লকডাউনে ! উপভোগ করতে ৪ টি বিশেষ সিনেমা, যা এই সময়ে ভুলেও মিস করবেন না!!

বাংলাদেশে এখনও করোনাভাইরাস ব্যাপক হারে ছড়ায়নি, তাই অনেকেই হয়তো বুঝতে পারছেন না কি বিশাল ক্ষতি করতে পারে এই ভাইরাসটি, ভাইরাস এর ভয়াবহতা সম্পর্কে আইডিয়া পেতে হলে এমন কিছু সিনেমা দেখতে হবে যেগুলোর গল্প তৈরি হয়েছে ভাইরাস বা মহামারী কে কেন্দ্র করে।

ইতালি, স্পেন, ফ্রান্স , বা আমেরিকায় কেন লাশের মিছিল চলছে এখন ভাইরাসের প্রকোপ কতটা ভয়াবহ মানবজাতির জন্য, সেগুলো বোঝার জন্যই দেখতে হবে সিনেমা গুলো নিজের অজান্তেই কখন যে শিউরে উঠবেন টেরও পাবেন না।

এরমধ্যে একটা সিনেমায় তো ৯ বছর আগে করোনাভাইরাস এর মত একটা মহামারীর কথা পুরোপুরি বলে দিয়েছিল, চলুন তাহলে এমন চারটি সিনেমার গল্প নেওয়া যাক এক নজরে।

img id=646297]
৪। Virus 2019
তালিকার সাত নম্বরে সিনেমাটা ভারতীয়, মালায়লাম ইন্ড্রাস্টির বানানো ভাইরাস সিনেমা দেখলে বুঝতে পারবেন একটা ভাইরাস কতটা ভয়াবহ হতে পারে,
কি পরিমান আতঙ্ক ছড়াতে পারে মানুষের মনে ভারতের দক্ষিণ অংশে ছড়িয়ে পড়েছিল নিপা ভাইরাস মারা গিয়েছিল অনেক মানুষ, সেই সত্যি ঘটনা কে গল্পের আদলে তুলে আনা হয়েছে ভাইরাস সিনেমায়।

অনাকাঙ্ক্ষিত মহামারী কিভাবে একটা সাজানো শহর আর গোটা দুনিয়াকে বেসামাল করে ফেলতে পারে মানুষের জীবনকে দুর্বিসহ বানিয়ে ফেলতে পারে,
সেটা চমৎকারভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে ভাইরাস সিনেমায়।

ছোট বড় প্রতিটি চরিত্রের অভিনয় উপভোগ করার মতো গল্পের মধ্যে নেই কোন আতিশয্য পুরো প্যাকেজটা ভিশন বিশ্বস্ত ভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে তাদের দর্শকের মনে শঙ্কা আর আতঙ্কের একটি হিমশীতল চোরাস্রোত বয়ে যাওয়াটা খুবই স্বাভাবিক।


৩। Flu 2013
এবার একটা কোরিয়ান সিনেমার গল্প শোনানো যাক, একটা ভাইরাস কি করে গোটা একটা শহরকে মৃত্যুপুরীতে পরিণত করতে পারে সেটা ধারণা পেতে হলে দেখতে হবে Flu নামে এই সিনেমা টা, ভাঙ্গনের গল্প বলার পাশাপাশি সবাই মিলে মরণব্যাধি থেকে কিভাবে মুক্তি পেতে পারে সেই আশার গল্প টা শুনিয়েছে ফুলু।

কলুষিত সমাজেও যে মানুষের পাশে মায়া-মমতা আর ভালোবাসা নিয়ে দাঁড়ানো যায় ,

সেটা দেখিয়েছে ফ্লু , এই সিনেমাটা দেখতে বসলে ভাইরাস এর ভয়াবহতা ছাপিয়ে গল্পের গভীরে ঢুকে যাবেন,
চরিত্রগুলোর প্রেমে পড়ে যাবেন তাদের কারো মৃত্যুতে কখন যে নিজের অজান্তেই চোখের জল ঝরে পড়বে সেটা তো নিজে বলতে পারবেনা।

অসম্ভব বাস্তববাদী এই সিনেমাটা মুক্তি পেয়েছিল ২০১৩ সালে কিন্তু ২০২০ সালে এসেও সেটা সময়ের সঙ্গেই ভীষণ মানানসই দারুন প্রাসঙ্গিক।


২। outbreak 1995
আফ্রিকার এক বাঁদরের শরীর থেকে জন্ম নেওয়া ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে মানুষের মধ্যে, আমেরিকার ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যে আক্রান্ত হয়েছে প্রাণঘাতী সেই ভাইরাসের প্রভাবে।
সেনাবাহিনীর চিকিৎসকেরা প্রতিষেধক আবিষ্কারে, কিন্তু কুলিয়ে উঠতে পারছে না!
এদিকে মৃত্যুর ছোবল থামানো যাচ্ছে না এমন একটা গল্প নিয়ে সেই ১৯৯৫ সালে নির্মিত হয়েছিল আউৎবরেক নামের হলিউড সিনেমা টা, এখনকার অবস্থা সাথে আউৎবরেক গল্পটাকে মেলান মিল খুঁজে পাচ্ছেন?

করোনাভাইরাস মানুষ মরছে দেদারছে বিজ্ঞানীর হন্যে হয়ে উপায় খুঁজছেন, কিন্তু মিলছেনা রাস্তা ২৫ বছর আগে মুক্তি পাওয়া এই সিনেমায়,
একটা বিখ্যাত ডায়লগ ছিল যেটা আজকের জন্য সবচেয়ে বেশি মানানসই সেখানে বলা হয়েছিল মানবজাতির জন্য এলিয়েন বা যুদ্ধ নয় সবচেয়ে বড় শত্রুর নাম হচ্ছে ভাইরাস। ২০২০ পুরো পৃথিবী সেটা বুঝতে পারছে খুব ভালোভাবে।


১। Contagion 2011
৯ বছর আগে মুক্তি পেয়েছিল একটি সিনেমা খুব একটা সারা শব্দ ছিল না কিন্তু হুট করে করোনাভাইরাসের দিনগুলিতে সিনেমাটার নাম ফিরতে শুরু করল, লোকের মুখে মুখে, মানুষ খুঁজে খুঁজে দেখা শুরু করলো সেটা বক্স অফিসে এক সপ্তাহের মধ্যে সবার উপরে উঠে গেল। গুগলের সার্চ বারে উঠে এলো শীর্ষে ঘটনাটা কি? কেন সবার এত আগ্রহ Contagion নামের সিনেমাটি নিয়ে???

এই সিনেমায় নাকি ৯ বছর আগে দেখানো হয়েছিলভয়াবহ করোনাভাইরাসের প্রকোপের সম্ভাবনা,
আসলে কি তাই কথাটা পুরোপুরি সত্যি নয় আবার মিথ্যাও নয়। অচেনা এক সংক্রামক রোগ ছড়িয়ে পড়ছে পৃথিবীতে একজনের শরীর থেকে অন্য আরেকজনের শরীরে ভাইরাস ঢুকে পড়ছে, গণহারে মারা যাচ্ছে মানুষ।

বিজ্ঞানীরা প্রাণপণ চেষ্টা চেষ্টা চালাচ্ছে সেই ভাইরাসের প্রতিষেধক আবিষ্কার করতে এই গল্পটা চমৎকারভাবে উপস্থাপন করা হয়েছিল Contagion সিনেমায়, মজার ব্যাপার হচ্ছে সিনেমায় ভাইরাস টার উৎপত্তি হয়েছিল চীনের হংকং।
আর বাস্তবেও করোনাভাইরাসও কিন্তু চীনের উহান থেকেই জন্ম নিয়ে পৃথিবীতে ছড়িয়ে পড়ছে, ছবিতে ভাইরাস ছড়ায় হাচি- কাশির মাধ্যমে করোনাভাইরাসও ছড়াচ্ছে সেই একই ভাবে।
এবং ছড়াচ্ছে ও খুবই সহজে ছড়িয়ে যাচ্ছে বিশ্বজুড়ে তাহলে এই ছবিটি ভবিষ্যৎবাণী করেছিল করোনা করোনাভাইরাসের?

ঠিক এই প্রশ্নটাই এখন সবার মুখে মুখে। নগ ডাউন এর দিনগুলিতে দেখে নিতে পারেন এই ৪ টি সিনেমা করোনার ভয়াল আগ্রাসন যাদের মনে দোলা দিতে পারছে না, সিনেমা গুলি দেখলে হয়তো তারা কিছুটা বুঝতে পারবে কি ভয়াবহ বিপদের সম্মুখে দাঁড়িয়ে আছে মানব সভ্যতা।

বিঃদ্রঃ চাইলেই এই পোস্টে থাকা প্রত্যেকটি সিনেমার ডাউনলোড লিংক আপনাদের সঙ্গে শেয়ার করতে পারতাম, কিন্তু আমারটিপ্সরুলস অনুযায়ী কোন ডাউনলোডের লিংকের মধ্যে যদি প্রচুর পরিমাণ বিজ্ঞাপন দেখানো হয়, সে ক্ষেত্রে ওই ডাউনলোড লিংক শেয়ার করা পুরোপুরি নিষেধ।

তাই আমি সত্যি দুঃখিত যে ডাউনলোড লিংক গুলা শেয়ার করতে পারলাম না, আপনারা চাইলে প্রত্যেকটি সিনেমার নাম গুগলে সার্চ করে নিজে থেকে ডাউনলোড করে নিতে পারেন। আর অনুরোধ রইল পোস্ট টি শেয়ার করে ছড়িয়ে দেয়ার জন্য।


ital vision 1 পাওয়া যাচ্ছে মাত্র ৫,৭০০ 😯 বাসাতে বসেই , অর্ডার করতে কল করুন ০১৯০৩৩৯৪১৯৮

অনলাইনে যেকোন ধরনের ডলার-কেনা-বেচা করা যাবে এই ফেসবুক পেজ থেকে।

আজকের মতো এই পর্যন্তই ছিল! আল্লাহ আমাদের সবাইকে হেফাজত করুন এই মহামারীর প্রকোপ থেকে, সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন।
বেঁচে থাকলে নিশ্চয়ই দেখা হবে পরবর্তী কোন পোস্টের মাধ্যমে সবার সাথে সে পর্যন্ত ভাল থাকুন সুস্থ থাকুন, আর প্লিজ প্লিজ বাসায় থাকুন।

Leave a Reply