Realme C17 তে কি কি থাকছে? চলুন দেখে নেওয়া যাক।

অনেক প্রতীক্ষার পর বাংলাদেশেও Realme তাদের নতুন মডেল C17 বার করলো। আসলে Realme কিছুদিন ধরেই তাদের কয়েকটি মডেল দিয়ে বাংলাদেশের মার্কেট খেয়ে আসছিল। এবারো সেইরকম আরেকটি খুবই কম দামের মধ্যে খুবই ভালো মানের ফোন বের করেছে। এটির অফিসিয়ালি রিলিজ হয়েছে গত সেপ্টেম্বরে ২২ তারিখে। আর ফোনটির দাম রাখা হয়েছে বাংলাদেশি অফিশিয়াল প্রাইস ১৫৯৯০ টাকা। তো চলুন তাহলে এই ফোনের ফিচারস গুলো জেনে নেয়া যাক,

এই ফোনের মূল বৈশিষ্ট্য গুলো হলো,

• 6.5 inch 90 fps Display

• 6 GB RAM + 128 GB ROM

• Font: 8 MP Back: 13 MP Camera

• 5000 mAh Li-Po Battery

• Android 10

এবার আসি বিস্তারিত আলোচনায়,

ডিসপ্লে

এখানে বিশাল মাপের সাড়ে ছয় ইঞ্চি ডিসপ্লে ব্যবহার করা হয়েছে। এটি 90 fps এর ডিসপ্লে।যা পাবজি খেলার জন্য খুবই সুবিধাজনক। এখানে ৭২০×১৬০০ পিক্সেল দেওয়া হয়েছে।

স্টোরেজ

ফোনটিতে দেওয়া হয়েছে ৬ জিবি র‍্যাম এবং ১২৮ জিবি রম। আসলে ৬ জিবি র‍্যাম এর সাথে ১২৮ জিবি রম পুরোপুরি পারফেক্ট ভাবে মিলে যায়।

ক্যামেরা

এখানে সামনে রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা এবং পেছনে রয়েছে ১৩ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা। এবং ক্যামেরায় ভিডিও রেকর্ড হবে ১০৮০ পিক্সেলে।

ব্যাটারি

ফোনকে কন্ট্রোল করার জন্য মূলত ৫০০০ এম্পিয়ার এর লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারি ব্যবহার করা হয়েছে। তাছাড়াও ১৮ ওয়াট এর চার্জিং সিস্টেম রয়েছে সাথে ফাস্ট চার্জিং। ব্যাটারি নন রিমোভেবল।

প্রসেসর

ফোনের র‍্যাম, রোমের তুলনায় প্রসেসর-টা একটু খারাপ হয়ে গেছে। ফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে Snapdragon 460। রয়েছে Octacore Helio প্রসেসর।

সিকিউরিটি

ফোনটিতে রয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর। ভালো মানের ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর ব্যবহার করা হয়েছে।

গেমিং

আপনি এই ফোনে যেকোনো গেম খুব ভালো ভাবেই খেলতে পারবেন। Free Fire Ultra Grapics এই একদম স্মুথ খেলতে পারবেন। আর PUBG ও ভালো ভাবেই খেলতে পারবেন, কিন্তু প্রসেসরটা তুলনামূলক খারাপ হওয়ায় আপনি Ultra Graphics এ PUBG খেলতে পারবেন না।

এই ফোনের অন্যান্য ফিচার গুলো হলো,

• ফোনে ব্যবহার করা হয়েছে বর্তমান সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় ভার্সন অ্যান্ড্রয়েড ১০।

• ২ টা ন্যানো সিম ব্যবহার করা যাবে।

• ফোনটি ২জি, ৩ জি এবং ৪জি কাজ করবে।

• সর্বোচ্চ ৫.৭৬ mb/s স্পিড দিতে পারবে।

• ফোনটিতে রয়েছে ১৬ মিলিয়ন কালার।

• ফোনটির ওজন ১৯৬ গ্রাম।

• ফোনের Bluetooth ভার্সন ৫.০ দেওয়া হয়েছে।

• ফোনটাতে USB 2.0 with Type-C রয়েছে।

• ফোনটি OTG সাপোর্টেড।

• ফোনের ব্রাউজার গুলো HTML সাপোর্টেড।

• ফাস্ট চার্জিংও আছে।

আমার মতামত,

এমনিতেই ফোনটা অনেক ভালো। সবকিছুই প্রয়োজন মতোই দেওয়া হয়েছে। কিন্তু ৬/১২৮ এর ক্ষেত্রে Snapdragon 460 কোনো ভাবেই সম্ভব নয়। আর আরেকটা ব্যাপার হলো ব্যাটারির ক্ষেত্রে, ৫০০০ এম্পিয়ারের লিথিয়াম আয়ন। এখানে আরও ভালো ব্যাটারি ব্যবহার করা উচিত ছিল বলে আমি মনে করি।

আশা করি সবাই ফোনটা সম্পর্কে ভালো একটা ধারণা পেয়ে গেছেন। তো সবাই ভালো থাকবেন। ধন্যবাদ।

আরও পড়ুন, ডিজিটাল মার্কেটিং কি? কিভাবে ডিজিটাল মার্কেটিং করবেন?

Credit -> Amartips.Mobi.

Leave a Reply