এসএসসি পাসে ১৪৫০০ টাকায় চাকরির বিজ্ঞাপন বিভিন্ন পত্রিকা সম্পর্কে কিছু কথা সবার জানা উচিত

আপনিও চাকরির বিজ্ঞাপন থেকে প্রতারণার শিকার হতে পারেন

যে যাই করি না কেন একটা সময় সবাইকেই চাকরির পেছনে লাগতে হয়। আমরা বিভিন্ন ওয়েবসাইট এবং ফেসবুক থেকে বিভিন্ন বিজ্ঞাপন দেখে থাকি। বিজ্ঞাপন গুলো বেশ লোভনীয় হয়ে থাকে। যেমন এস এস সি পাশে ১৪৫০০ টাকা বেতনে চাকরি আবার এইচ এস সি পাসে ১৬৫০০ টাকায় চাকরি ইত্যাদি। এসব ধোকা থেকে দূরে থাকবেন।

যে সব address যারা দিবে ভুলেও আপনারা এই সব জায়গায় যাবেন না –

১.সাভার
২আশুলিয়া
৩.বাইপেল
৪.গাজীপুর চৌরাস্তা
৫.ইউনিক বাসস্ট্যান্ড

আপনাকে বলা হবে থাকার সু ব্যাবস্থা আছে কিন্তু খাওয়া নিজের। আপনি তাদের সাথে দেখা করার পর তারা আপনাকে বলবে ৩০০০-৩৫০০ টাকা খাওয়ার জন্য তাদের অগ্রিম দিতে হবে। এবং আপনি যে জব করবেন তার ইউনিফর্ম এর জন্য তাদের ৫০% টাকা দিতে হবে বাকিটা তারা নিজেরা দিয়ে আপনাকে ইউনিফর্ম বানিয়ে দিবে। এর মধ্যে ফর্ম পূরনের সময় আপনার থেকে ২০০-৩০০ টাকা তো খাবেই ।

আমার ছোট ভাইয়ের সাথে ঘটে যাওয়া একটি বাস্তব অভিজ্ঞতা –

শুনুন এসএসসিতে একটায় ফেইল মারছে। চাকরির বিজ্ঞাপন পেয়ে তাদের কল করে এবং বলে সব কিছু। বলার পরে তারা ফোন দিয়ে বলে আপনি জবটি করতে পারবেন সুপারভাইজার পদে আপনাকে নেয়া হবে জার বেতন ১৪৫০০ টাকা ( চিন্তা করেছেন এসএসসি পাস করতে পারে নাই তাকে বেতন দিবে ১৪৫০০ টাকা)

যাই হোক কাগজ সিভি যা ছিল তা নিয়ে চলে যায়। ফোন দিয়ে বলে সব কিছু ঠিকঠাক অনেক বড় অফিস। কিন্তু তাদের সর্ত হচ্ছে প্রথমে ৩০০০ টাকা জমা দিতে হবে খাওয়ার জন্য। তাদেরকে টাকা জমা দেয় এবং জবে জইন করে। ২ দিন থাকার পরে ফোন দিয়ে বলে বেতন কমিয়ে ১০ হাজার করা হয়েছে এরা সময় মত খাবার দেয় না। আর খাবারের যে অবস্তা তা একজন মানুষ খেতে পারে না। থাকার যে যায়গা দেয় তার থেকে রাস্তা অনেক ভাল। ৩ দিনের সময় ওরা সবাই চলে আসে চাকরি ছেড়ে এদের কাজই এটা তারা এমন করবে যে আপনি নিজেই চাকরি ছারতে বাধ্য অথবা মাস শেষ বেতন দিবে না। আবার সব যে এমন তাও না। কিছু কিছু আপনার থেকে ফর্ম পুরন করিয়ে ২০০-৩০০ টাকা করে নিয়ে ১ সপ্তাহ পরে দেখা করতে বলবে এসে আর পাবে না। মনে রাখবেন Job এর জন্য কোন টাকা লাগে না।

কিছু কথা মনে রাখবেন – 

○অনলাইনে জব প্রতিদিন ৩০০ – ৪০০ কোন এড ফি নাই নাই ফরম পূরন করতে ২০০ টাকা লাগে। মনে রাখবেন যেটা সহজেই হয় তা কখনো স্থায়ী হয় না।

○কখনোই কোথাও টাকা দিলেই বাশ খাবেন

○যদি এমন কোনো অফিসে টাকা ছাড়া জইন করতে পারেন আপনাকে যদি বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে লোক মেনেজ করতে বলে তবে বুঝে নিবেন এরা মানুষ নিচ্ছে টাকার জন্য। এদের লোক নেয়া বন্ধই হয়না।

○ইন্সুরেন্স কোম্পানী গুলোতে ভুলেও ঢুকবেন না। কারন এরা ১২,০০০ – ১৫,০০০ টাকা বেতন দিয়ে আপনাকে নিয়ে প্রথমে আপনাকে দিয়েই একটা ইন্সুরেন্স করিয়ে নিবে। আরও ৪ – ৫ টা ইন্সুরেন্স খোলার টার্গেট দিবে, সাথে সময় বেঁধে দিবে ১০-১৫ দিন। না পারলে আপনার জব শেষ। মাঝখান থেকে আপনার 15 দিনের যাতায়াত এর টাকার বাঁশ তো খাবেনই আর ইন্সুরেন্স করার টাকা ফেরত পাবেন না। জব দেবার নাম করে এনারা ইন্সুরেন্স করিয়ে নেন।

১. এয়ারপোর্ট
২. সিঙ্গার শো রুম
৩. ওয়ালটন
৪. সিম কম্পানি
৫. গ্রামিন ৪ জি টাওয়ার
৬. বাংলালিংক ৪ জি টাওয়ার
৭. রবি ৪ জি টাওয়ার
৮. এয়ারটেল ৪ জি টাওয়ার
৯. বসুন্ধরা শপিং কমপ্লেক্স

সব জায়গায় আপনার জব এর কথা বলা হবে কিন্তু আপনার ইন্টারভিউ হবে

১. সাভার
২. আশুলিয়া
৩. বাইপেল বাসস্ট্যান্ড এসব এরিয়াতে।

○আপনাকে বলা হবে থাকা ফ্রি খাওয়া নিজের বা থাকা।খাওয়া দুটোই ফ্রি। এসব বলে আপনাকে তাদের অফিসে নিবে তারপর আপনি তাদের অফিস ইত্যাদি দেখে নিকেই কনফিউশানে পইরা যাবেন বলবেন টাকা পয়সা সব দিয়া হলেও জবটা আপনার লাগবে। ভাই ভূল করেও এই কাজ কইরেন না। গেছেন তো ধরা খাইছেন আপনার থেকে বিভিন্ন করা বলে টাকা চাইবে ওড়া ২০০-৩০০ টাকা নিতে পারলেও ওদের লাভ।

মনে রাখবেন রিয়েল কম্পানি গুলো আপনার সিভি জমা দিতে বলবে এবং আপনার ভাইবা নেয়ার পর ভাল মনে হলে কল দিয়ে ৩-৪ দিন পড়ে জইন করতে বলবে তারা এরকম কোন সর্ত দিবে না। বা কোন সুবিধা দেখাবে না। কারন তারা টাকা দিয়ে আপনাকে রাখবে আপনাকে এত পাম দিবে না তাদের ভাব থাকবে অন্য রকম।

আপনারা কস্ট করে ইন্টারভিউ দিতে জান টাকা খরজ করেন কিন্তু শেষে ফল যদি এমন পান তাহলে আপনার কস্টের কথা বাত দেন আপনার ফেমিলির আসাটাই নস্ট হয়ে যাবে। এরা এমন বেকার ছেলে মেয়েদের দুর্বলতার সুযোগ নেয়।

ফেসবুকে যে ধরনের বিজ্ঞাপন থাকে –


এরকম হাজার হাজার বিজ্ঞান ফেসবুকে দিয়ে থাকে এরা।
এছারাও বিভিন্ন ওয়েবসাইটে দালাল এর অভাব নাই যেখানেসাপ্তাহিক চাকরির খবরে এসব ভুয়া চাকরির বিজ্ঞাপন দিয়ে থাকে দেখুন

সাপ্তাহিক ভুয়া চাকরির পত্রিকা –

এখানে সুধুই আমার মতামত তুলে ধরলাম আপনার উপকার হতে পারে।

Leave a Reply