Realme 6 | বাংলা রিভিউ | এ বছরের মিড রেঞ্জ কিং!

হেই গাইস আমি রাতুল আছি আপনাদের সঙ্গে আর আমি আমার লাস্ট পোস্টে বলেছি! রিয়েলমি কিন্তু সম্প্রতি বাংলাদেশের মার্কেটে একের পর এক স্মার্টফোন লঞ্চ করেই চলেছে।

আর তারা C11 এর পাশাপাশি বাংলাদেশ আরেকটি ফোন লঞ্চ করেছে সেটি হচ্ছে Realme 6 যদিও স্মার্টফোনটি ইন্ডিয়ার মার্কেটে বেশ কয়েকদিন আগেই লাঞ্চ হয়ে গিয়েছে।
তবে ভালো ব্যাপার হলো এখন আমরা অফিশিয়ালি বেশি দ্রুত পেয়ে যাচ্ছি। চলুন আমরা আজকের পোস্টে জানবো Realme 6 এর ভালো এবং খারাপ দিক গুলো! পাশাপাশি জানাবো এই ফোনটি ২২,৯৯০ টাকা বাজেটে আপনার জন্য কতটা পারফেক্ট হতে পারে।


design!
সেম ওল্ড রিয়েলমি ডিজাইন as you can see যেটা নিয়ে আমি প্রিভিয়াসলি বেশ কয়েকবার বলেছি! আর বলতে চাচ্ছি না যদিও এটা অনেকটাই সাবজেক্টিভ আপনার কাছে যদি ভালো তাহলে আপনার জন্যই। তবে রিয়ার পাঠে আমরা নতুন একটি পেটান দেখতে পাচ্ছি! যেটা প্রায় রিয়েলমি তাদের গুলোতে করে থাকে এবং এটিতে রয়েছে সানরাইজ প্যাটার্ন বটম সাইট থেকে বেশ একটা ইফেক্ট দেখা যায়।

বিল্ড কোয়ালিটির কথা যদি বলি ফোনটি পলিকার্বনেট মিড এবং এর যে গ্লাসি ফিনিশ রেয়ার পার্ট টি দেখতে পারছেন একটিতে ওভারটাইম অনেক বেশি দাগ পড়তে পারে!
তাই আমার সাজেস্ট থাকবে বক্স এ যে ব্যাক কভার টি পাবেন ওটা ইউজ করার জন্য, এবং এতে যে পলিকার্বনেট বাম্পার সেটির রাইট সাইডে পেয়ে যাচ্ছেন ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার যার কারণে রেয়ার পার্ট দেখতে বেশ ক্লিন লাগে! এবং ফিঙ্গারপ্রিন্ট এর স্পিড এর কথা যদি বলি একদম রকেট ফাস্ট ছিল এটা নিয়ে কোনো কমপ্লেন থাকছে না।

আর অপজিট সাইডে আপনারা পেয়ে যাচ্ছেন ভলিউম রকার তার ঠিক উপরে রয়েছে ডুয়েল ন্যানো সিম কার্ড স্লট এবং এখানে আপনারা আরো পেয়ে যাচ্ছেন ডেডিকেটেড মাইক্রোএসডি কার্ড স্লট।
বটম পর্শন এ এখনো এখনো ধরে রাখা হয়েছে 3.5 এমএম অডিও জ্যাক পাচ্ছেন প্রাইমারি মাইক্রোফোন এর পাশাপাশি একটি টাইপ-সি পোর্ট ৩০ ওয়ার্ড পর্যন্ত ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করবে এবং তার সাথে রয়েছে বটম ফায়ারিং স্পিকার।


ডিসপ্লে তে যদি আসি এখানে আমরা পেয়ে যাচ্ছি একটি ৬.৫ ইঞ্চির ফুল এইচডি প্লাস রেজুলেশনের ডিসপ্লে জেটিতে ডেফিনেটলি রয়েছে পান্স হল কাটাউট! এবং পাঞ্চ হোল কাটাউটের পাশে যেটি আমি সবসময় নোটিশ করি সেটি হল ডার্ক সার্কেল।

এই প্যানেল 90Hz রিফ্রেশ রেটের একটি প্যানেল তাই এতে যে টাচ রেসপন্স সেটা সাধারণের চেয়ে একটু বেটার হবে! স্পেশালি আপনি যখন টাচ করবেন তখন অনেক বেশি স্মুথ লাগবে ইউ আই নেভিগেশন বা ওভারঅল ফোনের যে ট্রানজেকশন গুলো।
তাছাড়া রিয়েলমির প্যান্ডেল গুলো আমার কাছে বরাবর বেশ ভালো লাগে স্পেশালি ভিউয়িং অ্যাঙ্গেল ওয়াইট হয়ে থাকে এবং ব্রাইটনেস ও এতে আপনারা পাচ্ছেন ৪০০ & ১৮ তাই আউট ডোর ভিজিবিলিটি নিয়েও কোনো ইস্যু থাকছে না।
আর হ্যাঁ এটিতে প্রটেকশন হিসেবে পারছেন গরিলা গ্লাস। তাই আপনারা যারা মিডিয়া কনজিউম করে থাকেন অনেক বেশি আই থিং তাদের জন্য এটা বেশ ভালো একটি ডিসপ্লে।


Realme 6 কে পাওয়ার করছে MediaTek helio G90t প্রসেসর এবং এটি কিন্তু যখন মার্কেটে আসে ফাস্ট টাইম নোট নাইন প্রো তে তখন কিন্তু পারফরম্যান্স সেকশনে এটি বেশ তাক লাগিয়ে দিয়েছিল! কারণ mid-range মার্কেটে যে স্নাপড্রাগণ পপুলার চিপসেট অর্থাৎ স্নাপড্রাগণ ৭১২জী বা ৭৩০জী সেগুলো থেকেও কিন্তু পারফরম্যান্স এ অনেকটাই এগিয়ে এই G90T যদিও এটির একটু হিটিং ইস্যু আছে!


তাই mid-range মার্কেটে আমি বলব Realme 6 এর পারফরমেন্সে কোনরকম কম্প্রোমাইজ করছে না! এতে আপনারা যে কোন ধরনের হেভি গেম একদম চমৎকারভাবে smooth le খেলতে পারবেন! আমি পাবজি খেলেছি একদম বাটার স্মুথ ভাবে! তাছাড়া প্রত্যেকটা গেম চলেছে একদম বাটার স্মুথ।
তাই এই বাজেটে আমি এই ফোনটি গেমারদের জন্য আগেই সাজেস্ট করে দিলাম! এটার যে ভেরিয়েন্ট আপনারা পাচ্ছেন বাংলাদেশের জন্য সেটা হচ্ছে ৮ জিবি রেম এবং ১২৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজঃ ভেরিয়েন্ট।
আর এতে আপনারা অ্যান্ড্রয়েড ১০ পাচ্ছেন out-of-the-box!


ফোনটি রেয়ারে আপনারা পাচ্ছেন ট্রিপিক্যাল রিয়েলমি ক্যামেরা ডিজাইন যেখানে রয়েছে চারটি ক্যামেরা প্রাইমারি ক্যামেরা টা ৬৪ মেগাপিক্সেল থাকছে ৮ মেগাপিক্সেল একটি আল্ট্রা ওয়াইড! ২ মেগা পিক্সেলের ম্যাক্রো এবং ২ মেগাপিক্সেল এর ডেপ সেন্সর! যার দুটি সেন্সরি আমার কাছে একটু কম ইউজফুল মনে হয়েছে।
এর পরিবর্তে আমরা যদি একটি ডেডিকেটেড টেলিফটো লেন্স পেতাম তাহলে সেটি আরও বেশি ইউজফুল হতো বলে আমার মনে হয়।
এনিওয়ে এটির যে প্রাইমারি ৬৪ মেগাপিক্সেলের সেন্সরটি রয়েছে এটির রেজাল্ট পার্ফেক্ট ছিল কোনো কমপ্লেন থাকছে না।

এটির ফন্টে আপনারা পাচ্ছেন ১৬ মেগাপিক্সেল 2.0 এর একটি সেলফি ক্যামেরা এড রেজাল্ট ও আমার কাছে খুবই ভালো লেগেছে।


আচ্ছা ফোনটিতে আপনারা পাচ্ছেন ৪৩০০ মিলি এম্পিয়ার এর ব্যাটারী আর এর বক্সে থাকা চার্জারটি দিয়ে মাত্র ৫৫ মিনিটে ফুল চার্জ করে নিতে পারবেন! তবে আমার এক্সপিরিয়েন্স এ অলমোস্ট এক ঘন্টা ৫ মিনিট লেগে যাচ্ছিল।

এখন আপনাদের মনের মধ্যে একটি প্রশ্নই ঘুরপাক খাচ্ছে যে ২৩ হাজার টাকায় এই ফোনটি আপনি কিনবেন কিনা? উত্তরটা আমি নিজেই দিচ্ছি হ্যাঁ আমি বলব ডেফিনেটলি এই ফোনটি আপনার জন্য পারফেক্ট! বিকজ আপনারা যদি আনঅফিসিয়াল মার্কেট ও দেখেন সে ক্ষেত্রে আনঅফিসিয়াল মার্কেটে ও কিন্তু ফোনটি ২৩ হাজার টাকার বেশিতে বিক্রি হচ্ছিল।
তাই সেই হিসাবে আমি বলবো এটার দাম ঠিকঠাকই আছে স্পেশালি এটার যে পারফরম্যান্স ডিসপ্লে ক্যামেরা আমার কাছে মনে হয়েছে ডেফিনেটলি এই বাজেটে এটা পারফেক্ট।

Realme 6 ফোনটি আমারটিপ্সর ইউজাররা পাচ্ছেন ৭০০ টাকা ডিস্কাউন্টে তার সঙ্গে ওয়ালটন 256 GB মেমোরি কার্ড পাবেন মাত্র ৯৭০ টাকায়! ঘরে বসেই অর্ডার করার জন্য ০১৭৭১৭৬৮১১৪
যেকোনো ডলার-কেনা-বেচা করুন একদম নিরাপদে, এই ফেসবুক পেজ থেকে!

তো ফ্রেন্ড এই ছিল Realme 6 নিয়ে বিস্তারিত পোস্টটি কেমন লাগলো অবশ্যই কমেন্ট সেকশনে জানাবেন! ভালো লাগলে লাইক এন্ড শেয়ার করবেন।
আজকের মতো এই পর্যন্তই ভালো থাকুন!

Leave a Reply