Realme C11 Vs Symphony Z28 ৯ হাজার টাকায় যে ফোন নেওয়া ঠিক হবে? থাকছে গিভওয়ে মিস করবেন না!

৮ হাজার ৯৯০ টাকা এই টাকার মধ্যে বর্তমানে মার্কেটে পাওয়া যাচ্ছে দুইটি স্মার্টফোন! আর এই দুইটি স্মার্টফোনের নাম হল Realme C11 & Symphony z28 আজকের পোস্টে আমরা সম্পূর্ণ ভাবে জানবো এই দুইটা ফোনের মধ্যে আপনি কোন ফোনটি কিনবেন।
আর সাথে থাকছে Realme c2 ডিভাইস গিভওয়ে ফাস্ট ৫ আমারটিপ্সইউজার দের জন্য, মানে যারা সর্বপ্রথম ফোন দিবেন এবং অর্ডার কনফার্ম করে ফেলবেন তাদের জন্য।
যাই হোক চলুন শুরু করি।
যদি আপনার বাজেট ১,০০০০ টাকার নিচে হয়ে থাকে তাহলে আপনি কোন ডিভাইস টি বেছে নেবেন সেটাই জানানোর চেষ্টা করব আজকের এই পোস্টে।

Realme C11 & Symphony Z28 এই দুইটা স্মার্টফোনই আমাদের কে ৯,০০০ টাকা বাজেটের মধ্যে বেশ ভাল জিনিস অফার করছে !
তবে কিছু কিছু ক্ষেত্রে রিয়েলমি এগিয়ে থাকবে আবার কিছু কিছু ক্ষেত্রে সিম্ফোনি এগিয়ে থাকবে। তো চলুন শুরুতেই জানা যাক এই দুইটা স্মার্টফোনের বিল্ড কোয়ালিটি এবং ডিজাইন সম্পর্কে।

দুইটা স্মার্টফোনেই আসছে প্লাস্টিক বিল্ড এর সাথে আসে এবং এদের ব্যাক চ্যানেলটি ইউজ করা হয়েছে প্লাস্টিক তবে Realme C11 এর ব্যাক প্যানেল কিছুটা নতুন ডিজাইনের সাথে নিয়ে এসেছে রিয়েলমি।
আর এখানে ম্যাট ফিনিশ এ ডিজাইন টা দেয়া হয়েছে অন্যদিকে Symphony Z28 ফোনটির মধ্যে থাকছে অনেকটা গ্লোসি টাইপের ব্যাক প্যানেল এবং এই ব্যাক প্যানেল টি দেখতে অনেকটা অনেকটা গ্লাসের মতই লাগবে। তবে হাতে নিলেই বুঝতে পারবেন এটি সম্পূর্ণ প্লাস্টিক ,তো এই দুইটি স্মার্টফোনের মধ্যে কোন ফোনটির ডিজাইন আপনার চোখে সেরা মনে হয়েছে তা কমেন্ট বক্সে লিখে ফেলুন।

এছাড়া ওই ফোনগুলোর ফ্রন্ট সাইড এ থাকছে ৬.৫ ইন্স এইচডি প্লাস ডিসপ্লে যেটা কিনা একটি আইপিএস প্যানেল। তো ডিসপ্লে পারফরম্যান্সের ক্ষেত্রে দুইটি ফনেই আমার কাছে একদম সেম মনে হয়েছে,
আর প্রোটেকশন হিসেবে এই দুটি ফোনেই কোন ধরনের গরিলা গ্লাস ব্যবহার করা হয়নি তাই অবশ্যইঅনেকটা ধীরে সুস্থেই ইউজ করতে হবে আপনাদের এই ফোন দুটি‌।

এছাড়াও অ্যান্ড্রয়েড ১০ এর পাশাপাশি রিয়েল মি ইউ আই ১.০ থাকছে রিয়েলমি সি ইলেভেনে এবং আপনারা আগামী দেড় বছর এর সকল প্রকার অ্যান্ড্রয়েড সিকিউরিটি আপডেট পেয়ে যাবেন।
আর আপডেটের ক্ষেত্রে রিয়েলমি ফোনটি সিম্ফোনি থেকে অনেকটা বেটার হবে কারণ সিম্ফোনি ফোন গুলোতে তেমন একটা আপডেট পাওয়া যায় না।
তাই অবশ্যই অবশ্যই সফটওয়্যার এর ক্ষেত্রে রিয়েলমি ফোনটি এগিয়ে থাকবে।
এছাড়াও থাকছে 2 GB RAM এবং 32GB ইন্টার্নাল থাকছে রিয়েলমির ফোনটির মধ্যে।
আর অন্যদিকে Z28 ফোনটির মধ্যে থাকছে ৩ জিবি র্যাম এর পাশাপাশি ৩২ জিবি ইন্টার্নাল স্তরেজ এতক্ষণে আপনারা নিশ্চয়ই বুঝতে পেরে গিয়েছেন যে বেশ ভালই একটা মাল্টিটাস্কিং এর অভিজ্ঞতা পাবেন Symphony Z28 ফোনটির মধ্যে থেকে।

অনেকগুলো অ্যাপ ব্যাকগ্রাউন্ডে রান করার পরেও C11 ফোনটি থেকে সিম্ফোনি ফোনটি অনেকটাই ভালো পারফর্ম করতে পারবে।
রিয়েলমি ফোনের মধ্যে আপনারা মাল্টিটাস্কিং করার সময় কিছুটা লেগ দেখতে পাবেন তবে আমি অবশ্যই আপনাদের সাজেস্ট করবো যে প্রত্যেকটি অ্যাপের লাইট ভার্সন ইউজ করার জন্য।

এই দুইটি স্মার্টফোনের মধ্যেই থাকছে ডেডিকেটেড মাইক্রো এইচডি কার্ড ব্যবহার করার সুযোগ যেটা সর্বোচ্চ ১২৮ জিবি পর্যন্ত।

আর পারফরম্যান্সের জন্য Realme C11 এ থাকছে মিডিয়াটেক জি থার্টি ফাইভ চিপসেট আর অন্যদিকে Symphony Z28 এ থাকছে মিডিয়াটেক হেলিও a২৫ এই প্রসেসরটি যদিও একটু পুরনো তারপরও পারফরমেন্স ভাল পাবেন C11 এর থেকে।
আর গেমিং এর জন্য এই দুইটি ফোন আমি অবশ্যই সাজেস্ট করছি না কারণ গেমিং এর ক্ষেত্রে তেমন কোনো হাই গ্রাফিক্সের গেম গুলো এই ফোনটির মধ্যে খেলা যাবে না।
যদি কিনা আপনারি পাবজি ট্রাই করতে পারেন কিন্তু তারপরও সর্বোচ্চ টুয়েন্টি ফাইভ এফপিএস এর আউটপুট পাওয়া যাবে।
তবে বাজেট অনুযায়ী এর থেকে ভালো পারফর্মেন্স আশা করাটাও বোকামি।


ক্যামেরার ক্ষেত্রে Realme C11 ফোন এর মধ্যে থাকছে ১৩ মেগাপিক্সেল ক্লাস ২ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরাআর সেই সঙ্গে সেলফি ক্যামেরা হিসেবে থাকছে ৫ মেগাপিক্সেল এর একটি ক্যামেরা, অন্যদিকে Symphony Z28 ফোনটির মধ্যে থাকছে থার্টিন মেগাপিক্সেলের প্রাইমারি ক্যামেরা ফাইভ মেগাপিক্সেল এর আল্ট্রা ওয়াইড এবং টু মেগাপিক্সেলের ডেপ সেন্সর এছাড়াও ফোনটির ফ্রন্ট এ ইউজ করা হয়েছে ৮ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা।
তো বন্ধুরা সিম্ফোনি z28 ফোনটি আমাদেরকে একটা এক্সট্রা লেন্স প্রোভাইড করছে আর সেটা হচ্ছে আল্ট্রা ওয়াইড লেন্স, তবে আমি যদি অনেস্টলি বলি Symphony Z28 এর চেয়ে C11 এর ক্যামেরা টি কিছুটা বেটার হতে পারেন কারণ, রিয়েলমি বছরের-পর-বছর সফটওয়্যার আপডেট দিয়ে তাদের ক্যামেরা কে আরো বেশি ইন প্রুফ করবে।
তবে এর মানে একদম এটা নয় যে সিম্ফোনি ফোনটা একদম বাজে পারফরম্যান্স করবে এখন মোটামুটি সমান পারফরম্যান্স পাবেন তবে কিছুই মাস পর হয়তবা রিয়েলমি এগিয়ে থাকবে।


Symphony Z28 এর মধ্যে 4000 মিলিমিটার এর ব্যাটারির পাশাপাশি নরমাল চার্জিং স্পিড ইউজ করা হয়েছে অন্যদিকে রিয়েলমি সি ইলেভেন ফোনটির মধ্যে থাকছে 5000 মিলি এম্পিয়ারের ম্যাসিভ ব্যাটারি এর সাথে দশ ওয়াট এর চার্জিং স্পিড,
তাই এখানে আমাকে কোন ভাবে বলতে হবে না যে রিয়েলমি ফোনটি সিম্ফোনির থেকে ভালো ব্যাটারি ব্যাকআপ দিতে সক্ষম হবে।


এছাড়াও সিম্ফোনি স্মার্টফোন এর মধ্যে ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার থাকলেও রিয়েলমি এ তে পাবেন না। এটা আমার মতো অনেকের মন খারাপ করে দিতে সক্ষম।
তো পোষ্টটির নিচে চলে যান এবং কমেন্ট সেকশনে আমাকে জানান এই দুটি ফোনের মধ্যে আপনি কোন ফোনটি সিলেট করলেন।

যদি খুব একটা ভালো সফটওয়্যার আপডেট এবং ভালো ব্যাটারি ব্যাকআপ এন্ড ক্যামেরা পারফরম্যান্স পেতে চান তাহলে রিয়েলমির ফোন টি আপনার জন্য বেস্ট হবে।

আদারোয়াইজ ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার কটি আল্ট্রা ওয়াইড লেন্স এবং মাল্টিটাস্কিং এর জন্য সিম্ফোনি স্মার্টফোন কিছুটা বেটার হবে।
ব্র্যান্ড ভ্যালু বলে একটা কথা রয়েছে আর সেখানে সিম্ফোনি থেকে এগিয়ে থাকবে রিয়েলমি, এছাড়াও একটা বাজেট ক্যাটাগরি ফোনের মধ্যে যেসব জিনিস গুলো থাকার প্রয়োজন সেই সব ফিচারই রয়েছে রিয়েলমি এবং সিম্ফনির এই দুটি স্মার্টফোনের মধ্যে।
যেমন ৩.৫ মিলিমিটার হেডফোন জ্যাক ওটিজি সাপোর্ট এফএম রেডিও ইত্যাদি ইত্যাদি!
আপনি কি এই পোস্টটি লাইক বাটনে ক্লিক করেছেন যদি না করে থাকেন তাহলে অবশ্যই লাইক করে দিবেন।

তো এখন থাকছে গিভওয়ে, মোহন টেলিকম এর পক্ষ থেকে প্রথম ৫ জন পাবেন Realme c2 ডিভাইস একদম বিনামূল্যে , শুধুমাত্র আমারটিপ্সইউজাররা শর্ত প্রযোজ্য।
অর্ডার করার জন্য ফোন করুন। 01865733240

পোস্টটি ভাল লাগলে শেয়ার করে বন্ধুদের মধ্যে ছড়িয়ে দেন আজকের মত এ পর্যন্তই আল্লাহ হাফেজ!

Leave a Reply