[Honeygain]কোনো কাজ না করেই শুয়ে শুয়ে প্রতিমাসে ইনকাম করুন ২০ ডলার।[Wi-fi]

আমরা বাংগালী সারাদিন ইন্টারনেটে যা খুজে বেড়ায় তার মধ্য একটি হচ্ছে কীভাবে কাজ না করে শুয়ে শুয়ে ইনকাম করা যায়।বাসায় হয়ত অনেকে বলে থাকে ইনকাম করতে হলে কাজ করতে হয়। এই কথা সম্পূর্ণ সঠিক নয়, কারণ আজকে দেখাব কীভাবে কাজ না করে ইনকাম করবেন।
যা যা প্রয়োজন

একটি মোবাইল, একাধিক মোবাইল হলে ভাল হয়।
একটি কম্পিউটার, না থাকলেও অসুবিধে নেই।
ওয়াইফাই কানেকশন, অবশ্যই লাগবে।

কাজ ছাড়া টাকা দিবে কে?

এই প্রশ্ন আপনার মনে আসতে পারে। কিন্তু আসলে এইরকম অনেকেই আছে যারা কাজ ছাড়া টাকা দেয়। উদাহারণ হিসেবে বলা যায় ক্লাউড মাইনিং। এখন যে পদ্ধতি দেখাব তা নিয়ে কিছুটা আলোচনা করি। HoneyGain এটি হচ্ছে এমন এক এপ্লিকেশন যা আপনার ফোনে ইন্সটল থাকা অবস্থায় আপনার ফোনের আনইউসড ব্যান্ডউইথ ব্যবহার করবে। এবং বিনিময়ে আপনাকে কিছু পরিমাণ টাকা আপনাকে তারা দিবে। এখন ব্যান্ডউইথ কি? ব্যান্ডউইথ হল আপনার ইন্টারনেট যা আপনার ISP আপনাকে দিয়ে থাকে, আপনি রাউটারের মাধ্যমে ব্যবহার করেন। Wifi আনলিমিটেড ব্যান্ডউইথ আমাদের দিয়ে থাকে যা আমরা সবব্যবহার করি না। কিন্তু হানিগেইন আপনার ব্যবহার না করা ডাটা ব্যবহার করবে এবং বিনিময়ে আপনাকে টাকা
দিবে।

আমার ফোনের তথ্য চুরি করবে?

আপনি একটি সফটওয়্যার ফোনে বা পিসিতে ইন্সটল করে রাখবেন আর সে আপনাকে টাকা দিবে। বিনিময়ে তার লাভ কি? আপনার অজান্তে আপনার ফোনের তথ্য সে পাচার করছে নাত? আপনার ফোনের ছবি ভিডিও সব কিছু সে বিক্রি করছে নাত? না এরকম কিছু না। এখন বলবেন আমি জানি কীভাবে? তার জন্য আপনাকে কিছু প্রমাণ দেখাচ্ছি।

১ নাম্বার পয়েন্ট

সফটওয়্যার আপনার ফোনে ইন্সটল করার পরে App Info তে গিয়ে দেখেন ফোনের কোনো পারমিশন নেই নি। যেখানে সাধারণ নিউজ পড়ার সফটওয়্যার Call,Message,Camera ইত্যাদির পারমিশন নিয়ে ফেলে সেখানে এই সফটওয়্যার একদম কোনো পারমিশন নেই নি।

২ নাম্বার পয়েন্ট

কোনো পারমিশন ছাড়া সফটওয়্যার চলা কিন্তু সম্ভব না। কিন্তু কোনো না কোনো পারমিশন লাগবেই এটি রান করতে। সেখানে কি এর কোনো কারসাজি আছে? তা জানতে চলুন এর ভেতরে যাই। Privacy Policy তে গেলে আপনি দেখতে পারবেন সম্পূর্ণ ডিটেইলস। তারা কি কি পারমিশন নিচ্ছে, কোথায় কি হচ্ছে সব। যদি একজন বিশেষজ্ঞ হন তাহলে বলতে পারবেন এটি তেমন কিছু না। এখানে আপনার ক্ষতি হওয়ার জন্য কিছু নেই।

৩ নাম্বার পয়েন্ট

এটি হচ্ছে সবচেয়ে ইম্পর্টেন্ট পয়েন্ট। এই এপ্লিকেশন কাজ করছে কয়েক বছর হয়ে গেছে, তাহলে এত বছরে যদি এটি আপনার ডাটা নিয়ে কিছু করে তাহলে অবশ্যই তা কোনো বিষেষজ্ঞ এর হাতে ধরা পড়েছে। আর স্কেম কোনো কিছু আসলে ইন্টারনেটে তা সাথে সাথে ধরা পড়ে যায়। তাহলে চলুন ইন্সটারনেট কি বলে দেখে আসি।

আমার স্ক্রিনশিট দেখে বুজতে পারছেন আমি কত ঘাটাঘাটি করেছি। যা জানতে পারলাম তা হল এটি একটি খুবই ইন্টারেস্টিং এপ্লিকেশন এবং সম্পূর্ণ নিরাপদ আপনার ব্যবহারের জন্য।

পেমেন্ট এবং পেমেন্ট প্রুফ

প্রথমে আসি পেমেন্টের কথায়। সহজেই বলে দেই আপনার ২০ ডলার হলে তা আপনি Paypal এর মাধ্যমে নিতে পারবেন। এটিই শুধুমাত্র একটি উপায়। এখন প্রশ্ন ২০ ডলার হতে কতদিন লাগবে? আসলে এটি নির্ভর করে আপনার ফোন, ইন্টারনেট, নেটওয়ার্ক ইত্যাদি অনেক বিষয়ের উপর। তাই এক একজনের এক এক টাইম লাগে। ২০ ডলার হতে আপনার ইন্টারনেট ইউস করবে তারা ২০০ জিবির মত তাই বলেছি ওয়াইফাই ইউজার অবশ্যই লাগবে। ইন্টারনেটে যা জেনেছি গড়ে ৪০ দিনে আপনি ২০ ডলার পেয়ে যাবেন। এখন কোনো কাজ ছাড়াই ২০ ডলার বা প্রায় ২ হাজার টাকা আপনাকে কে দিবে? তা ৪০ দিন হোক বা ৪০০ দিন। আরেক জায়গায় দেখলাম একব্যক্তি ২৫ দিনে ২০ ডলার করে ফেলেছে। এই গেল পেমেন্টের কথা এবার আসি প্রুফে। আমি এটি ইন্সটল করেছি ২ দিন হল। পেমেন্ট পেতে আমার আরো ১ মাস লাগতে পারে। কিন্তু আমি ২ মাস পড়ে পেমেন্ট পাওয়ার পড়ে প্রুফ দিলে অনেকের খালি বলে থাকতে হত। এখন আপনাদের এই এপ্লিকেশন শেয়ার করলাম আপনারাই নিজেরাই পেমেন্ট প্রুফের সাক্ষি হবেন ১ মাস পর আমার সাথে। কিন্তু টিকবিডির রুলে আছে কোনো স্কেম আপ্লিকেশন নিয়ে পোস্ট করা যাবে না। তাই চলুন প্রমাণ করে দেই এটি পেমেন্ট দেয় কি দেয় না।

ইন্টারনেট প্রুফ

এর জন্য আবার সাহায্য নিব ইন্টারনেটের। কারণ একমাত্র ইন্টারনেট আছে যা আপনাকে বলে দিতে পারে কোনো ওয়েবসাইট কতটা সঠিক বা ভুয়া। চলুন ঘুরে আসি প্রুফের দুনিয়ায়।


স্ক্রিনশট দেখে কি বুজলেন জানি না তবে বিশ্বাস করেন এতগুলো রিভিউ, প্রুফ এর মধ্য একটিমাত্র নেগেটিভ রিভিউ বা স্কেম করেছে এরকম কিছু পাইনি আমি। তারমানে যা বলা যায় এই এপ্লিকেশন ১০০ পারসেন্ট লেজিট এবং ১০০ পারসেন্ট পেমেন্ট দেয়। প্রতিদিন গুগলে সার্চ করলে দেখবেন এর পেমেন্ট প্রুভ বেড়েয় চলছে।

HONEYGAIN SETUP

প্রথমে আপনাকে একটি একাউন্ট খুলতে হবে।আপনি যদি একাউন্ট খুলেন কারো রেফার ছাড়া তবে আপনি কোনো বোনাস পাবেন না। আপনি যদি কারো রেফারে একাউন্ট খুলেন তবে পাবেন ৫ ডলার বোনাস। আমি নিজেই ধরা খেয়েছি রেফার ছাড়া একাউন্ট খুলে পড়ে আবার আরেকটি একাউন্ট খুলি।
CREATE ACCOUNT WITHOUT REFFER
CREATE ACCOUNT WITH REFFER
তারপর আপনাকে তাদের সফটওয়্যার ডাউনলোড করতে হবে পিসি বা মোবাইলের জন্য। তা তাদের ওয়েবসাইট থেকেই করতে পারেন অথবা নিচে দিয়ে দিলাম লিংক।
Download Link
এপ্লিকেশন ইন্টল করে আপনার একাউন্টে লগিন করুন। ব্যাস কাজ শেষ আর কিছু করতে হবে না। এটাই ছিল সেটাপ, পিসিতেও সেইম কাজ করতে পারেন।

RULES AND INCREASE INCOME

প্রথমেই বলছি একাধিক ডিভাইস হলে ভাল হয় এতে আপনার ইনকাম বেশি হবে। এবার বলি ঘটনা। আপনি একাউন্ট খুলার পড়ে সেইম একাউন্ট দিয়ে যদি ৪-৫ টি ফোনে আপ্প ইন্সটল করে রাখেন তবে প্রতিটি মোবাইল থেকে আপনার ইনকাম হবে। আপনি একটি একাউন্টে সর্বোচ্ছ ৬ টি ডিভাইস কানেক্ট করতে পারবেন মোবাইল এবং পিসিসহ। আরেক শর্ত হচ্ছে আপনি একটি নেটওয়ার্ক এর সর্বোচ্ছ ৩ টি ডিভাইস রাখতে পারবেন। অর্থাৎ আপনি যদি ওয়াইফাই ব্যবহার করেন তবে আপনার ওয়াইফাই নেটয়ার্কে আপনি রাখতে পারবেন ৩ টি ডিভাইস কানেক্ট করে। কারণ একই আইপিতে একাধিক ডিভাইস রাখা যাবে না বা ৩ টির বেশি। আপনি যদি সর্বোচ্ছ ৬ টি ডিভাইস কানেক্ট করতে চান তবে আপনাকে ২ টি ওয়াইফাই নেটওয়ার্ক অথবা মোবাইল ডাটা ব্যবহার করতে হবে। এখন যেহেতু ১ টি ওয়াইফাই নেটওয়ার্ক থাকে সকলের কাছে তাই বলতে পারি আপনি আপনার একাউন্টে সর্বোচ্ছ ৩ টি ডিভাইস কানেক্ট করতে পারবেন। একাধিক ডিভাইস কানেক্ট করতে ডিভাইসগুলোতে এপ্লিকেশন ইন্সটল করে আপনার একাউন্ট দিয়ে লগিন করুন কাজ শেষ।

আমার ইনকাম এবং সতর্কতা

আমি রেফারে ইনকাম শুরু করেছি তাই 😃 ৫ ডলার বোনাসসহ আমার আর দরকার ১৫ ডলার। গতকাল আমার আর্নিং হয়েছে ২৪ সেন্ট বা ০.২৪ ডলার। আজকে তা বৃদ্ধি পাচ্ছে আরো। আশা করি ৩০-৪০ দিন বা তার কমে ১৫ ডলার হয়ে যাবে। আবার সতর্ক করে দিচ্ছি এক একাউন্টে ৬ টি এবং এক নেটওয়ার্ক এ ৩ টির বেশি ডিভাইস কানেক্ট করবেন না এতে আইডি ব্যান হতে পারে।

SUPPORT ME

JOIN MY TELEGRAM CHANNEL

Leave a Reply