বাংলাদেশের সেরা ৩ টি অ্যাফিলিয়েট মার্কেট। ঘরে বসেই ইনকাম করুন বাংলাদেশী সপিং ওয়েব সাইট থেকে।

আসসালামুয়ালাইকুম।

আশা করি সবাই ভাল আছেন। যে ব্যক্তি আমারটিপ্সসাথে থাকে সে ব্যক্তির খারাপ থাকার কথা নয়। তারপরেও দেশব্যাপী করোনাভাইরাস এর আতঙ্কের জন্য হয়তো আপনি একটু সমস্যায় থাকতে পারেন। আল্লার রহমতে করোনাভাইরাস অতি দ্রুত সেরে উঠুক এই প্রার্থনা করি।

এফিলিয়েট মার্কেটিং সম্পর্কে আমরা প্রায় সবাই কমবেশি জেনে থাকি।

এফিলিয়েট মার্কেটিং হচ্ছে বড় কোন কোম্পানি বা ওয়েবসাইট থেকে প্রোডাক্ট নিয়ে নিজে বিক্রি করা।

নিজের ওয়েবসাইটে প্রোডাক্টের রিভিউ করা। ইউটিউব এ ভিডিও তৈরি করা। অথবা ফেসবুক টুইটার ইত্যাদি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে ব্যাপকভাবে প্রচার করা।এতে কোন ব্যক্তি যদি আপনার পছন্দ কিত প্রোডাক্টটি করে তাহলে তার থেকে আপনি নির্দিষ্ট পরিমাণে কমিশন পাবেন। সেটা, হতে পারে ৫% ১০% ১২% অথবা তার থেকেও কিছু বেশি। ধরুন আপনি একটি ২০০০ টাকা দামের প্রোডাক্ট বিক্রি করলেন ফেসবুকের মাধ্যমে। এতে আপনার কিছুই করতে হবে না শুধু যে ব্যক্তি প্রোডাক্টটি কিনতে চায়। তার, আপনার মাধ্যমে প্রোডাক্টের অর্ডার করতে হবে। প্রোডাক্ট পৌঁছে দেয়ার দায়িত্ব কোম্পানির। আপনার দেওয়া লিংকে থেকে ২০০০ টাকা দিয়ে আপনি প্রোডাক্ট ক্রয় করল।প্রোডাক্টের যদি ১০% কমিশন উল্লেখ থাকে তবে আপনি ১০০ টাকা ১০ টাকা পাবেন তাহলে ১০০০ টাকা আপনি পাচ্ছেন ১০০ টাকা ২০০০ টাকায় ২০০ টাকা।এভাবে আপনি ধরুন দিনে ৫ টি প্রোডাক্ট বিক্রি করলেন তাহলে আপনার অর্থের পরিমাণ হবে ১০০০ টাকা। এটা কম করে ধরলাম। আপনি হয়তো এর থেকেও বেশি করে ফেলতে পারেন। আবার কমও হতে পারে। আপনি ঘরে বসে থেকে এ সকল কাজ করতে পারবেন ইন্টারনেটের মাধ্যমে। আশা করি এ সম্পর্কে আপনার সামান্যতম হলেও ধারনা হয়েছে।

তবে সমস্যা হচ্ছে বাংলাদেশ থেকে এফিলিয়েট মার্কেটিং করা একটু কষ্ট করে। কারণ, বাংলাদেশ আফিলিয়েট মারকেটিং প্লেস খুব একটা নাই।আর পৃথিবীর অন্যান্য দেশে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করতে হলে ইংরেজি ভাষার দক্ষতা থাকা অবশ্যক। আবার কিছু কিছু ক্ষেত্রে টাকা টান্সফার নিয়ে ঝামেলা হয়। যেই ওয়েবসাইট বা কোম্পানিতে আপনি কাজ করবেন সে কোম্পানি বা সাইটে আপনার অ্যাকাউন্ট করতে ঝামেলা পোহাতে হতে পারে। তার পরেও যে থেমে আছে তা কিন্তু নয়।বাংলাদেশ থেকে প্রচুর পরিমাণে ব্যক্তি এফিলিয়েট মার্কেটিং করে পৃথিবীর অন্যান্য দেশের ওয়েবসাইটে বা কোম্পানিতে।

বেশি কথা বাড়াবো না। আজকের পোষ্টটি কি সম্পর্কে তা আপনারা ইতিমধ্যে বুঝতে পেরেছেন।

আজ আমি আলোচনা করব বাংলাদেশের সেরা ৩ টি ওয়েবসাইট যে ওয়েবসাইট থেকে আপনি এফিলিয়েট মার্কেটিং করতে পারবেন এবং টাকা উইথড্র করতে পারবেন বিকাশের মাধ্যমে।

যারা আমার উপরে লেখা থেকে তেমন কিছুই বুঝতে পারেনি তারা চাইলে এই পোস্ট স্কিপ করতে পারেন। অথবা যাদের একেবারে এফিলিয়েট মার্কেটিং সম্পর্কে ধারণা নেই। তারাও পোস্টটি স্কিপ করতে পারেন। যাদের ধারণা নেই তারা গুগোল থেকে অথবা ইউটিউবে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং সম্পর্কে অনেক ভিডিও পাবেন যেগুলো দেখে সামান্যতম হলেও ধারণা পেতে পারেন তারপর এই পোস্ট আপনার কাজে লাগবে বলে আমি মনে করছি।

যাদের ধারণা আছে তারা মনোযোগ দিয়ে নিজের পোস্ট পড়ুন।

১. ব্রুনো ডটকম ( http://www.branoo.com/affiliate )


ব্রুনো একটি শপিং ওয়েবসাইট।

ওয়েবসাইটটিতে বেশিরভাগ পণ্য মেয়েদের। পাশাপাশি ছেলেদেরও পণ্য রয়েছে। পারফিউম, গহনা, হাত ঘড়ি, থেকে যাবতীয় প্রোডাক্ট পাবেন এখানে। ব্রুনো দারাজ এর মত অতটা পপুলার না হলেও অনেক ভালো চলে। আর বাংলাদেশের অনেক ব্যক্তি এই ব্রুনাতে এফিলিয়েট মার্কেটিং করে থাকে। আপনার নিস যদি হয় মেয়েদের প্রডাক্ট ঘিরে তবে আপনি ব্রুনো বেছে নিন।

ব্রুনো পেমেন্ট করে বিকাশ এবং ব্যাংক ট্রান্সফারের। ১০০০ টাকা হলে আপনি ব্রুনো থেকে পেমেন্ট নিতে পারবেন। প্রতি সপ্তাহে এরা পেমেন্ট করে থাকে।

২. স্বপ্ন বাড়ি ডটকম ( https://shopnobari.com/affiliate-home )



শপ্নবারি বাংলাদেশের অন্যতম ইকমার্স সাইট।

সাইটটিতে মূলত শাড়ি, থ্রি পিস, পাঞ্জাবি, সহ বিভিন্ন রকমের পোশাক বিক্রি করা হয়ে থাকে।এটিও বাংলাদেশের অন্যতম বড় রকমের একটি ই-কমার্স সাইট। এই সাইটে এফিলিয়েট মার্কেটিং করে বেশ শান্তি। কমিশনের প্রায় ভালো দেয়। ১২% থেকে ১৫% পর্যন্ত কমিশন পায় পেতে পারেন এখানে।

বিকাশ এবং ব্যাংক ট্রান্সফারের এরা পেমেন্ট করে থাকে। ১০০০ টাকা হলে আপনি পেমেন্ট নিতে পারবেন।

৩. জাক্কাস ডটকম ( https://www.jakkash.com/affiliates )


এটি একটি

বড় রকমের ই-কমার্স সাইট।

প্রচুর পরিমাণে প্রোডাক্ট এখানে আছে। অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ের জন্য এটি একটি ভাল সাইট হতে পারে। নিজের ইচ্ছামত প্রোডাক্ট বাছাই করে মার্কেটিং করার ব্যাপক স্বাধীনতা দিয়ে থাকে এই ওয়েবসাইট। ছেলে-মেয়ে উভয়ের প্রোডাক্ট আছে সাথে আছে ইলেকট্রনিক সামগ্রী।

পেমেন্ট সিস্টেম বিকাশ এবং ব্যাংক টান্সফার। এ সাইটটি ১০০০ টাকা হলে পেমেন্ট করে থাকে।

সর্বশেষে কিছু কথা, ওয়েবসাইট গুলো আমি আজ সারাদিন ধরে খুঁজে খুঁজে বের করেছি। ওয়েবসাইট তিনটি বাংলাদেশের সব থেকে ভালো আফিলিয়েট মারকেটিং ওয়েবসাইটস বলা যেতে পারে। সেই কারণে আমি আমারটিপ্সতে তিনটি সাইট শেয়ার করেছি।

এই তিনটি ওয়েবসাইট নিয়ে আমি বিস্তারিত আলোচনা করলাম না। কিভাবে একাউন্ট তৈরি করতে হয় তাও আমি বলে দেই নি।তবে যারা অ্যাফিলিয়েটিং মার্কেটিং সম্পর্কে হালকা পাতলা ধারণা রাখেন তারা প্রত্যেকে অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে পারবেন বলে আমি মনে করি।এরপরেও যদি কোনো রকমের কোন সমস্যা ফিল করেন তবে আমাকে কমেন্টে জানান দরকার পড়লে আমি পরবর্তীতে আবার পোস্ট করব অ্যাকাউন্ট তৈরি করা নিয়ে।

যদি আপনাদের যথেষ্ট পরিমাণে সারা পাই। তবে তিনটি সাইট স্বতন্ত্রভাবে আমি পোস্ট করতে রাজি আছি। এই তিনটি সাইট থেকে কিভাবে আপনারা আর্নিং করতে পারবেন তা আমি বিস্তারিত আপনাদের সামনে তুলে ধরতে প্রস্তুত।

আপনারা জানেন, বাংলাদেশ থেকে প্রচুর পরিমাণে ফ্রিল্যান্সার প্রতিদিন তৈরি হচ্ছে। আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশ ইন্ডিয়াতেও অনেক ফ্রিল্যান্সার রয়েছে। তারা মূলত অ্যাপ ডেভলপিং টা বেশি করে থাকে।আমাদের বাংলাদেশের ফ্রিল্যান্সারদের মূল টার্গেট থাকে মার্কেটিং করা। যাকে বলা হয়ে থাকে এফিলিয়েট মার্কেটিং এবং এই সেক্টরে পৃথিবীর সবথেকে সেরা আমাদের বাংলাদেশ।

এই সম্ভাবনাকে আরও এগিয়ে নিয়ে যেতে আমাদের প্রত্যেকেরই প্রচুর পরিমাণে পরিশ্রম করা দরকার। সততার সাথে কাজ করা উচিত।

পোস্ট অনেক কষ্ট করে লিখেছি। প্রচুর পরিমাণে এটা নিয়ে ঘাটাঘাটি বা রিচার্জ করতে হয়েছে। পোস্ট কেমন লাগল তা অবশ্যই জানাবেন।

যদি আরো কিছু জানার থাকে তবে কমেন্ট করুন। আমারটিপ্সসাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।

Leave a Reply