[Must See] Brave Payment কিভাবে নেটওয়ার্ক ফি ছাড়া হাতে নিবেন (!) এবং ব্রেভ সম্পর্কিত ভুল তথ্যের সত্যতা নিরুপণ (পুরোটা পড়বেন)

আসসালামু আলাইকুম!
কেমন আছেন সবাই?
আশা করি সকলেই ভালো আছি।
আজকে সবার জন্য নিয়ে আসলাম ডাবল ধামাকা!

আচ্ছা! খোলাসা করি!!

ব্রেভ নিয়ে নতুন কিছু বলার নেই। ব্রেভ একটি কানাডিয়ান ক্রিপ্টোকারেন্সি প্রতিষ্ঠান যারা ক্রিপ্টোকারেন্সির পাশাপাশি একটি ব্রাউজিং সফটওয়ার উন্মোচন করেন, যাকে আমরা (ব্রেভ ব্রাউজার) হিসেবেই চিনি। ব্রেভ অ্যান্ড্রয়েড, আইওএস এবং উইন্ডোজ ভার্সনের জন্য নির্মিত। এই ব্রেভ প্রতিষ্ঠান তাদের ব্যবহারকারী বাড়ানোর জন্য লোভনীয় অফার ঘোষনা করে। যা হলো, যারা ব্রেভ ব্রাউজার ব্যবহার করেন, তারা তাদের বন্ধুকে রেফার করলে প্রতি রেফারে ৫ ডলার পাবেন। কিংবা এডস দেখলে কিছু পরিমাণ টাকা প্রদান করা হয় যা মূলত তাদেরই একটা ব্যবসায়িক চাল, একই সঙ্গে তাদের টোকেনের মার্কেট ধরে রাখার ধান্ধা। 😛
যাক এই হলো মূলত ব্রেভের আসল পরিচয়।
আসুন এইবার জেনে নিই, কিভাবে ব্রেভের এই রিওয়ার্ডসমূহ আমরা খুবই সহজে অল্প সময়ে হাতে নিতে পারবো।

আগাম বলে রাখছি, এই উইথড্র টপিকে আগেই পোস্ট করা হইছে , কিন্তু সেই পোস্টে বলা হইয়েছে, উইথড্র করতে ৩ ডলার ফি কাটবে। ধরি, আপনি আয় করলেন ৫ ডলার। ৩ ডলার ফি দিয়ে দিলে আর কয় টাকায় বা আপনার কাছে থাকে? সুতরাং, আপনাদের কথা চিন্তা করে আমার এই পোস্ট, আশা করি একটা ধন্যবাদ অন্ততপক্ষে পাবো… নাকি?

তাও মূল কাজে যাওয়ার আগে কিছু প্রমাণ দেখিয়ে যায়ঃ

দেখুন আগের পোস্টের অথরসাহেব বলেছেন ৩ ডলার ফি কাটবে।


দেখুন আমাকে ব্রেভ থেকে কত রিওয়ার্ড দেওয়া হইয়েছেঃ

দেখুন আমি কত উইথড্র করেছিঃ


দেখুন আমার কয়েনবেসে কত আছেঃ

দেখলেন তোহ?? 😀
এইবার মূল কাজে চলে যাওয়া যাক! (না বুঝলে স্ক্রিনশর্ট ফলো করেন)

প্রথমে আপনি চলে যাবেন, আপনার আপহোল্ড একাউন্টে। ওখান থেকে BAT কার্ডে চলে যান।


এইবার Send to Cryptocurrency or utility token এ ক্লিক করুন।


এইবার সবার নিচে দেখবেন, Choose a utility token to send funds to এ Basic Attention Token (BAT) দেওয়া আছে।

ওটাতে ক্লিক করবেন।

এইবার একটা পেজ আসবে, ওখানে Destinations এ আপনার কয়েনবেস ওয়ালেটের (BAT Address) দিবেন। যার স্টার্ট 0x দিয়ে।


Amount এ কত উইথড্র করবেন তার পরিমাণ দিবেন।

মেসেজে কিছু লেখার প্রয়োজন নেই। এইবার “Confirm” এ ক্লিক করবেন।।

আশা করি, সব ঠিক থাকলে ৫-১০ মিনিট অথবা সর্বোচ্চ ১ ঘন্টাতেই আপনার আপহোল্ডের টোকেন আপনার কয়েনবেসে চলে আসবে। দেখবেন, যা ছিলো তাই পাইছেন, একটা পাইও ওরা কাটেনি।

-” কি অথর সাহেব? আপনি না বললেন টাকা হাতে আসবে? কই টাকা তোহ কয়েনবেসেই রইলো, হাতে কয়?! (আগুন ইমু হপ্পে) “

হেহেহেহ, অস্থির হবেন না ভাই। আপনাদের সুস্থির রাখার জন্যই তোহ আজ আমরা ” অথর”।

আসুন, এইবার বাকী কাজটা সেরে ফেলি।

এইবার আপনারা এই লিংকে এ গিয়ে আমার পুরানো পোস্ট থেকে ” বাইটহাব” অ্যাপস ডাউনলোড এবং সাইন আপ করে নিন।

এইবার বাইটহাবে ঢুকে কয়েনবেসের (BAT) সমূহ বাইটহাবে ডিপোজিট করে নেন।

কিভাবে করবেন? :/
ওকা, ফলো মি B)

বাইটহাবের “Deposit” অপশন থেকে BAT টোকেনের ডিপোজিট অ্যাড্রেস নিন।

এইবার কয়েনবেসে গিয়ে ওই অ্যাড্রেসে আপনার কষ্টোর্জিত BAT সেন্ড করে দিন।

৫ মিনিট পর দেখবেন, আপনার বাইহাবে আপনার ব্যালেন্স শো করছে।

এইবার বাইটহাবের এক্সচ্যাঞ্জে যান।

BAT/ETH সিলেক্ট করবেন।


এইবার Sell সিলেক্ট করবেন। তারপর যথাক্রমে Market এবং 100% সিলেক্ট করবেন।

তারপর পাসওয়ার্ড দিয়ে কনফার্ম করবেন।

দেখবেন, আপনার BAT গুলো এখন ETH হয়ে গেছে।

তারপর কিভাবে উইথড্র করবেন, সেটা আমার এই পোস্টে বলা হইয়েছে। দুই মিনিটে উইথড্র করে নিতে পারবেন।
তারপর কিভাবে হাতে নিবেন, তা সম্পূর্ণ আপনার ব্যাপার। কারো কাছে সেল করবেন, নাকি জমিয়ে রাখবেন পরবর্তিতে দাম আরো বাড়লে বিক্রি করবেন তা আপনার ব্যাপার। যদি বিক্রি করতে চান তবে এই পোস্ট দেখে বিক্রি করতে পারেন। (আমি খুবই দুঃখিত, বার বার বিভিন্ন পোস্টের লিংক দেওয়া লাগছে। যদি সেসব লিংক না দিতাম তাহলে আজকে পোস্টটা পড়তে পড়তে দিন রাত কাটায়ে দেওয়া লাগতো আপনাদের)

দেখলেন, মাত্র ৩ ডলার নেটওয়ার্ক ফি বাঁচাতে কত্তটা কাজ করা লাগলো? এই ৩ ডলারের ভ্যালুও কিন্তু অনেক, তা আশা করি বুঝতেই পেরেছেন 😀

আচ্ছা যারা নতুন, তারা নিশ্চয় আঙ্গুল কামড়াচ্ছেন এই ভেবে যে ” এই অথর হালা কি ভুদুর ভুদুর করলো এইসব”

নো প্রব্লেম, চলুন জেনে নিই কিভাবে ব্রেভ রিওয়ার্ডে জয়েন করবেন আর ব্রেভ সম্পর্কিত কিছু ভুল তথ্যের সত্যতাঃ

প্রথমে নিচের যেকোনো একটা লিংক থেকে ব্রেভ অ্যাপস ডাউনলোড করে নিন।

রেফারসহ

রেফারছাড়া

যদি ভালো লাগে তবে রেফারসহ লিংকে যাইয়েন।


এইবার ব্রেভ ব্রাউজারটা ডাউনলোড করে নেন। যদি ফোনে জায়গা না থাকে, তবে এইখান থেকে ডাউনলোড করে নিন। তারপর ইন্যাস্টল করে নিন। কিন্তু ভুলেও অ্যাপসটি অন করবেন না।

এইবার এই লিংকে ঢুকে “Download” ক্লিক করেন। তারপর গুগল প্লেতে নিয়ে যাবে। একটু উপরে নিচে স্ক্রল করে নিবেন।

ব্যস! আপনার ইন্যাস্টলিং পর্ব শেষ।

এইবার রেজিস্ট্রেশন এর পালা

প্রথমে এই লিংকে যান।

তারপর আপনার ইমেইল আইডি দিয়ে সাইন আপ করে নিন।

ইমেইল কনফার্ম করেন।

এরপরে বাকী কাজ খুবই সহজ। যা আপনারাই পারবেন।

2FA ভেরিফিকেশন স্কিপ করবেন।

এইবার নিচে আপনার ইউটিউব/টুইটার একাউন্ট এড করে নিন।

তারপর রেফার লিংক দিয়ে রেফার করতে থাকুন।

ওহ হ্যা, ব্রাউজারের নিচের ডান সাইডের কর্নারের ৩ ডট মেনু তে ক্লিক করে Brave Reward এ ক্লিক করুন, এরপর “I am in” এ ক্লিক করে রেওয়ার্ড ওয়ালেট খুলে রাখুন।

ব্রেভ মাঝে মাঝে অকশনালি ইউজারদের কিছু ব্যাট টোকেন দেই, যা এখানে গেইন করতে পারবেন। পরিমাণও ৫ ডলার থেকে ৪০ ডলারের মধ্যে। কিন্তু সবসময় না। হয়তো বছরে ২-৩ বার এমন দেই।

তাছাড়া আপনার যদি পিসি থাকে, তবে পিসিতে এও প্রক্রিয়ায় ইন্যাস্টল করে নিতে পারেন। তাতে অ্যাডস দেখে দেখে ভালো একটা পরিমাণ আয় করতে পারবেন। উইথড্র প্রসেস সেইম। (রেজিষ্ট্রেশন আর উইথড্র প্রসেস সহজ, তাই সেগুলোর স্ক্রিনশট দিইনি। পোস্টও বড় হইয়ে গেছে এমনিও)

আর ব্রাউজারটা ব্যাবহার করবেন। আমি পার্সোনালি এই ব্রাউজারটাই ব্যবহার করি। কেননা এটা ক্রোমিয়াম ব্রাউজার, যা ক্রোমের মতোই, তবে ক্রোম থেকে হাজার গুণে ভালো। সাথে আপনাকে প্রাইভেসি দেই। ভালো অ্যাডস ব্লক করে আবার লোকেশন ট্রাক করা থেকেও বিরত রাখে। (অপরাধিদের উপকার হবে :P)

আপনারা যারা রেজিস্ট্রাশন প্রক্রিয়া বুঝেন নাই, তাদের জন্য আমি একটা ভিডিও পোস্টের শেষে এম্বেড করে দিবো। শুধু রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়াটাই দেখবেন। বাকীগুলো না করলেও চলবে।

পেমেন্ট প্রুফঃ
সবই যখন দিলাম, এটাও নাহয় দেই


ব্রেভ সম্পর্কিত ভুল ধারণা এবং সত্যতাঃ

ব্রেভ যখন রিওয়ার্ড অপশন চালু করে, তখন ব্রেভ সবাইকে কম বেশি ৫ ডলার করে পে করে। যেটা ছিলো শুধুমাত্র অকশনালী। আর এই উপমহাদেশের ইউটিউবার – কন্টেন্ট রাইটাররা ধরে নেই যে ব্রেভ প্রতি মাসে হুদাই ইউজারদের পেমেন্ট দেই। আসলে ব্যাপারটা হলো, একটি চক্র বা ব্যক্তিবিশেষ, যারা শুধুমাত্র রেফার পাওয়ার আশায় এই গুজব রটিয়ে দেই। তারা আসলে তাদের কাজ হাসিল করে নিয়েছে। অজস্র রেফার পেয়েছে।

আসল ব্যাপার হলো, ব্রেভ কন্ট্রিবিউটিং এর জন্য একটি অপশন চালু করেছে, যেটি প্রতি মাসে দান করার জন্য ইউজাররা ব্যবহার করেন।

জানি বুঝেননি, তারপরও বুঝিয়ে বলি।

ব্রেভের ওয়ালেটে আপনি ডলার ইনভেস্ট করে রাখতে পারবেন। এরপর যদি কোনো ওয়েবসাইট আপনার ভালো লাগে, সে ওয়েবসাইটকে যদি কিছু প্রদান করতে চান… এবং তার যদি ব্রেভে ওয়ালেট থাকে, তবে আপনি প্রতিমাসে সেই ওয়েবসাইট কে কিছু টাকা প্রদান করতে পারবেন। এই সুবিদাটাই মূলত ব্রেভ কন্ট্রিবিউটিং নামে চালু করেছে,আর কিছু মানুষ গুজব ছড়িয়ে তাদের সার্থ হাসিল করে নিয়েছে।

যারা রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া বুঝেন নাই, তারা এই ভিডিও অনুসারে রেজিস্ট্রেশন করবেন।

আশা করি বুঝাতে পেরেছি।

আজ এখানেই শেষ করছি। ভালো থাকবেন, সুস্থ্য থাকবেন। শুভ কামনা রইলো।

যদি আমার এই দৈত্যাকার পোস্ট আপনার সামান্য উপকারে লাগে, তবে পোস্টের শেষে একটা ধন্যবাদ দিতে ভুলবেন না।

আর যদি মনে হয় এই ব্যাটার পোস্ট পইড়া টাইম লস, তবে আরেকটু সুযোগ দিয়েন। 🙂 হয়তো এই ব্যাটা পরে আপনার মুখের হাসির কারণও হতে পারে।

ধন্যবাদ।

প্রোমোশনাল লিংকঃ

পার লাকি ব্যাগ ০.০০১ ইথার করে পাবেন। সম্ভাব্য পেমেন্ট জুলাই মাসের ৪ তারিখে। আপনারা যারা বিগফোরে জয়েন করেননি, তারা এই ভিডিও দেখে হইয়ে নিন। টাইম বেশি নাই কিন্তু।

পারলে সাবস্ক্রাইব করে পাশে থাকবেন।

আবারো ধন্যবাদ।

Leave a Reply