হঠাৎ মৃত্যু থেকে পানাহ চাইব কেনো? সবাই জেনে নিন।

আসসালামু আলাইকুম সবাই কেমন আছেন…..? আশা করি সবাই ভালো আছেন । আমি আল্লাহর রহমতে ভালোই আছি ।আসলে কেউ ভালো না থাকলে amartips তে ভিজিট করেনা ।তাই আপনাকে amartips তে আসার জন্য ধন্যবাদ ।ভালো কিছু জানতে সবাই amartips এর সাথেই থাকুন।

আখেরাতের প্রস্তুতি নিয়ে

হঠাৎ মৃত্যু

হঠাৎ মৃত্যু হলে কোনো কিছুই বলার সুযোগ হয় না। সে জন্য হঠাৎ মৃত্যু থেকে আল্লাহর কাছে পানাহ চাইতে শিক্ষা দেয়া হয়েছে।
সুরা ফাতির এর ৩৭ নম্বর আয়াতে আল্লাহ তায়ালা বলেন,
“আমি কি তোমাদের এমন বয়স দান করিনি যাতে কেউ শিক্ষা গ্রহণ করতে চাইলে শিক্ষা গ্রহণ করতে পারতো, আর তোমাদের কাছে তো সতর্ককারীও এসেছিলো।” (সুরা ফাতির: ৩৭)

আল্লাহ তায়ালা আমাদেরকে নির্দিষ্ট বয়স দিয়েছে যাতে আমরা আমল করতে পারি এবং শিক্ষাগ্রহণ করতে পারি। কিন্তু আজ আমরা দুনিয়ার মোহে পড়ে মৃত্যুর কথা ভুলে গিয়েছে অথচ মৃত্যু যে কোনো সময়ে আমাদের গ্রাস করতে পারে। আমাদের কাছে সতর্ককারীও এসেছেন কিন্তু আমরা সেসবের প্রতি গুরুত্ব না দিয়ে দুনিয়ার এক অস্থায়ি প্রতিযোগিতার ফাদে আটকে পড়েছি যার কারণে আমাদের আখেরাতে স্থান হতে পারে জাহান্নাম। মৃত্যু কখন আসে তা বলা যায় না। মৃত্যু দুভাবে আসতে দেখা যায়। সাধারণ অবস্থায় বাড়িতে অসুখ বিসুখের মাধ্যমে মানুষ মৃত্যু বরণ করে। আবার কখনও কখনও বাড়ির বাইরে বা সফরে থাকা অবস্থায় দুর্ঘটনার মাধ্যমে মৃত্যু বরণ করে। রসুলুল্লাহ সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম হঠাৎ মৃত্যু থেকে পানাহ চাইতে শিক্ষা দিয়েছেন। অতএব আমলা হঠাৎ মৃত্যু থেকে আল্লাহর কাছে পানাহ চাইব।

দুর্ঘটনায় মৃত্যুবরণ করলে জানাযা ঠিকমত হয় না। আপনজন আত্মীয় স্বজন জানতে পারে না। তাদের দোয়া থেকে বঞ্চিত থাকে।

প্রিয় ভাই ও বোনেরা লাইক কমেন্ট শেয়ার করে ইসলামি দাওয়াতে আপনিও অংশগ্রহণ করুন। প্রিয় বন্ধুরা জানার স্বার্থে দাওয়াতি কাজের স্বার্থে আর্টিকেলটি অবশ্যই শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন। হতে পারে আপনার একটি শেয়ার বহু মানুষ উপকৃত হবে ইনশাআল্লাহ।

Leave a Reply