বার্ধক্যজনিত কষ্ট থেকে আল্লাহর কাছে পানাহ চাওয়া এবং ভালো ধারণা নিয়ে মৃত্যু। সবাই জেনে নিন।

আসসালামু আলাইকুম সবাই কেমন আছেন…..? আশা করি সবাই ভালো আছেন । আমি আল্লাহর রহমতে ভালোই আছি ।আসলে কেউ ভালো না থাকলে amartips তে ভিজিট করেনা ।তাই আপনাকে amartips তে আসার জন্য ধন্যবাদ ।ভালো কিছু জানতে সবাই amartips এর সাথেই থাকুন।

আখেরাতের প্রস্তুতি নিয়ে

বার্ধক্যজনিত কষ্ট এবং ভালো ধারণা নিয়ে মৃত্যু

বার্ধক্যজনিত কষ্ট থেকে পানাহ চাওয়া

বার্ধক্যজনিত অস্বাভাবিক বয়সে কষ্টের মাধ্যমে মৃত্যু (আরযালিল উমর) থেকেও পানাহ চাইতে রসুলুল্লাহ সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আমাদের শিক্ষা দিয়েছেন।
অস্বাভাবিক দীর্ঘ হায়াতে জ্ঞান বুদ্ধি লোপ পেয়ে অবর্ণনীয় কষ্ট, বাড়ি ছেড়ে কোথায়ও চলে গিয়ে হারিয়ে যাওয়া, অসংলগ্ন কথাবার্তা , পরনির্ভরশীল গলগ্রহ অসহায় জীবন-যাপন এবং এ অবস্থায় মৃত্যুবরণ করা খুবই বেদনাদায়ক। এ থেকে বাঁচার জন্য আল্লাহর কাছে দোয়া করা দরকার। যদিও মৃত্যু কামনা করা যায় না। তবে শর্ত সাপেক্ষে রাসুলুল্লাহ সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম দোয়া করা শিখিয়েছেন। যেমন- “হে আল্লাহ বেঁচে থাকা যদি আমার জন্য কল্যাণকর হয় তবে আমাকে বাঁচিয়ে রাখো। আর মৃত্যু আমার জন্য কল্যাণকর হয় তাহলে আমাকে মৃত্যু দাও।”

ভাল ধারণা নিয়ে মৃত্যু

আকীদা সহীহ রাখতে হবে। আল্লাহ সম্পর্কে যথাযথ সুন্দর ধারণা রাখতে হবে।
হযরত জাবের রাঃ থেকে বর্ণিত আছে রাসুলুল্লাহ সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন- “তোমাদের কেহ যেন আল্লাহর প্রতি সুধারণা পোষণ না করে না মরে।” (মুসলিম)
আল্লাহ আমাকে মাফ করবেন এমন আশা করে মৃত্যুবরণ করতে হবে।
রাসুলুল্লাহ সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের জীবনের শেষ কথা ছিল-
আল্লাহুম্মাগফিরলি অরহামনি অলহিকনী বিররফিকিল আ’লা” -হে আল্লাহ আমাকে মাফ করো, আমাকে রহম করো আমাকে সর্বোত্তম সাথীদের সাথে (জান্নাতে) মিলিত করো। (বুখারি, মুসলিম)

প্রিয় ভাই ও বোনেরা লাইক কমেন্ট শেয়ার করে ইসলামি দাওয়াতে আপনিও অংশগ্রহণ করুন। প্রিয় বন্ধুরা জানার স্বার্থে দাওয়াতিকাজের স্বার্থে আর্টিকেলটি অবশ্যই শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন। হতে পারে আপনার একটি শেয়ার বহু মানুষ উপকৃত হবে ইনশাআল্লাহ।

Leave a Reply