আইফোন কি শুধু নামেই সেরা নাকি কাজেও সেরা? কিছু আজাইরা আলোচনা।

পার্সোনালি আমি কোনো এপল প্রোডাক্ট ইউজ করি না; তবে একজন Tech-Lover হিসেবে আমি সবসময় নিত্যনতুন টেকনোলজির ব্যাপারে ধারণা রাখার চেষ্টা করি।

এপল আজ পর্যন্ত যেইসব ইঞ্জিনিয়ারিং দেখাইসে
তার প্রায় সবগুলোই ছিল ইউনিক।মানুষ যতই এপল কে হেট করুক না কেনো; দিনশেষে আমার মতোন টেক লাভার রা এপলের প্রশংসা করতে
বাধ্য।

স্মার্টফোনের কথাই যদি বলি,
এপলের বায়োনিক চিপসেটের মতো অপ্টিমাইজড স্মার্টফোন প্রসেসর এই মুহুর্তে আর কোনোটা আছে
কিনা সেই ব্যাপারে আমি সন্দিহান।৩-৫ বছর পরেও
যা পারফর্মেন্স পাওয়া যায়, দাদা!

তারপর ধরেন ios এর অপ্টিমাইজেশন। আইফোনে
মাত্র ৪-৬ জিবি র‍্যাম থাকা সত্ত্বেও এত্তো ভালো পারফরম্যান্স ক্যামনে পাওয়া যায় তা আমার ভাবনার অতীত।

এপল কেনো ওয়ান অফ দি বেস্ট তার কারণ

হিসেবে আমি উপরোক্ত কথা গুলোই বলে থাকি।

উপরের কথা গুলো আমার বলা+আমার চিন্তা করা।
আশা করি এপল ইকোসিস্টেম ইউজাররা আমার সাথে একমত হবেন।

কিন্তু ভাই, সবাই তো আর আমার মতোন চিন্তা করে
না।এবার আসি মুদ্রার অন্যপিঠ নিয়ে কথা বলার জন্য।

একদল আছে যারা শুধু মাত্র এপলের লোগো টা দেখানোর জন্য আইফোন কিনবে।
ইভেন তারা ২০২১ সালে এসে iPhone 5c
কিনবে শুধুমাত্র মিরর সেলফির জন্য🥴
তারা মানুষকে সাজেস্ট-ও করবে ওইসব ৭ বছর আগের ফোন।

তারপর আসে so called tech nerd
এরা জানেই না এদের হাতের আইফোন খানার চিপসেট কি!তাদের মুখে always আইফোনের ক্যামেরার প্রশংসা
শুনবেন। রিসেন্টলি s21 ultra রিলিজ হইসে।আর তারা শুরু করসে মেগাপিক্সেলের তুলনা করা।”আইফোনের ১২ মেগাপিক্সেল Samsung এর ১০৮ এর চাইতে বেটার”।

আর এপল কে নিয়ে কেউ ট্রল করলে তারা
এমনভাবে ডিফেন্ড করবে মনে হবে যেনো টিম
কুক তাদেরকে টাকা দিয়ে ভাড়া রাখসে এপলের

দালালী করার জন্য।

ক্ষেত্রবিশেষে তারা মানুষের ইনকাম নিয়ে খোঁটা
দিতেও দ্বিধা বোধ করে না।

ভাই দেখেন, আমি মানি এপলের ক্যামেরা ভালো তবে ক্যামেরা এপলের একমাত্র সেরা দিক না।এপলের সেরা দিকগুলো আমি আগেই উপরে ব্যাখ্যা করসি।শুধু
ক্যামেরা-ক্যামেরা বলে যারা চিল্লায় তারাই প্রকৃত ফ্যানবয়।

Leave a Reply