেরা সেটআপ।
এক্সাইনোস ৭৯০৪ প্রসেসর থাকছে ফোনটির মধ্যে। লম্বা একটা সময় ফোনটি ইউজ করার জন্য পাশে থাকছে ৪০০০ মিলিয়াম্পেরে ব্যাটারি।
তাই আপনি যদি স্যামসাং ফোন ব্যবহার করতে পছন্দ করেন তাহলে নির্দ্বিধায় ফোনটি কিনে ফেলতে পারেন।

হুয়াওয়ে ওয়াই ৯ ২০১৯
একটু বড়োসড়ো ফোন কিনতে আগ্রহী? তাহলে এই ফোনটা আপনার জন্য। ৬ দশমিক ৫ ইঞ্চি নচ ডিসপ্লের ফোনটি কেনা যাবে মাত্র ২১৪৯৯ টাকা গুণে। ফোনটি সুপার ফাস্ট গতিতে রান করার জন্য ৪ জিবি রেম ও ৬৪ জিবি ইন্টার্নাল মেমোরি দেওয়া হয়েছে।
আর ব্যাটারি ব্যাকআপ এর তো কোন চিন্তাই নেই কারণ এতে আছে ৪ হাজার মিলিয়াম্পেরে দুর্দান্ত ব্যাটারি।
অক্টাকোর প্রসেসরের ফোনে হুয়াওয়ের নিজস্ব চিপসেট কাইরিন ৭১০ ব্যবহার করা হয়েছে, যাতে থাকছে কৃত্তিম বুদ্ধিমত্তা ফিচার।
ফোনটির সামনের ক্যামেরা দেওয়া হয়েছে ১৩ ও ২ মেগাপিক্সেলের এবং পিছনের ক্যামেরা দেয়া হয়েছে ১৬ ও ২ মেগাপিক্সেলের ডুয়াল ক্যামেরা সেটআপ যা দিয়ে সত্যিই দারুণ ভিডিও এবং সেলফি ওটা সম্ভব।
তাই আপনি যদি ক্যামেরা প্রেমিক হয়ে থাকেন তাহলে ফোনটি আপনার জন্য বেস্ট হবে তাই নির্দ্বিধায় কিনে ফেলতে পারেন।

শাওমি রেডমি নোট ৭
এই ফোনের প্রধান আকর্ষণ হচ্ছে এর ক্যামেরা। রেডমি নোট ৭ স্মার্টফোনের মূল ক্যামেরায় আপনি পাচ্ছেন ৪৮ মেগাপিক্সেল বিশাল সেন্সর।
এর ডুয়াল লেন্স সেটাপে সাথে থাকছে একটি ৫ মেগাপিক্সেল সেন্সর যেটি এআই ও পোর্ট্রেট মুডে কাজে লাগবে।
এ ফোনের প্রসেসর হিসেবে থাকছে কোয়ালকম স্নাপড্রাগন ৬৬০। এর সেলফি ক্যামেরাটি ১৩ মেগাপিক্সেল, যা ওয়াটার ড্রপ নচের মধ্যে জায়গা করে নিয়েছে।
৬ দশমিক ৩ ইঞ্চি নচ ডিসপ্লের ডুয়াল ফোরজি সুবিধার এ ফোনে ভালো ব্যাকআপ নিশ্চিতে থাকছে ৪ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি।
৪ গিগাবাইট র্যামের ফোনটির ৬৪ গিগাবাইট ইন্টারনাল স্টোরেজ সংস্করণটি কিনতে গুনতে হবে ১৯৯৯০ টাকা। ১২৮ গিগবাইট সংস্করণটি পাওয়া যাবে ২১৯৯০ টাকায়।
আপনি যদি সত্যিই এই বাজেটের মধ্যে ভালো মানের একটি ক্যামেরা ফোন কিনতে চান তাহলে আমি বলব এই ফোনটি শুধুমাত্র আপনার জন্যই।

রিয়েলমি ৩
৬ দশমিক ২ ইঞ্চির এইচডি প্লাস ডিসপ্লে। এর রেজুলেশন ৭২০ বাই ১৫২০ পিক্সেল। ফোনটিতে আছে ১২ ন্যানোমিটার মিডিয়াটেক হেলিও পি৭০ প্রসেসর।
৪ গিগাবাইট র্যাম ও ৬৪ গিগাবাইট ইন্টারনাল মেমোরির ফোনটি পাওয়া যাবে ১৭ হাজার ৪৯০ টাকায়।
পেছনে থাকছে ১.৮ অ্যাপারচারের ১৩ মেগাপিক্সেল ও ২ মেগাপিক্সেলের রিয়ার ক্যামেরা, সামনে ১৩ মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা রয়েছে।ব্যাকআপ দিতে আছে ৪২৩০ এমএএইচ ব্যাটারি।
এ ফোনে অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে থাকছে অ্যান্ড্রয়েড ৯.০ ‘পাই’।
ফোনটি সব দিক থেকে দেখতে গেলে মোটামুটি ভালই তাই এটাও হয়ে যেতে পারে আপনার বেস্ট চয়েস এর মধ্যে একটা।

ভিভো ওয়াই ৯৫
এই প্রথম ভিভো কম দামি ফোনে ফুল ভিউ ডিসপ্লে ব্যবহার
করেছে। ফোনটির প্রধান আকর্ষণ এর ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর, যা বর্গাকার আয়তনের।
কোয়ালকম স্নাপড্রাগন ৪৩৯ অক্টাকোর প্রসেসরের ফোনটি ছাড়ে কেনা যাবে ১৯৯৯০ টাকায়।
৬ দশমিক ২২ ইঞ্চি ডিসপ্লের এ ফোনে সেলফি তোলার জন্য থাকছে ২০ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা। পেছনে থাকছে ১৩ ও ২ মেগাপিক্সেলের ডুয়াল ক্যামেরা।
৪ জিবি র্যামের এই ৬৪ জিবি স্টোরেজ ব্যবহার করা হয়েছে। ফোনটি অ্যানড্রয়েড ৮.১ অরিও অপারেটিং সিস্টেম চালিত।
ফোনের ব্যাটারি ৪০৩০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের।

অপ্পো এ৭
এ ফোনে রয়েছে ওয়াটারড্রপ স্ক্রিন এবং শক্তিশালী ৪২৩০ এমএএইচ লিয়ন ব্যাটারি। এই হ্যান্ডসেটটিতে রয়েছে এআই ২.০ (আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স) সম্পন্ন ১৬ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা এবং ১৩+২ মেগাপিক্সেল ডুয়েল রিয়ার ক্যামেরা।
দাম ১৯৯৯০ টাকা। এতে থাকছে ৪ গিগাবাইট র্যাম ও ৬৪ গিগাবাইটের ইন্টারনাল স্টোরেজ সুবিধা।

মটোরলা মটো জি৭ পাওয়ার
৪ জিবি র্যাম আর ৬৪ জিবি রম। এতে ব্যবহার করা হয়েছে ১.৮ গিগাহার্টজ অক্টাকোর স্ন্যাপড্রাগন ৬৩২ প্রসেসর।
এ ফোনে ১২ মেগাপিক্সেলের ব্যাক ও ৮ মেগাপিক্সলের ফ্রন্ট ক্যামেরা রয়েছে। ফোনটির মূল্য ধরা হয়েছে ১৯৯৯০ টাকা।
আর ব্যাটারি ব্যাকআপ দিতে এতে রয়েছে ৫০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার এর অসাধারণ ব্যাটারি।
তো এই ছিল আমার খোঁজা ২০ হাজার বাজেটের সেরা ফোন গুলা। সেই সাথে আমার ঈদ সেরা কিছু স্মার্টফোন এপিসোড শেষ হচ্ছে। এই এপিসোড এর প্রত্যেকটি পোস্ট আপনার কেমন লাগলো তা অবশ্যই জানাতে ভুলবেন না। যারা আগের দুইটি পোস্ট মিস করেছেন।
১০ হাজার বাজেটের সেরা কিছু স্মার্টফোন পর্ব ১
১৫ হাজার বাজেটের সেরা কিছু স্মার্টফোন পর্ব ২
পোস্টটি ভাল লাগলে লাইক করতে পারেন আর আপনি যদি এমন আনকমন এবং ইন্টারেস্টিং পোস্ট পছন্দ করে থাকেন তাহলে কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করে জানিয়ে দিন।
আজকের মতো এই পর্যন্ত ছিল দেখা হচ্ছে নতুন কোন পোস্ট এর মাধ্যমে ততক্ষণ পর্যন্ত নিজের খেয়াল রাখবেন আজকের মত আল্লাহ হাফেজ।
যেকোনো ধরনের ডলার কিনুন এবং বিক্রি করুন এখানে

Leave a Reply