সত্য ঘটনা অবলম্বনে যুদ্ধের ভয়াবহতা নিয়ে এমন অ্যানিম মুভি যা দেখে আপনি পাষাণ মনের হলেও কাঁদতে বাধ্য।

এই মুভি দেখার আগে মনে মনে ভাবতেছিলাম এনিমেটেড মুভি, কোন মানুষ অভিনয় করে নাই!! কিসের আর ইমোশোনাল হবে!

কিন্তু মুভিটা শেষ করার পর নিজের মনকে হাজার শক্ত করার পরও পারলাম না। দম বন্ধ হয়ে আসতেছিল। শেষমেষ চোখের পানি ফেলেই শরীরটা হালকা হলো। 😭

দুই দেশের মধ্যে যুদ্ধ কখনোই কোনো কিছুর সমাধান হতে পারে না। এখানে শুধু একদলের জয় আরেক দলের পরাজয় হয়। কিন্তু মাঝে কতো জন যে মারা যায় তার খবর কেউ রাখেনা।

মুভি: Grave of the fireflies(1988)
জনরা: যুদ্ধ, ড্রামা, এ্যানিম
দেশ: জাপান
পারসোনাল রেটিং: ১০/১০

আপনি যদি বাস্তব জীবনে যতই পাষান মনের হয়ে থাকেন, কঠোর মনের হয়ে থাকেন না কেনো তারপরও এই এনিমেশন মুভি যদি একবার দেখেন আপনি কাঁদতে বাধ্য।

এটি ১৯৪৫ সালের ২য় বিশ্বযুদ্ধ ঘটনা অবলম্বে নির্মিত একটা এ্যানিম।

তখনকার যুদ্ধে কিছু সময় পর পর বিপক্ষ দেশের দ্বারা এয়ার স্ট্রাইক করা হয়। ফলে প্রচুর মানুষের ঘরবাড়ি পুড়ে যায়, লাখ লাখ মানুষ মারা যায়। আর এরকম এক বোমা হামলায় মারা গিয়েছিল Seita, Setsuko এর মা। তাদের বাবা ছিল নাবিক। তাই সে তার বাচ্চাদের রেখেই যুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছিল।

Seita, Setsuko বসবাসের জন্য এবং একমুঠো খাওয়ার জন্য তার আন্টির বাসায় থাকতো কিন্তু সেই আন্টি কথায় কথায় তাদের খারাপ কথা বলত বলে একসময় তারা তার বাড়ি ছেড়ে চলে যায়।

বোন Setsuko কে প্রচন্ড ভালবাসতো Seita। ছোট বোনের যখনই খিদা লাগতো খাবার খোঁজার জন্য সে সাথে সাথে বের হয়ে যেত। কখনো খাবার পেতো, কখনও পেতো না।

ফলে ঠিকমতো খাবার না পাওয়ায় তার ছোটবোন ধীরে ধীরে অসুস্থ হয়ে যাচ্ছিল।

মানুষ কতটা ক্ষুদার্থ হলে মাটি দিয়ে খাবার বানিয়ে, সেটাকে ক্যান্ডি মনে করে খেতে পারে? এই দৃশ্য এখনো আমার মনের মধ্যে গেঁথে আছে।

এই মুভি দেখলে ভাইবোন এর সম্পর্ক আরো মজবুত হবে। বিশেষ করে যেসব ভাই বোনদের মাঝে বেশি বেশি মারামারি লাগে তাদের একসাথে নিয়ে এই মুভিটি দেখতে পারেন।

এই মুভিতে ভাইবোন এর কিছু মুহুর্ত গুলো বেশ ভালো লাগবে। একসাথে ক্যান্ডি খাওয়া, সমুদ্রে খেলা করা, একসাথে খাওয়াদাওয়া করা, জোনাকিপোকা দেখতে যাওয়া ইত্যাদি।

এখন মুভিটার শেষ পরিণতি কি হয়? তারা কি যুদ্ধরত অবস্থায় টিকে থাকতে পারে? নাকি মারা যায়? নাকি দুজনের মধ্যে একজন মারা যায়? একজন মারা গেলে কে মারা যায়? আর কে বেচে থাকে? তার জন্য আপনাকে সম্পূর্ণ মুভিটি দেখতে হবে।

মুভিটি বাংলা সাবটাইটেল দিয়ে ডাউনলোড করে দেখতে চাইলে নিচের লিংকে ক্লিক করুন:

Size: 778 MB & 240 MB

CLICK HERE

স্ক্রিনশর্ট:

মুভিটা শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত দেখে একাধারে শুধু কেঁদেছিলাম। সবার দেখা উচিৎ মুভিটা |

Leave a Reply