Home Login Register
Click here to share any of your writing

হস্তমৈথুন- ধর্ম এবং বিজ্ঞান – Amartips.Mobi

Home / অন্যান্য / হস্তমৈথুন- ধর্ম এবং বিজ্ঞান – Amartips.Mobi

Shaad › 1 week ago
হস্তমৈথুন- ধর্ম এবং বিজ্ঞান - Trickbd.com

আসসালামু আলাইকুম.
আশা করি সবাই ভালো আছেন,আর আপনাদের দোয়ায় আমিও ভালো আছি।

হস্তমৈথুন কি?

হস্তমৈথুন মানে যৌন পরিতোষের জন্য পুরষের লিঙ্গ বা নারী ভগান্কুর ঘর্ষণ(stimulation) করে যৌনানন্দ উপভোগ করা ।এটা সম্পর্কে প্রত্যেকেরই নিজস্ব উপলব্ধি বা অভিজ্ঞতা হয় এবং সবাই ভাবতে থাকে –ল হায়হায় !আসুন জেনে আসি কোন ধর্ম এ ব্যাপারে কি বলে ?

পৃথিবীর সমগ্র ধর্মগুলো হস্তমৈথুনকে একেক ধর্ম একেক ভাবে দেখে। বেশিরভাগ ধর্মই একে খারাপ চোখে দেখে এবং পাপ হিসেবে গণ্য করে । আবার কিছু কিছু আধুনিক ধর্ম একে বৈধতা দেয় এই বলে যে এতে মানুষ তার যৌনাকাঙ্খাকে আত্মসংযমে সাহায্য করে ।

ইসলামে কেন ইহা সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ?

ইসলামী স্কলাররা সাধারনত বিশেষ পরিস্থিতি ছাড়া হস্তমৈথুন সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ ঘোষণা দেয়। কুরানে ২৩ নম্বর সুরার ৫-৭ নম্বর আয়াতে বলা আছে-

“এবং যারা নিজেদের যৌনাঙ্গ সংযত রাখে তবে তাদের স্ত্রী ও মালিকানাভুক্ত দাসীদের ক্ষেত্রে সংযত না রাখলে তারা তিরস্কৃত হবে না । অত:পর কেউ এদেরকে ছাড়া অন্যকে কামনা করলে সীমালংঘনকারী হবে”

তারপরেও যদি কারও যৌনাকাঙ্খা অবদমিত করা কষ্টকর হয়ে পরে সেক্ষেত্রে হস্তমৈথুনঅনুমোদন দেয়া হয়েছে তবে সেক্ষেত্রে সেটা হবে ভীষণ দুর্ভিক্ষে মৃত শুকরের মাংস খাওয়ার মত এবং যখন অন্য কোন খাবার না মেলে ।

সনাতন ধর্ম কি বলে ?

সনাতন ধর্ম মতে , জীবনের চারটি উদ্দেশ্যর মধ্যে কাম কার্যকে একটি উদ্দশ্যে মনে করে। হিন্দু ধর্মের ব্রম্মাচার্য শাখা ছাড়া সকল শাখাই যৌনাকাঙ্খায় পূর্ণ স্বাধীনতা দেয়। প্রাচীন কামাসুত্রে (চতুর্থ থেকে ষষ্ঠ শতাব্দী) হস্তমৈথুনকে নিষিদ্ধ করা হয়নি এবং সেখানে হস্তমৈথুন করার বিস্তারিত ব্যক্ষা আছে।(সচিত্র)।

ইহুদিধর্ম মতে হস্তমৈথুন কি নিষিদ্ধ?

তালমুদ ধর্মগ্রন্হ মতে হস্তমৈথুন সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। কারণ এটা অপ্রয়োজনীয় বীর্যপাত ঘটায় এবং মনকে কলুষিত করে।

বৌদ্ধধর্ম কি বলে ?

বৌদ্ধধর্মটি গৌতমবুদ্ধের একটি মতাদর্শ বা জীবনের চলার জন্য একটা বিধান । কিন্তু একে এখন ধর্ম হিসেবে চালানো হয়। এই পদ্ধতি বা মতাদর্শে দেখানো হয়েছে কিভাবে মানুষ তার দু:ক্ষ দুর করবে এবং সাংসারিক কাজকর্ম থেকে দুরে সরতে পারে। পালি র ভাষ্যমতে হস্তমৈথুনকে মানব জীবনের চলার পথে সমস্যা হিসেবে ভাবা হয়। সার কথা হচ্ছেএই মৈথুন আপনাকে আলোকিত (enlighten) হতে বাধা দেয়। তাই যারা সাধক( monk) তারা হস্তমৈথুন করেন না। পার্থিব কোন সুখের মধ্যে তারা নেই ।

খ্রীষ্টধর্ম কি বলে ?

বাইবেলে কোথাও নির্দিষ্ট করে বলা নেই যে হস্তমৈথুন একটি পাপ কাজ। তবে ক্যাথলিক চার্চে এটা শেখানো হয় যে হস্তমৈথুন আপনার নৈতিক অবক্ষয় ঘটায়। এবং একে বিকৃত ও গুরুতর পাপ হিসেবে ব্যক্ষা দেয়। যে কোন কিছু যা নৈতিক আদর্শচ্যুতি ঘটায় তা খ্রীষ্টধর্মে নিষিদ্ধ।

বিজ্ঞান কি ব্যক্ষা দেয় হস্তমৈথুনের ?
সাইকোলজি আর বিজ্ঞান দেখিয়েছে যে হস্তমৈথুন একটি প্রাকৃতিক প্রক্রিয়া বিশেষত তরুণদের মধ্যে।

বিজ্ঞান কি ব্যক্ষা দেয় হস্তমৈথুনের

হস্তমৈথুনের সুবিধাগুলো হল-

1)এটি আপনার মনকে প্রফুল্ল করে । আপনার পার্টনার ছাড়াই আপনি আপনার সারাদিনের ব্যস্ততা থেকে ,অবসাদ থেকে মুক্তি পান হস্তমৈথুন করেই ।সেক্সোলজিস্ট এভা ক্যাডেলের মতে

“Masturbation acts as a de-stressor and an antidepressant. It stimulates the release of pleasure endorphins from the brain, which flood the body and boost your mood-just like sex”

2)হস্তমৈথুনের পর ঘুম আসে খেয়াল করে দেখেছেন? এবং সেই ঘুম অনেক গভীর হয় ও উন্নতমানের (quality sleep) । কারণ যখন পুরুষের বীর্য বের হয়, তার সাথে কিছু ক্ষতিকর ক্যামিক্যাল যেমন –

অক্সিটোসিন,ভাসপ্রেসিন,প্রোল্যাক্টিন নামক কিছু পদার্থ বীর্যের সাথে বের হয়ে যায়, যা আপনার মাঝে ক্লান্তি এনে দেয় এবং রিপোর্ট সাইন লাইন একটি নতুন জানালা খোলে । হস্তমৈথুন শরীরের উপর প্রাকৃতিক ঘুমের প্রভাব বৃদ্ধি করে প্রতিদিনের স্ট্রেসের সাথে লড়তে পারে ।

3)সর্দি ঠান্ডা থেকে মুক্ত করে হস্তমৈথুন???

ভাবতে অবাক লাগলেও কথা সত্য। Neuroimmunomodulation জার্নালে একটি পরীক্ষার রেজাল্ট পাবলিশ হয় যেখানে ১১ জন ভলান্টিয়ারকে হস্তমৈথুন করতে বলা হয় এবং শুরুর থেকে শেষ পর্যন্ত রক্ত পরীক্ষার পর দেখা যায় বীর্যৎপাতের সময় কিলার (killer cells called leukocytes) বৃদ্ধি পায় যা ছেলেদের শরীরের ইম্যুয়ুন সিস্টেম বাড়াতে সাহায্য করে।

4)প্রস্টেট ক্যানসার থেকে প্রতিরোধ করে

পুরনো স্পার্ম শরীর থেকে অপসারন করার মাধ্যমে নতুন স্পার্মের সৃষ্টি হয় যা ৩৩% ক্যানসার প্রতিহত করে । ২০০৪ সালে হার্ভাড স্টাডি জানতে পারে যে যারা মাসে ২১ বার হস্তমৈথুন করে তাদের প্রস্টেট ক্যানসার হওয়ার সম্ৰাবনা কমে যায় তাদের তুলনায় যারা মাসে ৫-৭ বার হস্তমৈথুন করে । এখানে ক্যাডেলের কথা হুবুহু তুলে দিচ্ছি

“The exact link between masturbation and prostate cancer risk is unclear, but flushing the prostate of carcinogens that could cause problems is the objective.”

এছাড়াও

5)Improve heart health

6)Reduce risk of Erectile dysfunction

7)Helps you last longer

8)Makes you look younger

9)Prevents sexually transmitted diseases

10)Increase your লিফেস্পান

২০০৩ সালে দ্য ক্যানসার কাউন্সিল অস্ট্রেলিয়া এর গ্রাহাম গাইলসের নের্তৃত্বে অস্ট্রেলীয় গবেষকরা একটি গবেষনা করেন। তারা দেখেন পুরুষের নিয়মিত হস্তমৈথুন প্রস্টেট ক্যান্সার হওয়ার সম্ভাবনা হ্রাস করে। ২০ থেকে ২৯ বছরের যেসব পুরুষ সপ্তাহে ৫ বা তারও অধিক বীর্যপাত করে, তাদের প্রস্টেট ক্যান্সার হওয়ার ঝুঁকি উল্লেখযোগ্য পরিমাণে হ্রাস পায়। অবশ্য তারা স্বমেহনের সাথে প্রোস্টেক ক্যানসার হ্রাসের প্রত্যক্ষ কার্যকারণ সম্পর্ক দেখাতে পারেন নি। এই গবেষণাটি আরও নির্দেশ করছে যে স্বমেহনের ফলে বীর্যপাতের বৃদ্ধি যৌন সংগমের চেয়ে অধিকতর শ্রেয়, কারণ যৌন সঙ্গমের এর ফলে যৌন সংক্রামক রোগ হতে পারে যা ক্যান্সারের ঝুঁকি বৃদ্ধি করে। যাইহোক, এই উপকারীতা বয়সের সাথে সম্পর্কিত হতে পারে। ২০০৮ সালে হওয়া একটি গবেষণা থেকে দেখা গিয়েছে ২০ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে ঘনঘন বীর্যপাত প্রস্টেট ক্যান্সার তৈরীতে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখতে পারে। পক্ষান্তরে, একই গবেষণায় দেখা গিয়েছে ৫০ বছর বয়সীদের ক্ষেত্রে ঘনঘন বীর্যপাত ক্যান্সার তৈরীর ঝুঁকি হ্রাস করে।

১৯৯৭ সালে প্রকাশিত একটি গবেষণায় পাওয়া যায়, করোনারি হৃদরোগে মৃত্যু এবং রাগমোচনের হারের মধ্যে একটি বিপরীতমুখী সম্পর্ক আছে, অর্থাৎ রাগমোচনের হার বৃদ্ধি পেলে করোনারি হৃদরোগে মৃত্যুর হার কমে যায়, যদিও যৌনক্রিয়ার ফলে মায়োকার্ডিয়াল ইশেমিয়া ও মায়োকার্ডিয়াল ইনফারকশন এর ঝুঁকি দেখা যেতে পারে।

তথ্যসুত্র- 10 BENEFITS OF Masturbation

হস্তমৈথুনের অসুবিধাগুলো হল

পুরুষের শিশ্ন যদি তীব্র পীড়নের মধ্য দিয়ে যায়, অনেক বেশি বাঁকানো হয় বা স্বমেহন বা সঙ্গমের সময় অন্য কোন ধরণের আঘাতপ্রাপ্ত হয় কখনও কখনও শিশ্ন চীড় অথবা পেয়রোনি রোগ হতে পারে। ফাইমোসিস হচ্ছে শিশ্নের অগ্রভাগের চামড়ার সংকুচিত অবস্থা, যার ফলে চামড়াকে পেছনের দিকে টেনে নামালে ব্যাথাজনিত সমস্যার সৃষ্টি হয়।এক্ষেত্রে লিঙ্গে বলপূর্বক যে কোনো টান (স্বমেহনে যেমনটা হয়),সমস্যা তৈরি করতে পারে।

পুরুষের একটি ক্ষুদ্র অংশ পোস্টঅর্গাসমিক ইলনেস সিন্ড্রোমে (পিওআইএস) ভোগে যার ফলে বীর্যপাতের পরপরই পুরো শরীরের মাংসপেশীতে তীব্র ব্যথা অনুভুত হয় এবং অন্যান্য লক্ষণ প্রকাশ পেতে পারে, তা স্বমেহনের পরেই হোক বা যৌনসঙ্গমের পরেই হোক। এই উপসর্গগুলো এক সপ্তাহ যাবৎ থাকতে পারে। এই ধরনের লক্ষণ এক সপ্তাহ পর্যন্ত স্থায়ী হতে পারে।কিছু চিকিৎসক অনুমান করেছেন যে পাঠ্যপুস্তকে পিওআইএস যে পরিমাণের কথা উল্লেক রয়েছে, এর ভুক্তভোগীর সংখ্যা এর চেয়েও বেশি হতে পারে,এবং বেশিরভাগ পিওআইএসে আক্রান্ত ব্যক্তির রোগ নির্ণয় করা হয় না।

শেষমৈথুন:

যেকোন কিছুই অতিরিক্ত করাই খারাপ। আপনি যদি আপনার শরীরের চাহিদার চেয়ে বেশি পানি পান করেন , সেটাও আপনার শরীরের জন্য খারাপ। প্রতিদিন ২/৩ বার হস্তমৈথুন করাও তেমনি শরীরের জন্য ভাল নয়। আপনার মস্তিস্ক চাচ্ছে না কিন্তু আপনি জোর করে পর্ণ দেখে আপনার মস্তিস্ককে বাধ্য করছেন হস্তমৈথুন করার জন্য । সেটা কি ভাল হবে? যখনই একা থাকবেন , চেষ্টা করবেন নিজেকে ব্যস্ত রাখতে ,এটা নিষিদ্ধ না ভেবে এটাকে প্রাকৃতিক ভাবুন। কাউকে ধর্ষণ করার চিন্তা ছাড়াই হস্তমৈথুন করা যেতেই পারে। মনের চিন্তা যে মনে দমিয়ে রাখতে পারে সেই প্রকৃত মানুষ নয়কি?

For further information And Source :
Wiki Masturbation

‌‌‌‌‍‌‌‌‌


About Author


Contributor
Total Post: [136]
blogger at https://banglalovesmsbd.com

Leave a Reply

You Must be Login or Register to Submit Comment.

AmarTips.Mobi 2017
Powered by - AmarTips.Mobi