নকল জিনিস চেনার অসাধারণ ৭ টি উপায় আপনাকে কেউ ঠকাতে পারবে না ১০০% চ্যালেঞ্জ দিয়ে বলছি।

হ্যালো ফ্রেন্ডস আশা করি সবাই ভালো আছেন আর দোয়া করি সবাই ভালো থাকেন।


আজকে আমি আপনাদের মাঝে শেয়ার করবো
নকল জিনিস চেনার অসাধারণ ৭ টি উপায় আপনাকে কেউ ঠকাতে পারবে না ১০০% চ্যালেঞ্জ দিয়ে বলছি।
কারণ আমরা অনেক সময় দামি বিভিন্ন জিনিস কিনে থাকি কিন্তু সমস্যা একটাই যে নকল হবে কি না এজন্য আপনাদের কথা ভেবে আজকের এই পেষ্ট।তো বন্ধুরা আপনারা সবাই জানেন যে I phone, Sumsang,এমন ধরনের পণ্য ফেক হয়ে থাকে।

তো চলুন শুরু করা যাক___

১.মেটারিয়াল বন্ধুরা জানেন যে ফেক ফোন বানানোর জন্য দামি মেটারিয়াল ব্যবহার করা হয় না।কারণ তারা চায় না যে তাদের ফেক ফোন গুলো দামি হোক।অপর দিকে দামি ফোন গুলো উন্নত মেটারিয়াল ব্যবহার করে।

২.ফিনিসিং কম দামি ফোন গুলো ফিনিসিং ভালো হয় না কারণ তারা অল্প টাকার ভেতরে তৈরি করে।
অপর দিকে দামি ফোন গুলো তাদের লস হলে ও তারা সব সময় হাই কোয়ালিটি সাম্রগ্রী দিয়ে তৈরি করে।এতো দারুন হয়ে থাকে আপনি হাতে নিলে বুঝতে পারবেন।অরজিনাল ফোনের কালার স্পিড সব সময় ভালো থাকে।কারণ তারা সব কিছু উপর নজর দেয়।বিশেষ করে আনঅথোরাইজ অনলাইন সাইট থেকে কেউ ফোন কিনবেন না তাহলে বড়সর ক্ষতি হতে পারে।

৩.বন্ধুরা আপনি যখন কোন নতুন ফোন কিনবেন তার উপর একটি গাইড বই দেখতে পাবেন।

মোবাইলের সমস্ত তথ্য এই গাইড বইতে লেখা থাকে।
কিন্তু আমাদের মধ্যে ৯৯% মানুষ এই বইটি কখনো খুলে দেখে না,মোবাইল নিয়েই অ্যাপস ডাউনলোড করতে শুরু করে।এই বই দেখে আসল নকল চেনা যায়।আপনি যদি দুবাই নাগরিক হয়ে থাকেন তাহলে দেখবেন যে বইতে আরবি এবং ইংলিশে লেখা থাকবে আর এটা যদি চায়না ভাষায় লেখা থাকে তাহলে বুঝবেন ফেক।

৪.বন্ধুরা আপনি যখন কোন ফোন কিনবেন সেটা যে কোন ব্রান্ডের হোক না কেনো অবশ্যই পেকেটের দিকে নজর দিবেন কারণ নকল মোবাইল গুলো প্যাকেটের উপর বেশি নজর দেয় না অপর দিকে আসল কোম্পানি গুলো তাদের প্যাকেট গুলো মানসম্মত করে।

৫.চার্জার বন্ধুরা আপনি যখন ফোন কিবেন তখন চার্জের দিকে নজর রাখুন।বিশেষ করে এশিয়া মহাদেশে চার্জার গুলো খারাপ কোয়ালিটি দেয় এবং গোল হয়ে থাকে।অনেক সময় দেখবেন চার্জার তিন কোনা হয় তাহলে বুঝবেন এটা আপনার দেশের জন্য তৈরি হয়নি।আর যদি কোন চার্জার কিনেন বলে পাল্টায় দিবে তাহলে এসব পন্য কেনা থেকে বিরত থাকুন।চার্জার যদি ডাটা কেবল ডুকতে সমস্যা হয় তাহলে বুঝবেন ফেক কারণ অরজিনাল সব সময় সুন্দর ভাবে খাপ খায়।

৬.বন্ধুরা আপনি একটা মোবাইল কিনতে চাচসেন কিন্তু এটা যদি হয় অনেক দামি।কিন্তু এটা যদি চায়নিস কপি হয় তাহলে এমন ভয় থেকে বাঁচতে একটু নারিয়ে দেখুন যদি নরে তাহলে বুঝবেন ফেক কারণ অরজিনাল পণ্য গুলো বস্কটা ও হাই কোয়ালিটি করে।

৭.ব্রান্ড লোগো বন্ধুরা প্রতিটি কোম্পানি তাদের লোগোর উপর বিশেষ নজর দেয় কারণ তাদের এই লোগোর উপর মোবাইল টি চলবে।অরজিনাল কোম্পানির লোগো এমন ভাবে করা হয় এটা ঘষা মাঝা করলে ও উঠবে না।আপনি একটু খেয়াল করলেই বুঝতে পারবেন যে অরজিনাল লোগো খুব পরিষ্কার হয়ে থাকে।অপর দিকে নকল কোম্পানি গুলো এতো কিছু নজর দেয় না।

আশা করি এই ৭ টিপস আপনাদের খুবই কাজে দিবে অবশ্যই মোবাইল কেনার আগে এমন টিপস গুলো আপনাদের ফলো করা উচিৎ বলে আমি মনে করি ধন্যবাদ।

Leave a Reply