ফেসবুক থেকে আয় করুন দৈনিক ২৪০০ টাকা

আসসালামু আলাইকুম

কেমন আছেন বন্ধুরা, আশা করি সবাই ভালো আছেন।আপনাদের দোয়ায় এবং আল্লাহর রহমতে আমিও খুবই ভালো আছি,বরাবরের মত আবারো নতুন একটি পোস্ট নিয়ে আপনাদের সামনে হাজির হলাম, আশা করি আপনাদের একটু হলেও উপকারে আসবে। তো চলুন আর কথা না বাড়িয়ে চলে যায় মূল পোস্টে।

ফেসবুক জগত থেকে আয় করার জন্য দেখাবো নতুন পথ । সত্যি বলতে কি, আপনি কিছু না জানলে ও, কিছু না বুঝলে ও আজ থেকে আপনি ও টাকা আয় করতে পারবেন যদি জীবনে শিখার আগ্রহ থাকে, করার আগ্রহ থাকে, নিজেকে পরিবতর্ন করার ইচ্ছা থাকে । এই পৃথিবীতে কেউ কাউকে টাকা কামানোর জন্য সাহায্য করে না এমনকি আপনার friend ও, যা করতে হবে তা আপনাকে নিজেই করতে হবে এটাই বাস্তবতা । আমার কথার সাথে নিজেকে মিলেয়ে নিন । বুজবেন না জীবনটা কি, কার আশায় আপনি দাড়িয়ে থাকবেন, আয় করার জন্য কোন পথে যাবেন, জীবনের উদ্দেশ্য টা কি । অনার্স, মাষ্টার্স লেখাপড়া শেষ করার পর চাকরি যখন সোনার হরিন হয়ে যায়, যখন টাকা আয় করার জন্য আপনি পাগল হয়ে উঠেন , চাকরি পাওয়ার জন্য মামা চাচার হাত থাকে না। তখন বোঝা যায় বেকার অবস্থায় থাকা কত যে কষ্ট , সমবয়সী মধ্য নিজের মান – সমমর্যাদা ও পরিবারের চাপ আপনাকে দিশেহারা করে তুলবে ।

আপনি যদি লেখাপড়া জানা বেকার হোন, আপনার অবস্থান কোথায় জানেন , একটু ভেবে দেখুন
১, দেশের মধ্য অভিশাপ
২, সমাজের মধ্য পাপ
৩, নিজের পরিবার বা কাছের মানুষের কাছে ভালবাসার অভাব ।
তাই আপনার পকেট যদি বড় থাকে সবাই আপনার পিছনে ছুটবে । আরে ভাই, পৃথিবীর মধ্য টাকার বিকল্প কিছু নেই , টাকাই সব।

আমার কথা হল , আমি কর্মে বিশ্বাসী, কর্ম মানে টাকা , টাকা মানে অনার্স, মাষ্টার্স ও PHD. আমি লেখাপড়া করি বিদ্যার জন্য , আর বিদ্যা অর্জন করি বুদ্দির জন্য । আর বুদ্ধি টা টাকা আয়ের জন্য । জনপ্রিয়তা জন্য কাজ করি না, কাজ করার জন্য আমি জনপ্রিয় হয় । আমি বিশ্বাসের অধিনস্ত নই, বিশ্বাস আমার অধিনস্ত । দৃষ্টিভঈি বদলান জীবন বদলে যাবে । সোনার পরিচয় লোহায় ঘষিলে আর বন্ধুতের পরিচয় বিপদে পড়িলে । সব সহযোগীতার জন্য কাছে থাকব আমি। তাই ব্যর্থতার মাঝে সুপ্ত রয়েছে সাফল্যের বীজ , প্রান ছাড়া দেহ যেমন মৃত, তেমনি কর্ম বিহীন বিশ্বাস ও মৃত । অতীত তোমাকে কষ্ট দিবে, ভবিষ্যাত তোমাকে আশা দেখাবে, বর্তমান সবসময় তোমার পাশে থাকবে । কারন মানুষ যা ভাবতে পারে, যা বিশ্বাস করতে পারে, তা অর্জন ও করতে পারে । আপনার যদি টাকা থাকে , আপনার বন্ধু-বান্ধবের, আত্মীয়-স্বজনের অভাব হবে না । টাকা নাই কেউ আপনাকে দাম দিয়ে কথা বলবে না ।

সত্য বলতে কি, কয়েক বছর আগে ও আমি বুঝতাম না অনলাইন বা ইনটারনেটের মাধ্যমে কিভাবে টাকা আয় করা যায়। এখানে কত ধরনের পথ আছে , আমি কাজ করলে টাকাটা কিভাবে পাব । জানার আগ্রহ আমার সবসময় বেশী তাই প্রতিদিন ইনটারনেটে সার্চ করে অনেক website সাথে পরিচিত হই। যা একটা ছেলেকে শূন্য থেকে মহাশূন্য নিতে পারবে । প্রয়োজন শুধু আপনার দৃটতা প্রত্যয় আত্মবিশ্বাস। ইনটারনেটের চাকরি অভাব নেই , আছে শুধু কাজ জানা লোকের অভাব ।

নিজের মেধাশক্তিকে কাজে লাগান, চিন্তা শক্তির প্রসার ঘটান, অনলাইন জগতের সাথে পরিচিত হোন । চাকরির পিছনে আর ছুটতে হবে না, চাকরি আপনার পিছনে ছুটবে । যেখানে অনলাইন বা ইন্টারনেট কোন কিছু শিখতে গেলে ১০,০০০ বা ১৫০০০ টাকা ছাড়া কোন কোর্স শিখা সম্ভব নয়। আবার কোর্স করার পর ও অনেকে সঠিক দিক নির্দেশনার অভাবে অনলাইন থেকে আয় করার জগত থেকে ছিটকে পড়ে। আপনি ব্যবসা বা চাকরিতে হাজার হাজার টাকা নষ্ট করে যেটা করতে পারেন নাই । ফেসবুক থেকে আয় দৈনিক ২৪০০০ টাকা এই বইটা পড়ে আপনার জীবন পালটে যাবে , দেখাবে নতুন পথ , পরিচিত হতে পারবেন ইন্টারনেটের সব কাজের সাথে , জানতে পারবেন কিভাবে কাজ করতে হয়। কোথায় কাজ পাওয়া যাবে । ইন্টারনেট বা অনলাইণ থেকে আয় খুব জনপ্রিয় একটা মাধ্যম । সব দেশের মত বাংলাদেশের অনেক school & college ছেলে মেয়েরা অনলাইনে ফ্রীল্যানসার বা মুক্ত পেশাজীবি হয়ে স্বাধীনভাবে কাজ করে যা বাংলাদেশের কোন উচচ পর্যায়ের চাকরি জীবির চেয়ে ও বেশী বেতন পড়ে ।

তাই মানুষ একঘুয়েমী চাকরি পরিহার করে অনলাইনে চাকরি পিছনে ঝুকে পড়ছে। তাছাড়া নিজের ওয়েবসাইট। বা ব্লগের মাধ্যমে এফিলিয়েট মার্কেটিং করে দৈনিক ৩০০ ডলার বা ২৪০০০ টাকা চেয়ে বেশী আয় করা যায়।

অনলাইন জগতের ১ হাজার পথ সমর্পকে জানতে পারবেন বিভিন্ন website বা blog মাধ্যমে পরিচিত হতে পারবেন কিভাবে টাকা পাওয়ার জন্য payza or alertpay , paypal ,skrill ব্যাংক একাউনট খুলবেন কিভাবে টাকা বাংলাদেশে পাব বইটা পড়ে আপনি GMail, google, youtube., Zeekler, donkeymails, twiter, fliker, google plus, slideshare, আরো অনেক id খুলতে পারবেন affiliate marketing করে কিভাবে দৈনিক $300 doller বা 24000 টাকা চেয়ে বেশী আয় করা যায় কত ধরনের মার্কেট আছে কিকাজ শিখলে অনলাইনে নিজেকে যোগ্য মনে করতে পারবেন কয়টা মার্কেটপেলেসে চাকরি পাওয়া যায় শুধু click করে টাকা আয় করা যায় এইরকম ১২ টা সাইটের সাথে পরিচিত হতে পারবেন কিভাবে শুধু download করে টাকা আয় করা যায় তা জেনে নিন শুধু file share করে daily 200 doller income করুন সি পি এ (CPA) ইভেন্টের আলোচ্য বিষয় সমূহ:

#. সি পি এ (CPA) কি?
#. ফ্রিল্যান্সিং এব সি পি এ (CPA) এর মধ্যে পার্থক্য কি?
#. এফিলিয়েট মার্কেটিং এবং সিপিএ (CPA) মার্কেটিং এর মধ্যে পার্থক্য কি
#. সি পি এ (CPA) থেকে মাসে কত টাকা ইনকাম করা যাবে?
#. সি পি এ (CPA) মার্কেট থেকে পেমেন্ট কিভাবে পাওয়া যায়?
#. সি পি এ (CPA) শিখার জন্য কি ধরনের যোগ্যতা থাকতে হবে?

#. সি পি এ (CPA) কি কি ধরনের কাজ করতে হয়? #. সি পি এ (CPA) কাজ করার জন কি কি দরকার হয়?
#. সি পি এ (CPA) কাজ করতে গেলে কি কি বিষয় জানতে হয়?
# সবচেয়ে ভাল সি পি এ (CPA) নেটওয়ার্ক কিভাবে খুজে বের করবেন?
# কিভাবে সি পি এ (CPA) মার্কেটপ্লেসে আপনার একাউন্ট এপ্রুভ করবেন?
# সি পি এ (CPA) মার্কেটপ্লেসে ডোমেইন এবং হোষ্টিং কিভাবে ব্যবহার করবেন?
# ওয়ার্ডপেস সেটাপ এবং থিম নির্বচন
# ওয়ার্ডপেস ডেকোরেশন কিভাবে করবেন?
# সি পি এ (CPA) এপ্লিকেশন কিভাবে করবেন?
# মিলিয়ন ডলার অফার বিস্তারিত
# অফারভল্ট কি?
# অফারভল্ট থেকে কিভাবে ভাল অফার খুজে বের করবেন?
# লিষ্ট সি পি এ মার্কেটপ্লেস এর বিস্তারিত
# Maxbounty CPA Marketplace বিস্তারিত ?
# CPA lead CPA Marketplace বিস্তারিত? # Traffic Method
# Facebook PPC অনলাইন আয়ের বিষয় নিয়ে আলোচনা Cost Per Mile (CPM) CPM হল আর একটি এড এর মাধ্যমে টাকা আয় করার উপায়। যা সাধারনত পেইজ ভিউ এর উপর ভিত্তি করে আপনাকে পে করবে। এটাও অনেকটা সিপিসি সাইটের মত। আপনার ওয়েব সাইট বা ব্লগ সাইটের প্রতিদিনের পেইজ ভিউ যদি ১০০০ এর উপরে হয় তাহলে এই সাইটগুলো থেকে আয় করতে পারবেন।

নিচে কিছু সাইট এর ঠিকানা দেওয়া হল। Tribalfusion BrustMedia BuysellAds Valueclickmedia VibrantMedia Adpepper Cpxinteractive MadadsMedia Sell Affiliates Products এর মাধ্যমে আপনি বিভিন্ন সোস্যাল সাইট, ব্লগ, ফোরাম, ব্যক্তিগত সাইটে বিভিন্ন পণ্যের এড সো করে আয় করতে পারেন।

আপনার সাইট থেকে যদি কেউ কোন পণ্য কিনে তাহলে এর একটা অংশ আপনাকে পে করবে। নিচে এই রকম কিছু সাইটের ঠিকানা দেওয়া হল। Google Affiliates ClickBank Commission Junction E-junkie Amazon Affiliates eBay Affiliates DigiResult FreeLancer Earn From Uploading

আপনি কিছু সাইটের মাধ্যমে ফাইল, সফটওয়্যার, ছবি, এন্টিভাইরাস ইত্যাদি আপলোড করে আয় করতে পারেন। আপনার আপলোড করা ফাইল যত বেশি ডাউনলোড হবে আপনার আয়ও তত বেশী বাড়বে। নিচে কিছু সাইটের ঠিকানা দেওয়া হল। ShareCash.org CashFile.org Uploadables Write For Other Sites

আপনি কিছু সাইটের বিভিন্ন বিষয়ে ব্লগ লিখে আয় করতে পারেন। এই সব সাইটে বিভিন্ন ক্যাটাগরির উপর লিখে এই সব সাইট থেকে আয় করতে পারেন। PayPerPost Social Spark Sponsored Review RevewMe Payu2Blog Hubpages.com

এটি তোমার জন্য একটা সহায়ক হিসেবে কাজ করবে কারণ, অনলাইনে যে কিভাবে ঘরে বসে অনেকভাবে অর্থ উপার্জন করা যায়, তা এই নিবন্ধ পড়লে তুমি জানতে পারবে । আমি তোমাকে বলে রাখতে চাই যে, অনলাইনে আয় করা বাস্তব জীবনে আয় করার মতোই কঠিন। এখানে এমন কিছু রাস্তা আছে যেগুলোতে কাজ শুরু করা সহজ কিন্তু, এগুলো থেকে বেশী টাকা রোজগার করা যায় না । এ তুলনায় অন্যান্য উপার্জনের পন্থায় ভালো আয়ও হয় আবার, তা ধারাবাহিকভাবে বজায় থাকে । বাংলাদেশ থেকে অনলাইন আয় রোজগারের উপায়গুলো নিম্নরুপ,

১। পেড রিভিউ-এর মাধ্যমে আয় রোজগার সার্ভে বা জরিপ একটা পুরাতন পদ্ধতি আর আমার মনে হয় তুমি এ বিষয়ে জানো। “সার্ভে” সাইটে তুমি গিয়ে নিবন্ধিত হবে আর সার্ভে বা জরিপ আসার অপেক্ষা করবে; সার্ভে ফর্ম পূরণ করে তোমার মতামত জানাবে, ব্যস! প্রতিটি সার্ভের জন্যে তুমি টাকা পাবে। এখানে, এমন কিছু ব্যবস্থাও আছে যেখানে, ইমেইল পড়ার ও জবাব দেওয়ারও কাজ থাকে। সার্ভে সাইট হিসেবে অন্যতম জনপ্রিয় সাইট হচ্ছে-সার্ভে সেভী।

২। নিবন্ধ লিখে আয় রোজগার এমন অনেক ওয়েবসাইট রয়েছে যেগুলো পাঠকদের লেখায় আপডেট হতে থাকে। কোন কোন সাইটে তারা লেখকদের সাথে মুনাফা ভাগ করে নেয়। তুমি এখানে বিভিন্ন নিবন্ধ লিখতে পারো আর তোমার আর্টিকেল বা নিবন্ধ যতো বেশি পাঠক পড়বে, তুমি ততো বেশি টাকা পাবে। “শুভং” নামক একটা ওয়েবসাইট আছে যারা তাদের লেখকদের সাথে শতকরা ১০ ভাগ গুগল এডসেন্স-এর লভ্যাংশও ভাগ করে নেয়।

৩। পিটিসি বা পেড-টু-ক্লিক এ আয় রোজগার পিটিসি বা পেড-টু-ক্লিক এর সাহায্যে তুমি ওয়েবসাইট (শুধুমাত্র স্পনসরড্ সাইটগুলো) ব্রাউজ করার জন্যে টাকা পাবে। এতে আরো উপায় আছে যাতে ওয়েবসাইট সার্ফ করে, ওয়েবসাইট দেখে আর ওয়েবসাইট সার্চ করে টাকা উপার্জন। সত্যকথা বলতে কি, এই সাইটগলো আয়ের তুলনায় অনেক বেশী সময় অপচয় করে। এরা তোমার একেক ইউনিট এডের পেছনে তোমার ব্যয়ের তুলনায় খুবই কম টাকা দেয়। একটা জনপ্রিয় পিটিসি সাইট যারা ভালো অর্থ প্রদানও করে থাকে সেটি হচ্ছে-বাকস্.টু

৪। তোমার তোলা ছবির মাধ্যমে অর্থ উপার্জন যদি তুমি একজন ফটোগ্রাফার বা চিত্রগ্রাহক হয়ে থাকো, তবে তোমার তোলা আকর্ষনীয় ছবিগুলো অনলাইনে বিক্রি করতে পারো। অনলাইনের ডিজাইনার্রা তাদের প্রজেক্টের জন্যে অনেক ছবি খুঁজে থাকেন, তুমি তাদের নিকট তোমার ছবিগুলো বিক্রি করতে পারো। তুমি তোমার ছবিগুলো আই-স্টক- ফটোস্ ওয়েবসাইটের মাধ্যমে বিক্রিও করতে পারো।

৫।গুগল এডসেন্সের মাধ্যমে আয় রোজগার গুগল এডসেন্সে আয় করার জন্যে তোমার একটা সচল ওয়েবসাইট অথবা ব্লগ প্রয়োজন। তুমি নিশ্চয়ই দেখেছো এমন বিলবোর্ড বা পোস্টার যেখানে তারা (জনৈক অসাধু ব্যবসায়ীরা) দাবি করে যে, তুমি এখান ১০ থেকে ২০ ডলার দৈনিক আয় করতে পারবে- এটা সম্পূর্ণ মিথ্যা কথা! গুগল এডসেন্স থেকে ইনকাম হয় তখন যখন, কেউ গুগলের সেসব এডে ক্লিক করে। কিন্তু, এখানে ইনকাম করার পূর্বে তোমাকে একটা তথ্যসমৃদ্ধ ওয়েবসাইট তৈরী করে নিতে হবে। কিন্তু, তোমাকে সেসব নকল এডসেন্স শেখার জায়গায় এই সেখানো হয় যে, কিভাবে চুরির লেখা দিয়ে একটা নকল ওয়েবসাইট বানাতে হয়, এটাতো আসল নয় কারণ এটা একটা ধোঁকাবাজি। google.com/adsense

৬। তোমার মতামত প্রকাশের জন্যে টাকা পাবে হ্যাঁ, এটিই নতুন দিনের আয় রোজগার মাধ্যম, এখন তুমি টাকা নিয়ে যেকোন ওয়েবসাইট বা কোম্পানীর ব্যাপারে তোমার মতামত দিয়ে একটা নিবন্ধ লিখে ফেলো তোমার ব্লগে। পেড রিভিউ সাইটগুলো কল্যাণে, এখন তারা (কোম্পানী বা ওয়েবসাইটগুলো) তোমাকে তাদের ব্র্যান্ড, পন্য বা ওয়েবসাইটের বিষয়ে লেখার জন্যে অর্থ পরিশোধ করবে। তোমার এই মতামত বা ব্লগ তাদের নিয়ে বাজারে আলোড়ন সৃষ্টি করবে আর তারা পাবে অধিক পাঠক ও ক্রেতা। এরকম একটা জনপ্রিয় পেড্ রিভিউ সাইট হচ্ছে-সোস্যালস্পার্ক

৭।এফাইলিয়েট মার্কেটিং-এর মাধ্যমে আয় রোজগার (সেবামূলক গোষ্ঠীর সাহায্য করা) এটি একটি পদ্ধতি যার মাধ্যমে তুমি তোমার ওয়েবসাইটে কোন পন্যের প্রচার করবে আর যখন পন্য বিক্রি হবে, তখন তুমি এর থেকে কমিশন পাবে। এখানে অনেক আধুনিক আর ভালো পন্য আছে যেগুলো বিক্রি করা যায় আর মানুষ কিনতেও আগ্রহী; তুমি একজন এফাইলিয়েট হয়েও কাজ করতে পারো। তুমি “ক্লিক ব্যাংক”-এর মাধ্যমে একজন এফাইলিয়েট হয়ে পন্য বিক্রয় করতে পারো ।

৮।ব্যানার এডস্ বা “ব্যানার” জাতীয় বিজ্ঞাপন বিক্রি করে আয় রোজগার যদি তোমার একটা প্রতিষ্ঠিত ওয়েবসাইট বা ব্লগ থাকে, তবে বিজ্ঞাপনদাতারা তোমার ব্লগে তাদের বিজ্ঞাপন দিতে দ্বিধাবোধ করবে না। একেই বলে, ব্যানার এডস্ অথবা সরাসরি ইনকামের সুযোগ। তোমার ওয়েবসাইটের জনপ্রিয়তা যতো বেশি হবে তোমার পাঠক সংখ্যা বাড়বে ততো বেশি হবে আর তোমার আয়ও বাড়তে থাকবে ।

৯। ফ্রি-লেন্সিং বা অস্থায়ী কর্মী হিসেবে অর্থ উপার্জন ঘরে বসে ফ্রি-লেন্সিং করা আয় রোজগারের একটা চমৎকার সুযোগ। তোমার যদি ডাটা এন্ট্রি, গ্রাফিক্স ডিজাইন অথবা এড্মিনিস্ট্রেশন বা তদারকির কাজে দক্ষতা থাকে তাহলে, তুমি অনলাইনে এসব কাজ করে আয় রোজগার করতে পারো। তুমি চাইলে ফ্রিলেন্সিংভিত্তিক একটা ক্যারিয়ার ই গড়ে তুলতে পারো।

১০। টুইটার বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে আয় করা বিজ্ঞাপনদাতাগণ বর্তমানে তাদের ক্যাম্পেইন বা বিজ্ঞাপন উদ্যোগগুলো “টুইটার” বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে ছড়িয়ে দিতে চাচ্ছেন। এজন্যে, তোমার কোন ব্লগ কিংবা ওয়েবসাইট থাকারও প্রয়োজন নেই। এমন অনেক কোম্পানী রয়েছে, যারা টুইটার বিজ্ঞাপনের কাজ করে থাকে যেমন- মেগ-এ-পাই ।

আজ আর নয়। আমার লেখাতে কোন ভুল থাকলে ক্ষমা করে দিবেন। পোস্ট টি যদি আপনাদের ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই একটি লাইক দিবেন,পজিটিভ কমেন্ট করে author দের উৎসাহিত করবেন,পোস্টে কিছু না বুঝতে পারলে কমেন্ট করে জানাবেন , আমি চেষ্টা করবো সাথে সাথেই সমাধান দিতে,আর একটি কথা আজেবাজে কমেন্ট করে author দের পোস্ট করার মানসিকতা নষ্ট করে দিবেন না কারন একটি পোস্ট লিখতে কতটা কষ্ট হয় সেটা একজন পোস্ট রাইটার ই ভালো করে বোঝেন। মনোযোগ দিয়ে পোস্ট পড়ার জন্য অনেক অনেক ধন্যবাদ।,খোদা হাফেজ

আমার একটি YouTube চ্যানেল আছে আপনারা চাইলে দেখে আসতে পারেন। আমার চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন

আমার চ্যানেলের কিছু লেটেস্ট ভিডিও
💜যোগ্যতা অনুযায়ী চাকরি খুঁজে দেবে ফেসবুক দেখে নিন কিভাবে apply করবেন
💜 আবারো বাংলালিংক এ 550mb একদম ফ্রি
💜 হ্যাক করুন যেকোন অফলাইন গেম ছোট্ট একটি powerful software দিয়ে

💜প্রেমিকার 10 বছর আগে ডিলিট করা পুরনো মেসেজ কিভাবে ফিরিয়ে আনবেন

💜 যে কোন অ্যাপ থেকে কিভাবে গুগলের অ্যাড রিমুভ করবেন আর কখনোই অ্যাড দেখতে হবে না

Leave a Reply