Realme C2s বাংলা রিভিউ | ৪,০০০ টাকায় কিভাবে সম্ভব?

হেই গাইস কি অবস্থা সবার, আশা করছি আপনি অনেক ভালো আছেন এবং সুস্থ আছেন কারন আমারটিপ্সসব সময় ভালোর দলেই থাকেন।
this is realme C2s আমার দেখা সবথেকে কম প্রাইস এ ভালো স্পিসিফিকেশন অফার করছে একমাত্র এই ফোনটি MediaTek helio p22 প্রসেসর, ডুয়েল ক্যামেরা, ৪ হাজার মিলিয়াম্পেরে দুর্দান্ত ব্যাটারি থাকছে ফোনটির মধ্যে!

এছাড়াও চমক থাকছে ফোনটির ডিজাইন ডিসপ্লে এবং বিল্ড কোয়ালিটি তে। ফোনটির সকল চমকপ্রদ বিষয় নিয়ে আলোচনা করবো আজকের এই পোস্টের মাধ্যমে। সেই সাথে বলে দিব ফোনটি বাংলাদেশ থেকে কিভাবে কিনতে পারবেন সবকিছু!


তো প্রথমে কথা বলি রিয়েলমি সি টু এস এর ডিজাইন এবং বিল্ড কোয়ালিটি এর সম্পর্কে, ফোনটি ডিজাইন এক কথায় অসাধারণ,
ফ্রন্ট সাইড এর ডিসপ্লে তে থাকছে ওয়াটার ড্রপ নচ এবং ফোনটির লুকের দিক থেকে বলতে গেলে বেশ আকর্ষণীয় মনে হয় আমার কাছে!

ব্যাক সাইডে থাকছে প্লাস্টিক বা পলিকার্বনেট যাতে থাকছে ডায়মন্ডকার্ড সেপ সেই সাথে সাইডগুলো থাকছে কারফ করা, এককথায় ডিজাইনের দিক থেকে এই বাজেটের স্মার্টফোনে একশ ই -একশ দিতে হয়। ১৬৪ গ্রাম ওজনের এই ফোনটিতে দুইটি সিম কার্ড এর পাশাপাশি একটি মাইক্রো এইচডি কার্ড ব্যবহার করা যাবে, লো বাজেটের ফোনগুলোর জন্য এটি একটি প্লাস পয়েন্ট বলবো।


তো এখন কথা বলি ফোনটি ডিসপ্লে সম্পর্কে ফোনটিতে থাকছে ৬.১ ইঞ্চির একটি আইপিএস এলসিডি ডিসপ্লে যার রেজুলেশন এইচডি প্লাস অর্থাৎ 720×1560 পিক্সেল! আমার মতে এই প্রাইজ রেঞ্জের মধ্যে বেস্ট ডিসপ্লে অফার করছে রিয়েলমি সি টু এস!

এবারে কথা বলি ফোনটির পারফরম্যান্স আই মিন চিপসেটের ব্যাপারে, ফোনটি রান করবে কালার ওএস ৬.১ এ যার পাশাপাশি থাকছে অ্যান্ড্রয়েড ৯ পাই, চিপসেট হিসেবে থাকছে MediaTek helio p22 ১২ ন্যানোমিটার আর্কিটেকচার এর তৈরি একটি শক্তিশালী প্রসেসর, আর সেইসাথে জিপিউ হিসেবে থাকছে PowerVR
GE8320 আর পাশাপাশি সিপিইউ হিসেবে পাচ্ছেন Octa-core 2.0 GHz Cortex-A53
তো আমার জানামতে এর আগে এত কম দামের স্মার্টফোনের মধ্যে এরকম শক্তিশালী চিপসেট ইউজ করে নি কেউ বা ব্যবহার করতে পারেনি।

নরমাল গেম থেকে শুরু করে পাবজির মতো হেব্বি গেমগুলো এতে প্লে করতে পারবেন, যা রীতিমতো অবিশ্বাস্য, আর ফোনটি পাওয়া যাবে ৩ জিবি র্যাম এবং ৩২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজে ভেরিয়েন্ট এ,


এবারে কথা বলি এই ফোনটির আরো একটি হাইলাইটেড ফিচারস এর ক্যামেরা নিয়ে realme c2s এর রিয়ার প্যানেলে থাকছে ডুয়েল ক্যামেরা সেটআপ, যার প্রথমটি ১৩ মেগা পিক্সেলের প্রাইমারি ক্যামেরা যার অ্যাপাচার হচ্ছে গিয়ে ২.২ আর সেকেন্ডারিতে থাকছে ২ মেগা পিক্সেলের একটি ডিপ সেন্সর, যার অ্যাপাচার হচ্ছে ২.৪, আর রিয়ার ক্যামেরা দিয়ে সর্বোচ্চ ভিডিও রেকর্ড করা যাবে 1080p ৩০ এফপিএস এ!

ফোনটির ফ্রন্ট ক্যামেরা হিসেবে থাকছে ৫ মেগা পিক্সেলের একটি ক্যামেরা যেটির অ্যাপাচার হচ্ছে ২.০ আর সেলফি ক্যামেরা দিয়ে সর্বোচ্চ ভিডিও রেকর্ড করা যাবে 720p 30FPS এ!

ফোনটির মধ্যে থাকছে ৪ হাজার মিলিয়াম্পেরে একটি অসাধারণ ব্যাটারি যা থেকে নরমাল ইউজ এ টানা দুইদিন এবং হেব্বি ইউজ এ ১ দিনের মতো কাটিয়ে দিতে পারবেন একদম অনায়াসেই। তবে ফোনটিতে ফিজিক্যাল ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর থাকছে না।

অন্যান্য ফিচারস এর সাথে থাকছে ৩.৫ এমএম হেডফোন জ্যাক, ব্লুটুথ ৪.২ , জিপিএস, এফএম রেডিও, মাইক্রো ইউএসবি ২.০, এবং ওটিজি ক্যাবলের সাপোর্ট!

তো ভিউয়ার্স, এই ছিল রিয়েলমি সি টু এস এর ছোটখাটো একটি রিভিউ, এবার জানিয়ে দিই ফোনটির প্রাইস, এই এত সব কিছু পাচ্ছেন মাত্র ৪,০০০ টাকায় ভাবতেই একটু অবাক লাগে!

অনেকে আবার আমার মুখের কথা বিশ্বাস করতে চাইবেন না, তাই সেই সকল মানুষের জন্য ১০ বালতি সমবেদনা। আর https://www.mobiledokan.co/product/realme-c2s/ এই লিংকে ক্লিক করলে ভালোমতো সিওর হয়ে নিতে পারবেন ধন্যবাদ!

তো এই ছিল আজকের মত, পোস্টটি কেমন লাগলো তা লিখে ফেলতে পারেন কমেন্ট বক্সে,

Realme C2s ফোনটি ঘরে বসেই ৫০০ টাকা ডিস্কাউন্টে অর্ডার করার জন্য ফোন করুন 01865733240 অথবা এই ফেসবুক পেজে মেসেজ দিন
ডিসকাউন্ট পাওয়ার জন্য এই কুপন কোডটি ইউজ করুন Trickbd12

আর আপনি যদি এমনই আনকমন এবং ইন্টারেস্টিং পোস্ট প্রতিনিয়ত দেখতে চান তাহলে অবশ্যই একটি লাইক দিয়ে সাপোর্ট করবেন!
আর পোস্টটি শেয়ার করে সবার কাছে ছড়িয়ে দিন।
সবাই ভাল থাকুন সুস্থ থাকুন এবং নিজের ঘরেই থাকুন ধন্যবাদ।

Leave a Reply