Samsung A01 Full review | ১০,০০০ টাকার গেমিং মোবাইল?

আসসালামুয়ালাইকুম কেমন আছেন সবাই ?

চলে আসলাম Samsung A01 এর ফুল রিভিউ নিয়ে এই ফোনটি বাংলাদেশ এখন পাওয়া যাচ্ছে ৯,৯৯০ টাকায়, এই বাজেটে ফোনটি মোটামুটি আমার কাছে বেশ ভাল লেগেছে।
ফোনটা গেমারদের জন্য কি রকম হবে এছাড়াও ফোনটার ক্যামেরা পারফরম্যান্স ব্যাটারি প্লাস ওভারঅল ফোনটা কেমন ছিল, এ নিয়ে আজকে আলোচনা করবো আর সেই সাথে জেনে নিব Samsung A01 ভালো এবং মন্দ দিকগুলো।

বরাবরের মত আপনাদের সাথে আছি আমি তানভীর চলুন শুরু করি!


প্রথমে শুরু করা যাক Samsung A01 এর ডিজাইন এবং বিল্ড কোয়ালিটি নিয়ে,
ফোনটা আগাগোড়া সম্পূর্ণ প্লাস্টিক, প্লাস্টিক ব্যাক, প্লাস্টিক ফেম ওভারঅল সম্পূর্ণ প্লাস্টিক বাট এটা একটা ম্যাক ফিনিশের ব্যাপার আছে, যেটা দেখতে বেশ সুন্দর আপনার ফোনে ফিংগার কেস ও করবে না!

ফোনটা অনেক স্লিম মনে হয়েছে আমার কাছে ৮.৩ মিলিমিটার, আর ফোনটা হার ওজন ১৩৯ গ্রাম , ফোনটাতে থাকছেনা কোন ফিঙ্গারপ্রিন্ট এর সুবিধা, যেটা ১০ হাজার বাজেটে অবশ্যই দেওয়া উচিত ছিল, কিন্তু কেন দিল না আই ডোন্ট নো, কিন্তু এতে আমরা পেয়ে যাচ্ছি ফেস আনলক এর সুবিধা।

এছাড়াও ফোনটাতে ডুয়েল ক্যামেরা সেটআপ পাচ্ছি আর ক্যামেরা বাম্প টা অনেক স্লিম বেশ সুন্দর ডিজাইন করেছে স্যামসাং আমার কাছে খুবই ভালো লেগেছে। ফোনটার ব্যাক পোরশন টা খোলা যাবে না জাস্ট ফোনটির ব্যাক প্যানেল আপনার একটি স্পিকার পাচ্ছেন এই পজিশনে দেয়া ঠিক হয়নি! তবে ফোনটির লোকটা ছিল পিনিয়াম।
অনেক বড় ও না আবার অনেক ছোট ও না, যেটা কিনা একটা স্মার্ট ইউজারদের জন্য একটা স্মার্টনেস অবশ্যই দিয়ে দিবে, তো অভারঅল ডিজাইন টা বেশ ভালো লেগেছে আমার কাছে।

ফোনটা নিচের দিকে ছিল মাইক্রোফোন এবং চার্জিং পোর্ট টাইপ বি, আর বক্সেও পাচ্ছেন একটি ৫ ওয়াড এর চার্জার। আর ফোনটা ডান পাশে ছিল সিম টুল এন্ড পাওয়ার কি, যার মাধ্যমে কি না আপনারা দুইটা সিম এবং একটি মেমোরি কার্ড ব্যবহার করতে পারবেন।

আর উপরের দিকে ৩.৫ এমএম হেডফোন জ্যাক, ছাড়া আর কিছু লক্ষ্য করিনি, এবং বাম পাশে ছিল ভলিউম লকার।


Samsung A01 এর ডিসপ্লে হিসাবে আমরা পাচ্ছি 5.7 inches HD+ 720 x 1520 pixels (301 ppi) PLS TFT Touchscreen Technology ডিসপ্লে,
মোবাইল ফোনটি ডিসপ্লে তে যে কোন সোশ্যাল মিডিয়া ভিডিওগ্রাফি গেমিং সবকিছুই কালারফুল আপনারা ডিসপ্লেতে পেয়ে যাবেন!

কালার এবং চিল লেভেলটা আমার কাছে মনে হয়েছে বেশিই ছিল ডিসপ্লে তে, আপাচিন, লয়োচিন ঠিকঠাক একটু বেশিই লাগছিল আমার কাছে লয়োচিন ঠিকঠাক ছিল বাট আপাচিন মনে হয়েছে একটু বেশি! ডিসপ্লের সামনে থেকে কোনো রকম কোনো নোটিফিকেশন লাইট লক্ষ্য করিনি।

সামনের দিকে আমরা পেয়ে যাচ্ছি ৫ মেগা পিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা, আর টাচ রেসপন্স ছিল অত্যন্ত ভালো একুরেট লি কাজ করেছে কোনরকম লেগিং ইস্যু দেখিনি। এই বাজেট অনুযায়ী ফোনটা টাচ রেসপন্স একুরেট ছিল! তো ওভারঅল বলবো এভারেস্ট!


সব থেকে মজার ব্যাপার হলো Samsung A01 এ আমরা পেয়ে যাচ্ছি এন্ড্রয়েড ১০ এর সুবিধা, এছাড়াও ১ ইউ আই ২.০ ভার্শন , ওয়ান ইউ আই ২.০ ভার্শন অনেক ক্লিন এন্ড কাস্টমাইজেশন।
আর সেই সাথে ডিভাইসটিতে আমরা লক্ষ্য করছি, ডিভাইসকিআর, ডার্ক মোড, নোটিফিকেশন বার ক্লিন, এছাড়াও মোশন মুড সহ ইত্যাদি! ফিচারস আমরা এই ফোনটির মধ্যে দেখতে পাবো!

ফোনটার ফ্রন্ট ক্যামেরায় ফেস আনলক এর সুবিধা থাকছে যেটা আমার কাছে খুব একটা ফাস্ট আর একুরেট মনে হয়নি, নরমালি আপনার ফেস আনলক এরপর সুইচ অফ করে ফোনটাকে আনলক করতে হবে, হয়তোবা পরবর্তী আপডেটএ এটা ঠিক হয়ে যাবে। কিন্তু ফেস আনলক এর সময় যে অ্যানিমেশন টা ওইটা দেখতে খুবই চমৎকার লাগছিল!


Samsung A01 এ সিপিইউ হিসেবে থাকছে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৪৩৯ যেটি একটি ১২ ন্যানোমিটার পাওয়ার সেভিং প্রসেসর, এর ক্লক স্পিড ১.৯৫ অক্টাকোর প্রসেসর। তো মোটামুটি ফোনটিতে পাবজি, ফ্রী ফায়ার, কল অফ ডিউটি, ইত্যাদি ইজিলি খেলতে পারবেন।
আর জিপিউ হিসেবে থাকছে Adreno 505 কিন্তু আমি এই গেমিং এক্সপেরিয়েন্স এ বেশ ভালই রেজাল্ট পেয়েছি। তবে আমি স্যামসাং এর পক্ষ থেকে কোনরকম গেমিং বুষ্ট কিংবা গেমিং কাস্টমাইজেশন পায়নি এগুলো থাকলে হয়তো বা আরো বেটার রেজাল্ট পাওয়া যেত। একটানা অনেকক্ষণ গেমি করার পর লক্ষ্য করলাম ফোনটা ভালোই হিট হচ্ছিল কিন্তু এই প্রসেসরে গুণগতমান অনেকটাই ভালো বলবো আমি বিশেষ করে entry-level ইউজারদের জন্য।


তো চলুন এবার ফোনটা ক্যামেরা সেকশনে চলে যায়,
পিছনে আমরা ডুয়েল ক্যামেরা সেটআপ পাচ্ছি তার মেন ক্যামেরা ১৩ মেগাপিক্সেলের যার অ্যাপাচার ২.২ এন্ড ২ মেগাপিক্সেল ডেপ সেন্সর ক্যামেরা, যেটা থাকা না থাকা সমান কথা!
ফন্টে ৫ মেগা পিক্সেল যার অ্যাপাচার ২.২ মোটামুটি ঠিকঠাক আছে বাট স্যামসাংয়ের অ্যাপাচার ১.৮ অথবা ১.৭ টা আশা করেছিলাম। আর ক্যামেরা কোয়ালিটি তে বেশ ভালোই পিকচার স্যাম্পল আপনারা পাবেন, সেই সাথে আমরা পেয়ে যাচ্ছি লাইভ ফটো, আর ভিডিও রেকর্ডিং এর সুবিধা পাচ্ছি ফুল এইচডি তে আর মজার ব্যাপার হলো সামনের ক্যামেরা দিয়ে ফুল এইচডি এবং পিছনের ক্যামেরা দিয়েও ফুল এইচডি তে ভিডিও রেকর্ড করতে পারবেন।


পিকচার কোয়ালিটি বেশ ভালো ছিল, সার্ফ এন্ড ক্লিন ছিল পিকচার ডিটেইলস করেক্টলি ছিল আর ডায়নামিক রেঞ্জ খুব ভালোভাবে ডিটেলস নিতে পারছিল। অটো এইচডিআর মুড অপশন ছিল যেখানে আপনার ডিসপ্লে সেকশনে কোন এইচডিআর মুড পাবেননা কিন্তু অটোমেটিকলি এইচডি আর মুড।

এছাড়াও ফোনটা তো একটা মজার ব্যাপার হলো কোন সাবজেক্ট যদি আপনি পিকচার তুলতে চান সেটাপ প্রেস করে ধরে রাখলেন ক্যামেরাতে আপনার অটোমেটিকলি ফোকাস লক হয়ে যায়, আই মিন সাবজেক্টটা অটোফোকাস হয়ে যায় সেটা আমি বলবো খুবই ভালো। এছাড়া আপনি বেশ কিছু ইফেক্ট দিয়ে ছবি তুলতে পারবেন, পিকচার কোয়ালিটি ও আমার কাছে বেশ ভালো লেগেছে ১৩ মেগাপিক্সেলের অনুযায়ী কিন্তু সমস্যা হচ্ছে গিয়ে একটু লাইট এ চলে আসলে তখন নয়েজের দেখা পেয়েছি, কিন্তু এটা স্বাভাবিক বলব যেহেতু অ্যাপাচার ২.২
এছাড়া মোটামুটি এইটারে প্যারানমা, ৮× পর্যন্ত জুম করে পিকচার নেওয়ার সুবিধা থাকছে। ১০,০০ টাকা বাজেটে ক্যামেরা কোয়ালিটি ভালোই ছিল।


সেলফি ক্যামেরা ৫ মেগাপিক্সেল অনুযায়ী পিকচার কোয়ালিটি অনেকটাই ভালো ছিল সার্ফ ছিল, আর ভালো আলোতে গেলে অবশ্যই ভালো একটি স্যাম্পল পাবেন ওভারঅল আমার কাছে এভারেস্ট মনে হয়েছে। ১০ হাজার টাকা বাজেট অনুযায়ী সামনের ক্যামেরাও ছিল বেশ ভালো।


ফোনটিতে পাওয়ার ব্যাকআপ দেয়ার জন্য থাকছে ৩,০০০ মিলি এম্পিয়ার এর একটি মোটামুটি ব্যাটারি, যেটা কিনা মোটামুটি সারাদিন আপনি রেগুলার ইউজ করতে পারবেন।

ক্যামেরা সেকশনে যারা টুকটাক একটা সিম্পল ফোন ইউজ করতে চান যেটা কম্পিটেবল হ্যান্ড ফিল ভালো থাকবে, স্যামসাং ব্র্যান্ড ভ্যালু আছে, এছাড়া বিল্ড কোয়ালিটি বেশ ভালো ছিল, দেখতে খুবই সুন্দর এবং প্রিমিয়াম স্মার্ট একটা ডিজাইন ছিল, তো আমার কাছে ফোনটির ১০ মধ্যে ৯ স্কোর পাবে এই বাজেট অনুযায়ী। তবে ওভারঅল আপনিও চাইলে ফোনটি ১০ হাজার টাকা বাজেটের মধ্যে কিনতে পারেন। বেস্ট ফোন হবে আমার মনে হয়।


পোস্টটি স্পন্সর করেছে One shop,
Samsung A01, realme C2s সহ যে কোন ব্র্যান্ডের স্মার্টফোন পেয়ে যাবেন একদম রিজনাবল প্রাইসে তাও আবার বাসাতে বসেই অর্ডার করতে পারবেন, তাদের কন্টাক্ট নাম্বার 01865733240

তো এই ছিল আজকের মত ফোনটি কেমন লাগলো আপনার কাছে তা নিশ্চয়ই জানান কমেন্ট বক্সে,আর আপনি যদি এমনই আনকমন এবং ইন্টারেস্টিং পোস্ট ভালোবাসেন তাহলে অবশ্যই লাইক দিয়ে যাবেন, আর কমেন্ট করে নিশ্চয়ই জানাবেন আপনার মূল্যবান মন্তব্য।
আজকের মতো এই পর্যন্তই ছিল দেখা হচ্ছে পরবর্তী কোন পোস্টে সবার সঙ্গে ততক্ষণ পর্যন্ত ভাল থাকুন সুস্থ থাকুন নিজের ঘরে থাকুন আল্লাহ হাফেজ!

Leave a Reply