ফ্রিল্যান্সিং এবং সফলতা

সকল ধরনের পেশাজীবিদের একটা আলাদা আলাদা নাম আছে, যেমনঃ যারা ব্যবসা করেন তারা হলেন ব্যবসায়ী, যারা চাকুরী করে তারা হলেন চাকুরীজিবী, আবার যারা মাছ ধরে জীবিকা নির্বাহ করেন তারা হলেন মৎস্যজীবি, সব ধরনের পেশাতেই সংশ্লিষ্ট বিষয়ের উপর অবশ্যই জানতে হয় এবং সেই ধরনের কাজের উপর কর্মক্ষম হতে হয় ।
ফ্রিল্যান্সিং শব্দের বাংলা অর্থ হল ”’মুক্তপেশা”’। ফ্রিল্যান্সিং বলতে বাঁধাধরা কোন নিয়ম মেনে চাকরি না করে নিজের স্বাধীনতা অনুযায়ী বা মু্ক্তভাবে কাজ করাকে বুঝায়। যারা এ ধরণের কাজ করে থাকেন তাদেরকে বলা হয় “মুক্তপেশাজীবী” বা ফ্রিল্যান্সার ।
মুক্তপেশাজীবি বা ফ্রিল্যান্সারদের রয়েছে কাজের ধরণ নির্ধারণের স্বাধীনতা, যখন ইচ্ছা তখন কাজ করার স্বাধীনতা, গতানুগতিক ৯টা-৫টা অফিস সময়ের মধ্যে ফ্রিল্যান্সাররা স্বীমাবদ্ধ নয়। তাছাড়া, একজন ফ্রিল্যান্সার কোনো প্রতিষ্ঠানের চাকুরীজীবী হিসেবে নয়, কাজের ধরণ বা প্রকল্পের মেয়াদ অনুযায়ী স্বল্পকালীন চুক্তিতে কাজ করে থাকেন।
সহজ কথায় বলা যায় যে, গতানুগতিক চাকরির বাইরে নিজের পছন্দমত বা স্বাধীনভাবে কাজ করার নামই হচ্ছে ফ্রিল্যান্সিং , এবং যারা এ ধরনের কাজ গুলো করে থাকেন তাদেরকে বলা হয় ফ্রিল্যান্সার ।

সুতরাং নতুন অবস্থায় আপনারা ফ্রিল্যান্সিং বিষয়টি যতটুকু সহজ মনে করছেন আসলে তা কিন্তু ততটুকু সহজ নয়। শুধু কম্পিউটারের সামনে বসে থাকবেন,আর মাসে মাসে আপনার অ্যাকাউন্ট এ ডলার জমা হবে, এমনটি নয় কিন্তু। ফ্রিল্যান্সিং করার জন্য আপনাকে প্রচুর ধর্যের অধিকারী হতে হবে, কাজ শিখা এবং অনুশীলন করার জন্য পর্যাপ্ত সময় ব্যয় করতে হবে, কাজের প্রতি প্রবল মনোযোগী হতে হবে,আগে কাজ শিখে দক্ষতা অর্জন করা এবং তারপর টাকা ইনকামের চিন্তা ভাবনা করার মন-মানসিকতা থাকতে হবে, দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য আপনাকে অবশ্যই প্রচুর পরিশ্রমী হতে হবে। সুতরাং, আপনারা যদি এসব নিয়ম-কানুন গুলো মেনে চলেন বা অনুসরণ করেন তাহলে অবশ্যই ফ্রিলান্সিং এ সাফল্য আপনার জন্য অনিবার্য।

Credit -> Amartips.Mobi.

Leave a Reply