শরীর ব্যাথায় রাসূল (সাঃ) যে আমল করতেন জেনে নিন।

আসসালামু আলাইকুম সবাই কেমন আছেন…..? আশা করি সবাই ভালো আছেন । আমি আল্লাহর রহমতে ভালোই আছি ।আসলে কেউ ভালো না থাকলে amartips তে ভিজিট করেনা ।তাই আপনাকে amartips তে আসার জন্য ধন্যবাদ ।ভালো কিছু জানতে সবাই amartips এর সাথেই থাকুন ।

শরীর ব্যাথায় রাসূল (সাঃ) যে আমল করতেন

হযরত আবু হুরাইরা (রাঃ) সূত্রে রাসুলুল্লাহ (সাঃ) বলেন → আল্লাহ তায়ালা এমন কোন রোগ পাঠাননি যার আরোগ্যের ব্যবস্হা রাখেনি। (সহিহ বুখারী হাদিস নাম্বার আধুনিক প্রকাশ্য ৫২৬৭,ইসলামিক ফাউন্ডেশন ৫১৬৩)

হযরত উসমান ইবনে আবিল আস (রাঃ) সূত্রে বর্ণিত তিনি রাসুলুল্লাহ (সাঃ) কে সেই ব্যথ্যার অভিযোগ করলেন, যে তিনি ইসলাম গ্রহনের পর থেকে তাঁর শরীরে অনুভব করে আসছেন।

তা শুনে রাসুলুল্লাহ (সাঃ) বললেন → শরীরে যেখানে ব্যথা অনুভব করছো সেখানে হাত রেখে তিন বার বিসমিল্লাহ বলো এবং সাতবার এই দোয়াটি পড়ো

হাদিসটি যেসব কিতাবে এসেছে : ( মুসলিম ২২০২, আবু দাউদ ৩৮৯১, সহীহ আৎ তিরমিজি ২০৮০, ইবনু মাজাহ্ ৩৫২২,মুয়াত্বা মালিক ৭৪২, ইবনু আবী শায়বাহ্ ২৩৫৮৩, আহমাদ ১৬২৬৮ সহীহ ইবনু হিব্বান ২৯৬৫)

এছাড়া মাটি ও মানুষের থুথুর মাঝে আরোগ্য রয়েছে। হজরত আলী কারি রাহমাতুল্লাহ আলাইহি বলেন → আমি চিকিৎসা শাস্ত্রের কিছু আলোচনায় দেখেছি পরিশুদ্ধ ও মেজাজ পরিবর্তন করার ক্ষেত্রে থুথুর বিশেষ প্রভাব রয়েছে।

আর মূল স্বাভাব সংরক্ষণ করার ক্ষেত্রে মাটির বিশেষ উপকারিতা রয়েছে। এমনিভাবে অসুস্থতার পাশ্ব প্রতিক্রিয়া প্রতিরোধে এর ক্ষেত্রেও এর প্রভাব রয়েছে। ( মিরকাত)

এ প্রসঙ্গে বিশ্ব নবী (সাঃ) একটি হাদিস তুলে ধরা হলো – হযরত আয়েশা রাদিয়াল্লাহু আনহা থেকে বর্ণিত → যখন কোন ব্যক্তি নবী (সাঃ) এর নিকট নিজের কোন অসুস্থতার আভিযোগ করত অথবা ( তার দেহে) কোন ফোঁড়া কিংবা ক্ষত হতো :

তখন রাসুলুল্লাহ (সাঃ) নিজ আঙ্গুল নিয়ে এ রকম করতেন। ( হাদিসের রাবী) সুফ্য়ান তাঁর শাহাদাত আঙ্গুলটিকে জমিনের উপর রাখার পর উঠালেন।(অর্থ্যাৎ তিনি এভাবে মাটি উঠিয়ে মাটি লাগাতেন।

অর্থ্যাৎ : আল্লাহর নামের সঙ্গে আমাদের জমিনের মাটি এবং আমাদের কিছু লোকের থুতু মিশ্রিত করে (ব্যাথাতে বা ফোঁড়াতে) লাগালাম। আমাদের প্রতিপালকের আদেশের দ্বারা আমাদের রুগী সুস্থতা লাভ করবে। ( সহীহুল বুখারী ৫৭৪৫,৫৭৪৬,মুসলিম ২১৯৪,আবূ দাউদ ৩৮৯৫,ইবনু মাজাহ ৩৫২১,আহমাদ ২৪০৯৬)

উল্লেখ হাদিস থেকে আমরা বুঝলাম যে, রাসুলুল্লাহ (সাঃ) মাটির সঙ্গে নিজের থুথু মিশাতেন।তিনি হাতের তর্জনীতে থুথু নিয়ে তা মাটির সঙ্গে মিশাতেন। অতঃপর ব্যথার জায়গায় মাটি মাখা আঙ্গুল বুলাতেন এবং এ শব্দ উচ্চারণ করতেন।

তবে এক্ষেত্রে বলে রাখা ভালো যে,অতিরিক্ত ব্যথাতে আপনার এই আমল গুলোর পাশাপাশি চিকিৎসকের শরণাপন্ন হবেন। কারণ চিকিৎসা নেওয়াও নবীর সুন্নত [ সহীহ বুখারী (ইসলামিক ফাউন্ডেশন) ৬৩ /চিকিৎসা, হাদিস নাম্বার ৫৩০৩]

আল্লাহ তায়ালা মুসলিম উম্মাহকে বিশ্বনবীর এ হাদিসের ওপর আমল করে ঘোষিত উপকারিতা লাভের তাওফিক দান করুন।

প্রিয় ভাই ও বোনেরা লাইক কমেন্ট শেয়ার করে ইসলামি দাওয়াতে আপনিও অংশগ্রহণ করুন।প্রিয় বন্ধুরা জানার স্বার্থে দাওয়াতি কাজের স্বার্থে আর্টিকেলটি অবশ্যই শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন।হতে পারে আপনার একটি শেয়ার বহু মানুষ উপকৃত হবে ইনশাআল্লাহ।

Leave a Reply