ইউটিউবার রা সব সময় যে পাঁচটি ভুল করে থাকে, যার কারণে চ্যানেল গ্রোউ করে না।

আজকে আমরা আলোচনা করব ইউটিউব এর বিষয়,,,
মাদ্রাসার পড়াশোনার চাপের কারণ আমি নিয়মিত আসতে পারি না অনেকদিন পর আপনাদের জন্য আমি চতুর্থ পর্ব নিয়ে আসলাম এই পর্ব টা আশা করি আপনাদের সকলের ভাল লাগবে আপনারা যদি আমার আগের তিনটি পর্ব না দেখে থাকেন তাহলে অবশ্যই অবশ্যই এই তিনটি পর্ব দেখে নিবেন এতে করে আপনাদের ভিডিও তৈরি করতে অনেক অনেক হেল্প হবে আমি এই তিনটি পর্বের লিংক এখানে দিয়ে দিলাম।

ইউটিউবে যারা কাজ করেন বা শুরু করবেন ভাবছেন তাদের জন্য বিস্তারিত পোস্ট। (পর্ব ১)

ইউটিউবে যারা কাজ করেন বা শুরু করবেন ভাবছেন তাদের জন্য বিস্তারিত পোস্ট। (পর্ব ২) ইউটিউবে যারা কাজ করেন বা শুরু করবেন ভাবছেন তাদের জন্য বিস্তারিত পোস্ট। (পর্ব ৩)

আজকে জানি আলোচনা করবঃ
আপনাদের মাঝে অনেক এমন ইউটিউবার আছে যারা বছর পর বছর অনেক কষ্ট করে তারপরও তাদের চ্যানেলটা গ্রোউ করে না তাদের ভিউজ বাড়েনা, সাবস্ক্রাইবার ও বাড়েনা।
হতে পারে এই বিষয়টা আপনার সাথেও হচ্ছে। আপনি এরকম কষ্ট করছেন এত
কষ্ট করছেন, এমন কিছু নেই যেটা আপনি করেননি, তারপরেও কোন ভাবে আপনার চ্যানেল টি গ্র হচ্ছে না অথবা আপনি ইউটিউবে সফল হচ্ছেন না।
আপনার অসফল হওয়ার পেছনে আসলে কিছু কারণ আছে, কিছু কিছু ভুল আমরা প্রায় সকল ইউটিউবাররা করে থাকি যে সকল ভুল কখনোই ইউটিউবে সফলতা বয়ে আনে না।
এই পোষ্টের মাঝে আমি এমন কিছু ভুল আপনাদের সামনে তুলে ধরব তো এই ভুলগুলো যদি আপনারা কখনো করে থাকেন তাহলে আপনারা সফল হবেন না

তো এই অধমের কাছে যতটুকু জ্ঞান আছে বা যতটুকু জানে তা এখানে তুলে ধরল 😣

পাঁচটি ভুল

সবথেকে বেশি ভুল করে নতুন ইউটিউবার গণ নতুন ইউটিউবে এসে নিয়ম-কানুন ঠিক মত বুঝতে পারে না।

1- spamming

স্পামিং কি তা আমি প্রথমে ক্লিয়ার করে দিই, আপনারা বিভিন্ন চ্যানেলের ভিডিওর নিচে গিয়ে দেখবেন যে কেউ কমেন্ট করেছে যে বলল আমার চ্যানেলটা একটু ঘুরে দেখুন, আমার চ্যানেলটা সাবস্ক্রাইব করুন, আমি আপনাকে সাবস্ক্রাইব করেছি আপনি আমার চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন, আরো অনেক ধরনের কমেন্ট তারা করে থাকে।
এমনকি আপনি যদি ইউটিউব গাইডলাইন ভালোভাবে দেখেন সেখানে বলা আছে, যে কেউ যদি কমেন্ট বক্সে SUB শুধু এইটুকু লিখে তাহলেও এটাকে স্পামিং ধরা হবে।
তো আপনি চাই নতুন ইউটিউবার হন অথবা পুরাতন ইউটিউবার হন আপনি এই ধরনের ভুল কখনোই করতে পারবেন না। যদি আপনি এই ধরনের স্প্যামিং রেগুলার করে থাকেন তাহলে আপনার চ্যানেল কখনোই গ্র করবেনা চাই আপনি অনেক ভালো কোয়ালিটির ভিডিও আপলোড করে না কেন।

2- copyright

আমরা যখন প্রথম ইউটিউবে আসি তখন ভাবি এত কষ্ট করে ভিডিও বানানোর কি দরকার? অন্যের ভিডিও কপি করে আনলেই তো হয়। আপনারা বলবেন কপি করার শুধু থাকলে কেন কপি করব না?
আমি বলব হ্যাঁ এখানেই তো সমস্যা, আপনি যদি কপি করেন তাহলে আপনার ভিডিওটা রেংক করবে না, কারণ হাতে এই ভিডিওটা এমন একটা সোর্স থেকে কপি করেছেন যে আপনাকে কপিরাইট স্ট্রাইক অথবা কমিউনিটি গাইডলাইন দেওয়ার মতো কোনো লিগাল ইনফর্মেশন ইউটিউব এর হাতে নেই। কিন্তু ইউটিউব এর হাতে এই ক্ষমতা আছে যে আপনার এই ভিডিওটা না করানোর। ইউটিউব আপনার সাথে ঠিক এটাই করবে। এখন আপনারা যারা ভাবছেন যে আপনারা আপনাদের মাস্টারমাইন্ড দিয়ে আপনার ভিডিওটা কে এডিট করবেন যে এডিট করার পরে এটাকে আর কপিরাইট স্ট্রাইক করবে না হ্যাঁ আপনার এটা বানাতে পারবেন কিন্তু এর দ্বারা আপনারা ইউটিউবে সফল হবেন না । তো আপনারা কপিরাইট থেকে বিরত থাকুন।

অন্যের ভিডিও কপি না করে শুধু আপনি যা পারেন তাই নিয়ে ভিডিও করেন আপনি ভালো গান গাইতে পারেন আপনি ভালো কবিতা বলতে পারেন আপনি ভালো গেম খেলতে পারেন ক্যামেরার সামনে হোক অথবা ক্যামেরার পিছনে হোক যেভাবেই হোক আপনি নিজে একটা ভিডিও তৈরি করেন ভিডিও তৈরি করে আপলোড করেন। ইনশাআল্লাহ ভালো ফল পাবেন।

3- misleading

এই ভুলটা নতুন ইউটিউবার অথবা পুরাতন ইউটিউবার প্রায় সকলেই করে থাকে।
আর সেটা হলো যে আমরা প্রায় সময়ই দেখে থাকি যে টাইটেলে দেওয়া থাকে এক নাম বা এক জিনিস আর ভিডিও থাকে আরেকটা অথবা থাম্বনাইলে দেওয়া থাকে এক ছবি ভিতরে ভিডিও থাকে আরেক। যেমন থাম্বনাইলে দেওয়া থাকে মিস্টার বিনের ছবি ভেতরে থাকে মোশারফ করিমের ভিডিও। এরকম তো আমরা প্রায় সব সময় পাওয়া যায়। আমরা অতিরিক্ত ভিউ পাওয়ার লোভে এই ভুলটা সব সময় করে থাকি।
এইটা সম্পূর্ণরূপে মিসলিডিং এবং স্প্যামিং এর মাঝে পড়ে। আর যদি আপনারা এই কাজটা করেন তাহলে আপনাদের কমিউনিটি গাইডলাইন হতেও পারে। তাই সব সময় চেষ্টা করবেন আপনার যে ভিডিও সে ভিডিও রিলেটিভ থামনেল ব্যবহার করতে সেই ভিডিও রিলেটিভ টাইটেল ব্যবহার করতে।

4- Audio quality

আমরা নতুন ইউটিউবার হই অথবা পুরাতন ইউটিউবার সকলেই চিন্তা করি যে আমাদের ভিডিওটা কতটুকু ভালো হলো আমাদের ভিডিওটা কোন জায়গায় করলে ভালো হবে কিভাবে করলে ভালো হবে সেটা নিয়ে সবসময় চিন্তা করি। কিন্তু আমরা কখনোই আমাদের অডিও কোয়ালিটি নিয়ে ভাবি না। অডিও কোয়ালিটি ভালো না হলে দর্শকদের কাছে বা শ্রোতাদের কাছে মোটেও ভিডিওটা ভালো লাগেনা। যেমন ধরুন আপনার সামনে আমি যদি একটা মুভি প্লে করি যে মুভিটার ভিডিও হল প্রিন্টের।
কিন্তু তার সাউন্ড কোয়ালিটি খুবই ভালো আপনার এই মুভিটা খুব ভালোভাবে উপভোগ করবেন এবং আপনারা এই ভিডিওটা বা মুভিটা সবটাই দেখবেন কারণ এটা আপনাদের কাছে ভালো লাগবে। আর যদি অডিও খারাপ হয় তাহলে আপনারা এই ভিডিওটা দেখবেন না যদিও এই ভিডিও ভালো হোক। তাই চেষ্টা করবেন
অডিও কোয়ালিটি টা ভালো করতে এতে করে আপনাদের ভিডিওটা দর্শকদের কাছে গ্রহণীয় হবে।

5- depression

আমরা যখন কোন ভিডিও আপলোড করি তখন সেই ভিডিওটা তে ভিউজ হচ্ছে না, অনেক এসইও করলাম, অনেক ব্যাকলিঙ্ক করলাম, তারপরও আমার ভিডিওটা তে ভিউজ হচ্ছে না।
তারপর আমরা কি করি? ভেঙ্গে পরি।।
৯০% নতুন ইউটিউবার এই ভুলটাই করে থাকে। তোরে নতুন ইউটিউবে এসে যখন কোন ভিউ পায়না তখন তাদের মনটা ভেঙে যায় যার ফলে তারা আর ইউটিউবে আসে না তারা আর ইউটিউবে কাজ করে না।

এখন আমি বলব যে যে যাই বলুক আপনাদের ভিউজ হোক অথবা না হোক আপনারা আপনাদের ভিডিও বানিয়ে যেতে থাকে একদিন না একদিন আপনাদের ভিডিওটা ভিউজ হবে এবং আপনাদের চ্যানেলে ভিজিটর বাড়বে আপনাদের সাবস্ক্রাইব বাড়বে একদিন আপনারা সফল হবেন হবেন হবেনই, ইনশা আল্লাহ,।
তো আপনারা ভিডিও তৈরি করতে থাকেন আশা করি আপনাদের ভিডিওগুলো একদিন না একদিন গ্রো করবে আর হ্যাঁ অবশ্যই এই পাঁচটি ভুলের দিকে অবশ্যই অবশ্যই দৃষ্টি রাখবেন, দৃষ্টি রেখে ভিডিও করবেন।

ভুল হলে ক্ষমা করবেন।
আর অনুগ্রহ করে সবাই নামাজ আদায় করেন।

তো বন্ধুরা আজ এই পর্যন্তই যদি উপরে কোন সমস্যা থেকে থাকে তাহলে কমেন্টে জানাবেন আমি অবশ্যই এর রিপ্লাই দেবো।

আপনাদের সেবায় আমি আমার ইউটিউব চ্যানেলে বিভিন্ন ধরনের ভিডিও আপলোড করে থাকি আশাকরি আমার চ্যানেলের ভিডিও গুলো আপনাদের ভাল লাগবে আপনারা অবশ্যই একবার হলেও আমার চ্যানেলটা একটু ভিজিট করে দেখবেন।

আমার চ্যানেলঃ TipTop BD

আমার ফেসবুক পেইজ TipTop BD

সবাই ভাল থাকুন সুস্থ থাকুন আমারটিপ্সর পাশেই থাকুন ধন্যবাদ।

Leave a Reply