মায়া আপা অ্যাপ হ্যাক করে নিয়ে নিন প্রতিদিন সামান্য পরিমাণ কিছু মোবাইল রিচার্জ। সবাই পারবেন।

হ্যালো বন্ধুরা কেমন আছেন সবাই ভাল আছেন??
নিশ্চয়ই অনেক ভাল আছেন ভাল থাকার মত একটা পোস্ট করছি।😍😍
মায়া আপা অ্যাপ থেকে কম বেশি ফ্লাক্সি লোড পান নাই এমন মানুষ কমই আছে???
কিন্তু এই ফ্লাক্সি লোড পাওয়ার জন্য আমাদেরকে কি করতে হয় ইনভাইট করতে হয় যেটা অনেকেই করতে পারে না রাইট???😕
একটু ভেবে দেখুন তো???
আপনি যদি নিজেই নিজের ইনভাইট করতে পারেন এবং দিনে কিছু না হোক ৫০ টাকা হলেও একটু কষ্ট করে ফ্লাক্সি লোড নিতে পারেন তাহলে কেমন হয়???😉
আগে একটা কথা বলি হ্যাক করা যাচ্ছে বলে বেশি নেয়ার ট্রাই করেন না তাহলে মোটেও পাবেন না। এখন আপনারা বলুন নাই মার থেকে কানা মা ভাল??? নাকি নাই মা ভালো কোনটা????😐
আপনার কাছে যদি নাই মা ভালো লাগে তাহলে আপনি আসতে পারেন। আর যারা আমার মত মা কে একটু বেশি ভালোবাসেন তাদের আশা করি কানা মায ভালো???😃
এখন এদের রুলস টা বলি কোন টেম্পোরারি ফোন নাম্বার কিংবা ইমেইল ব্যবহার করা যাবে না। মানে হচ্ছে থার্ড পার্টি অ্যাপ্লিকেশন থেকে যেসব ইউ এস এর টেম্পোরারি ইমেইল এবং নাম্বার ফ্রিতে পাওয়া যায় এগুলো ব্যবহার করতে পারবেন না।😔
ওইগুলো যদি ব্যবহার করেন তাহলে কিন্তু আপনি পেমেন্ট পাবেন না | আপনি চাইলে ব্যবহার করতে পারেন কিন্তু পেমেন্ট পাবেন না তাহলে কি লাভ???
এখন আপনি বলতে পারেন তাহলে হ্যাক করব কিভাবে??? উত্তর খুবই সোজা আপনাকে রিয়েল ইমেইল কিনবো ফোন নম্বর ব্যবহার করতে হবে।
তো অবশ্যই আপনি Gmail.com – Hotmail.com – yahoo.com – outlook.com – mail.ru এই ওয়েবসাইটগুলো থেকে রিয়েল জিমেইল প্রতিদিন 10-15 টা করে করে তৈরি করতে পারেন।😃
আমি ধরে নিলাম আপনি এই ওয়েব সাইট গুলো থেকে প্রতিদিন দশটা করে ইমেইল তৈরি করলেন। প্রতিটা রেফার এর জন্য ৫ টাকা করে তার মানে ১০ টা রেফারের বিনিময় পাবেন ৫০ টাকা।😃
তারমানে যেহেতু দশটা ইমেইল এড্রেস তৈরি করলেন তার মানে দশটা অ্যাকাউন্ট ও তৈরি করতে পারবেন আর দশটা একাউন্ট মানেই ৫০ টাকা পেয়ে গেলেন।☺
মোটামুটি প্রতিদিন একাউন্ট করার যে ইমেইলটা কিভাবে পাবেন সেটা দেখিয়ে দিলাম। এখন দেখিয়ে দিই কিভাবে এই ইমেইলগুলো ব্যবহার করে অ্যাকাউন্ট তৈরি করবেন এবং নিজের রেফার কোড নিজেই এপ্লাই করবেন। তো চলুন শুরু করি।😉
তো প্রথমে আপনাকে এই লিংকে ক্লিক করে আমাদের মায়া ডক্টর কে ডাউনলোড করে নিতে হবে।
আচ্ছা মায়া ডক্টর কি ইন্সটল করা হয়ে গেলে এবার আরেকটি অ্যাপ ইন্সটল করতে হবে অ্যাপটির নাম শখ করে দিয়েছি হ্যাকার ম্যান। আমাদের এই হ্যাকার ম্যান কে ডাউনলোড করার জন্য আপনাদেরকে এই লিংকে ক্লিক করতে হবে।
আরেকটি কথা মায়া অ্যাপ যদি আপনার ফোনের মধ্যে আগে থেকেই ইনস্টল করা থাকে তাহলে অ্যাপটির ডাটা ক্লিয়ার করে ফেলুন।
ডাটা ক্লিয়ার করে অ্যাপটির মধ্যে আর প্রবেশ করবেন না ওই ভাবে রেখে দেন। এবার চলে যান আমাদের হ্যাক ম্যান অ্যাপ এর ভিতর যদিও অ্যাপটির নাম অ্যাপ ক্লোন তাই হ্যাক ম্যান মনে করে আবার গুগোল এ সার্চ করে আবার ডাউনলোড কইরেন না।😂
এবার যা করবেন স্ক্রিনশটে দেখাই???









এবার একটা কথা আপনি মায়া আপা তে একটা নতুন বাংলাদেশী নাম্বার ব্যবহার করুন যে নাম্বারটি এর আগে মায়াতে একাউন্ট করা হয়নি। অবশ্যই একটি নতুন নাম্বার ব্যবহার করতে হবে।
ভয় পেয়েন না মাত্র একটাই নতুন নাম্বার লাগবে পরের বার আর লাগবে না। এটির কারণ হচ্ছে এটিই হবে আপনার মেন একাউন্ট এইজন্য।
আর এটাও জেনে নিন আপনি যদি এর আগে খোলা একাউন্টের রেফার কোড ব্যবহার করেন তাহলে একটি সমস্যা হবে সেটি হচ্ছে বারবার এই নতিফিকেশন শো করবে “এই ডিভাইসে ইতিমধ্যেই একটি কোড ব্যবহার করা হয়েছে”
তাই অবশ্যই আপনাকে নতুন একটি নাম্বার ব্যবহার করে অ্যাকাউন্ট তৈরি করে নিতে হবে। তাহলে আর এই সমস্যা কি দেখাবে না।
তো নতুন অ্যাকাউন্ট খুলবেন যেভাবে।



অ্যাকাউন্টটা একটিভ করার জন্য অবশ্যই

xkyaq8

এই ইনভাইটেশন কোড টি দিয়ে এপ্লাই করুন।





একটি যেহেতু ক্লোন করে ইউজ করছি তাই কোড টি আসতে প্রবলেম করতে পারে কোড আসতে প্রবলেম করলে যা করবেন।


তারপর দেখবেন আপনার ফোনের মধ্যে একটি ভয়েস কল চলে আসবে এবং আপনাকে কোড টি বলে দেয়া হবে।
যাই হোক আমাদের নতুন নাম্বার দিয়ে মোটামুটি একাউন্ট করা কমপ্লিট এখন যা করবেন এতক্ষণ যে ক্লোন করা অ্যাপ এর মধ্যে একাউন্ট করলেন ওই অ্যাপটার ডাটা ক্লিয়ার করে দিবেন। অথবা আনইন্সটল করে আবার ক্লোন করবেন।

আপনি এতক্ষণ ধরে যে নাম্বারটি দিয়ে ক্লোন করা অ্যাপের মধ্যে অ্যাকাউন্ট করলেন ওই নাম্বারটি দিয়ে আপনার মেন মায়া অ্যাপ এ লগইন করবেন।







এবার আমাদের ইনভাইটেশন সিস্টেমটা হ্যাক করার পালা তো আবার চলে যাবেন আপনার ক্লোন করা অ্যাপ এর মধ্যে।
এবং আমার দেয়া ওয়েবসাইটের মধ্যে যে ইমেইলটি ক্রিয়েট করেছেন ওই ইমেইলটি দিয়ে নতুন একটি অ্যাকাউন্ট খুলে নিবেন এবং আপনার ইনভাইটেশন কোড টি দিয়ে এপ্লাই করবেন তাহলে রেফার বাড়তে থাকবে।
তারপরও কিভাবে করবেন আমি দেখিয়ে দিচ্ছি।










তো এইভাবে আবারো ডাটা ক্লিয়ার করবেন এবং আরও একটা নতুন জিমেইল দিয়ে আবার একটি একাউন্ট ক্রিয়েট করবেন এবং আবারও আপনার ওই একই ইনভাইটেশন কোড দিয়ে এপ্লাই করবেন।
এভাবে আপনি দিনে যতগুলা ইমেইল পাবেন ততগুলো রেফার ও পাবেন। তাছাড়া আপনি চাইলে আরেকটি মাধ্যমেও হ্যাক করতে পারেন সেটি হচ্ছে ফেসবুক অর্থাৎ আপনি ইউএসএর নাম্বার দিয়ে ফেসবুক একাউন্ট ক্রিয়েট করবেন এবং ওই ফেসবুক একাউন্ট দিয়ে মায়াতে একাউন্ট তৈরি করবেন এবং আপনার একই ইনভাইটেশন কোড দিয়ে এপ্লাই করবেন।
তো যখন ইমেইল তৈরি করা শেষ হয়ে যাবে তখন চাইলে একটি করে ফেসবুক একাউন্ট ক্রিয়েট করে মায়াতে রেজিস্ট্রেশন করে নিজের রেফার নিজেই করুন।
আমি যেই ভাবে দেখলাম এই ভাবে যদি আপনি করেন তাহলে পেমেন্ট পাবেন 100% আর অন্য থায় ধরতে পারলে পেমেন্ট করবে না।
পোস্টটিতে অনেক সুন্দর করে সবকিছু বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে তারপরও বুঝতে সমস্যা হলে কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করে জানিয়ে দিবেন।
আজকের মতো এই পর্যন্ত ছিল দেখা হচ্ছে পরের এপিসোডের ততক্ষণ পর্যন্ত ভালো থাকবেন আজকের মত আল্লাহ হাফেজ।

Leave a Reply