🔥ইংরেজি শিখবেন ১০০% তাও আবার অ্যাপ দিয়ে। সবকিছু একসাথে হাতের নাগালে। সাথে প্রিমিয়াম অ্যাপ (পর্ব ১)


পৃথিবীর সবচেয়ে বহুল ব্যবহিত ভাষা হচ্ছে ইংলিশ বা ইংরেজি। আন্তর্জাতিক যোগাযোগের ক্ষেত্রে মনের ভাব প্রকাশেরও একমাত্র মাধ্যম ইংলিশ। পড়া লেখা, অফিস আদালত ও দৈনন্দিন জীবনে সর্বত্র আমাদের ইংরেজির প্রয়োজনীয়তা অপরিসীম। তাছাড়া এখন ইংরেজি একটি অপরিহার্য বিষয় হয়ে দাড়িয়েছে। বিদেশে উচ্চ শিক্ষা গ্রহনের ক্ষেত্রে ইংরেজি জানাদের অগ্রাধিকার বেশি। বিদেশ ভ্রমণে বা যারা চাকরীর উদ্দেশ্যে বিদেশ গমন করে তাদের ইংরেজি জানা আজকাল অত্যাবশ্যক। তাছাড়া আমাদের সমাজে বা আমরা ব্যক্তি জীবনে ইংরেজী জানাদের একটু অন্যভাবে মুল্যায়ন করতে অভ্যস্ত।

ইন্ট্রু শেষ এইবার মূল কথায় আসি। উপরের কথা গুলো বলার মাধ্যমে আমি বুঝাতে চেয়েছি আমাদের জীবনে ইংরেজির প্রয়োজনীয়তা কতটুকু। আমি ব্যাখ্যা করার চেষ্টা করেছি সম্পুর্ন নিজের মত করে। সুতরাং আপনার চিন্তা ধারার সাথে নাও মিলতে পারে।

চলুন আমরা সরাসরি চলে যাই মূল টপিকে। ইংরেজির এত প্রয়োজনীয়তা জানার সত্বেও আমরা অর্থাৎ বাংলাদেশের অধিকাংশ মানুষই ইংরেজি জানে না বা ইংরেজিতে শুদ্ধ ভাবে কথা বলতে পারে না। (আসলে আমরা চেষ্টা করি না) অন্যদিকে আমাদের দেশের শিক্ষা ব্যবস্থায় একজন ছাত্র বা ছাত্রী ক্লাস ওয়ান থেকে ক্লাস টেন পর্যন্ত ১০ বছর লেখাপড়া করার পরও পাঁচ থেকে দশ লাইন ইংরেজিতে শুদ্ধ ভাবে বাক্য লিখতে পারে না। (কথিত আছে অনেক সময় অনার্স মাস্টার্সে পড়ুয়ারাও ভূল করে।)

এখন আসবো ইংরেজি কিভাবে শেখা যায়। ভূল বুঝবেন না, বলছি না যে ইংরেজি শেখাবো। আমাদের দেশের প্রেক্ষাপটে ইংরেজি শেখা খুব ব্যয় বহুল। অর্থাৎ আপনি যদি কোন কোচিং সেন্টার ভর্তি হয়ে ইংরেজি শিখতে চান তাহলে আপনাকে একটি বিশাল অর্থ খরচ করতে হবে। তাছাড়া বই সিডির কেনার বিষয়ও আছে।

না না কোচিং সেন্টারে ভর্তি হয়ে ইংরেজি শিখতে উৎসাহ দিচ্ছি না। ইংরেজি শিখবেন জিরো টাকা খরচ করে। ইনশাল্লাহ

এতক্ষণ ধরে আপনি আমার বকবকানি গুলো পড়েছেন তার মানে আপনার কাছে একটা ইন্টারনেট এক্সেসএবল ডিভাইস আছে, তাই না?

হ্যাঁ এই ডিভাইস দিয়েই আমরা ইংরেজি শিখবো। যদি আপনার প্রবল ইচ্ছা থাকে তাহলেই শিখতে পারবেন। আর ইংরেজি বা যে কোন ভাষার শেখার জন্য সময় প্রয়োজন তাই তাড়াহুড়ো করবেন না। তা না হলে যেই লাউ সেই কদু হবে। 😇 আবারও বলছি ইংরেজি শেখার জন্য যথেষ্ট সময় আর ইচ্ছা বা আগ্রহ থাকা প্রয়োজন।

তাহলে শুরু করা যাক? ধরে নিলাম আপনিও আমার মত গরীব মানে Android ব্যবহারকারী (ইউজার)। আমি আপনাদের সাথে জাস্ট কিছু এ্যাপ আর টিপস শেয়ার করবো আর হ্যাঁ অবশ্যই ডিরেক্টশানও।

ইংরেজি শেখার জন্য আমি কখনো বলবো না যে আগে গ্রামার শিখুন বা বিশাল বিশাল অক্সফোর্ড/কেমব্রিজের ডিকশনারি নিয়ে বসে পড়ুন। কাউকে ডিকশনারিতে ছেড়ে দেওয়া যেই কথা আটলান্টিক মহাসাগরে ছেড়ে দেওয়া একই কথা। আগে আপনার মৌলিক যেই জিনিসের নাম গুলো জানা দরকার সেইগুলোর নাম শিখুন যেমন- শতমূলী বা বেগুন এর ইংলিশ কি জানেন? জানলে আপনি একধাপ এগিয়ে আছেন! 🙋 আমি বুঝে নিলাম আপনি চায়নাদের মতো একদম ইংলিশ জানেন না।😇 এখন ধরেন, আপনি লাস ভেগাসে একটি বাজারে (Market) গেলেন এখন আপনি শতমূলী কিনবে কিন্তু আপনি শতমূলীর ইংলিশ কি জানেন না। যদি আপনি শতমূলীর ইংলিশ কি জানতেন তাহলে হয়তো আপনি শুধু মাত্র একটি শব্দ দিয়েই শতমূলী কিনতে পারতেন। আশা করি অল্প হলেও দৈনন্দিন জীবনে ব্যবহিত জিনিস গুলোর শব্দের অর্থের প্রয়োজনীয়তা বুঝাতে পেরেছি।

মানুষ পড়ে শিখে যতটুকু মনে রাখতে পারে, তার চেয়ে বেশি মনে রাখতে পারে চিত্র (ছবি) দেখে শিখলে। চিত্র দেখে শিখলে বুঝতেও সুবিধা হয়। তাই প্রথমে শেয়ার করবো এমন একটি অ্যাপ যেখানে দৈনন্দিন জীবনে ব্যবহার হয় এমন প্রায় তিন হাজারেরও অধিক ছবি যুক্ত শব্দ রয়েছে।

অ্যাপটির নাম Visual Vocabulary এটির অন্য সুবিধা হল ইংরেজি ছাড়াও আপনি আরও ১২টি ভাষায় একই শব্দ ইংরেজির পাশাপাশি শিখতে পারবেন। তবে আমার অনুরোধ থাকবে আপনি যদি না পারেন দয়া করে বেশি লোড ) নেওয়ার দরকার নেই। একজায়গায় মনোযোগ দিন। অন্তত ৪ থেকে ৭ দিন আপনি চর্চা করলে আশা করি আপনি সব বিষয়ের শব্দ অর্থ গুলো মুখস্থ করতে পারবেন ইনশাআল্লাহ। চর্চা কিভাবে করবেন? ধরেন আপনি Vegetables বা Fruits এর নামগুলো শিখছেন, আপনি যখন বাজারে বাজার করতে যাবেন বা ফ্রুটস কিনতে যাবেন তখন যদি আপনি আস্তে করে বাজারে ফোনটা বের করে ছবি দেখে দেখে মিলিয়ে নিজে নিজে চর্চা করেন, তা দুই-কয়েবার হলে দেখবেন শব্দগুলো আপনার রক্তে মিশে যাবে। (জিনিয়াস!)

অ্যাপটির নাম Visual Vocabulary
বড় লোকেরা এখান থেকে ডাউনলোড করুন (কিনতে হবে)
Play Store Download Link

আর যারা আমার মত গরীব তারা এখান থেকে প্রিমিয়াম ভার্সন ডাইনলোড করে নিন (দান করলাম) 👶
Premium Download Link

সুবিধা – ছবি সহ অর্থ প্রদর্শন, উদাহরণ দিয়ে শব্দের ব্যবহার। শব্দের উচ্চারণ, শিখা শেষে টেস্ট দেওয়া ব্যবস্থা।

চলবে…
কেমন লাগলো জানান কমেন্ট বাক্সে, আপনাদের মতামতের ভিত্তিতে নির্ভর করছে আগামীর পোস্ট।

আমি এসএন জিকু (SN Jiku) আজকের মতো বিদায় নিচ্ছি দেখা হবে পরবর্তী পোস্টে।
ভুল হলে ক্ষমা দৃষ্টিতে দেখবেন এটি আমার প্রথম পোস্ট

এই গরীবের বন্ধু হোন মুখবুকে Be my friend on Facebook

আর মন চাইলে দর্শন করে সাবস্ক্রাইব করতে পারেন আমার আপনি-নল চ্যানেলটি। YouTube Channel

Leave a Reply