কিভাবে এক্সচেঞ্জ এয়ারড্রপ গুলো করবেন, দেখে নিন ( প্রফেশনাল ভাবে এয়ায়ড্রপ শিখুন | পার্ট-৪ |)

হাই প্রিয় পাঠক!! আশা করছি ভালো আছেন.
আজকের বিষয় হচ্ছে কিভাবে এক্সচেঞ্জ এয়ারড্রপ গুলোই কাজ করবেন বা জয়েন হবেন.
তো প্রতিদিন আমদের অনেক প্রজেক্টে জয়েন হয়া লাগবে,
তাই এভাবে পোস্ট করে তো আর প্রত্যেক প্রজেক্টএর কাজ বুজিয়ে দেওয়া সম্ভব নয় .
সুতরাং , আমি টেলিগ্রাম চ্যানেলে এই ভাবে সারসংক্ষেপ টেনে প্রজেক্টে দিবো আপনারা করবেন |

এখানে প্রথম স্টেপ রেজিস্টার করা | রেজিস্টার করার জন্য আপনি লিংকে ক্লিক করে ডুকে পরবেন,
যদি কোন পপআপ কেটে দিবেন|

ওখানে নোটিস টা স্কিপ করে দিবেন

দেন রেজিস্টার পেজ পাবেন | এখানে আপনার মেইল মনে রাখার মত একটা পাসওয়ার্ড ( যেমন–Sumon1122)
তারপর Terms & কন্ডিশনে টিকমার্ক রেজিস্টার মারবেন ন|

দেন সব কিছু নির্ভুল থাকলে আপনার মেইলে একটা কনফার্মেশন মেইল যাবে

এখন মেইলে ডুকে চেক দেন, আর লিংক টিতে ক্লিক করুন

এই তো আপনাদের প্রথম স্টেপ শেষ.
মানে রেজিস্টার সম্পুর্ন হয়েছে|

তারপর বলা হয়েছে লগিন করতে
লগিন করে নিন!

তারপর মেনু বার থেকে

একাউন্ট এ ক্লিক করুন

তারপর ভেরিফিকেশনে

এখানে দুটো অপশন পাবেন

একটা হচ্ছে আপনার নাম,ঠিকানা এসব দেওয়ার জন্য অন্যটি হচ্ছে আপনার ডকুমেন্ট দেওয়ার জন্য! প্রথমে আমি নাম,ঠিকানা এসব দিচ্ছি।

উপরের দেখতে পাচ্ছেন
First,Middle,Last নেইম দেওয়া আছে
এখানে অনেকে ফিল-আপ করতে পারছেন না! ধরুণ আপনার নাম ঃ- মোঃ সুমন মিয়া
তাহলে আপনি ফিল-আপ করবে First Name: MD
Middle ” : Sumon
Last ” : Miya
অন্যথায় যদি আপনার নাম ঃ- মোঃ সুমন হয়, সেক্ষেত্রে
First Name: MD
Middle ” : খালি রাখবেন
Last ” : Sumon দিবেন |

তারপর আপনার লিঙ টা সিলেক্ট করবেন, আপনার জন্ম সাল টা দিবেন|
আপনার দেশ টা দিবেন | আপনার শহর দিবেন |
তারপর আপনার এড্রেস দিবেন | তারপর আপনার বাড়ি এবং এপার্মেন্ট নাম্বার যদি থাকে দিবেন না হয়,
যেকোন সংখ্যা বসাই দিবেন আমার মত!
দেওয়ার পর সব কিছু একবার চেক করে নিয়ে Submit এ ক্লিক করবেন!

এবার ডকুমেন্ট অপশন টাই আসবেন |
এখানে তিনটি ডকুমেন্ট দিয়ে আপনি KYC জমা দিতে পারবেন|
১- পাসপোর্ট ২-আইডি কার্ড ৩-ড্রাইভিং লাইসেন্স

আমি আইডি দিয়ে করবো!

তাই আমি চ্যুস ফাইলে ক্লিক করলাম এবং আমার ফোনের গ্যালারি তে গেলাম |
আইডি কার্ডের যেহেতু দুটো পৃষ্ঠা তাই আমি সামনের পেজ এবং পেছনের পেজ দুটো সিলেক্ট করে দিলাম|

বিঃদ্রঃ- একসাথে দুটো পিকচার সিলেক্ট করার ফিচার টা আপনি Chrome ব্রাউজারে পাবেন |
দেখুন সিলেক্ট হয়ে গেছে

এবার একটু নিচে এসে সেল্ফি উইথ নোট সহকারে পিকচার টা সিলেক্ট করে দিবেন

সেল্ফি উইথ নোট এই পিকচার টার মানে হলো, যার আইডি তাকে আইডি কার্ড এবং একটা কাগজ হাতে নিয়ে সেই কাগজে প্রজেক্ট নেইম
(যেমন- এই প্রজেক্ট নেইম Coinsbit.io)
এবং সেই দিনের তারিখ টা লিখে একটা পিকচার উঠাটে হবে যেটা আপনি নিচের পিকচার টা দেখে পরিস্কার হয়ে গেছেন

সিলেক্ট করার পর সাবমিটে ক্লিক করবেন
দেন আপলোড হতে কিছু টা সময় নিবে
(আপলোড সময় আপনার পিকচার সাইজের উপর ডিপেন্ড করবে)
তারপর সাক্সেস ভাবে আপলোড হয়ে যাবে

অন্যথায় যদি বলা হতো সেল্ফি উইথ আইডি তাহলে কাগজে লেখা নোট টা লাগত না শুধু সেল্ফি টা আইডি কার্ড নিয়েই তুললে হত!
( এটা বলার কারণ, কিছু এক্সচেঞ্জ এয়াড্রপে KYC করতে নোট লাগে না| আইডি উইথ সেল্ফি হলে চলেযে
এখন KYC টা প্রজেক্ট টিম ম্যানুয়ালি রিভিউ করবে, যদি সব ঠিক ঠাক থাকে
তাহলে Approved বা আপনি বোনাস পাওয়ার অনুমোদন পাবেন |
আমার Approved হয়েছে এবং আমি আমার বোনাস টা পেয়েছি |

জয়েন হওয়ার এই অফার টা থাকবে আগামি মে মাস আশার আগ পর্যন্ত |

এবং আপনি এই বোনাস যখন এক্সচেঞ্জ শুরু হবে তখন এক্সচেঞ্জ করে টাকা হাতে নিতে পারবেন! যেমন টা আমি এই প্রজেক্ট এর আগের ইভেন্টে জয়েন হয়ে পেয়েছিলাম

তো এক্সচেঞ্জ এয়াড্রপ গুলো ঠিক কি ভাবে করতে হয় তা আমি ইভেন্ট চলমান একটা এক্সচেঞ্জ দ্বারা খন্ড খন্ড ভাবে বুঝিয়েছি! আশা করছি বুঝতে পেরেছেন!

যদি আপনার আইডি কার্ড না থেকে তবে, আপনার আব্বু,আম্মু,বড় ভাই যেকারো আইডি ব্যবহারকরতে পারেন বাধা নাই
উপরে KYC নামক একটা কিছু ব্যবহার করেছি!
KYC কি …?
KYC কেন লাগে তা অন্য একটি পোস্টে আলোচনা করবো

পড়তে মন না চাইলে , প্লে করে কান খাড়া করে দিন

ওহ আচ্ছা একটা কথা, এই ইভেন্ট টার লিংক আমার টেলিগ্রাম চ্যানেল এ আছে
টেলিগ্রাম চ্যানেল লিংক

যদি মন চাই এয়ারড্রপে কাজ করবেন চ্যানেল টা তে জয়েন হতে পারেন|

পুরো পোস্ট টা ভিডিও আকারে নিচেঃ- আসছি পরবর্তী পোস্ট নিয়ে ধন্যবাদ |

Leave a Reply