আখেরাতের প্রস্তুতি নিয়ে (আখেরাতের জন্য আগেই পাঠিয়ে দিন এবং বিচারের দিনে সবই সাক্ষী দিবে) বিস্তারিত পোস্টে

আখেরাতের প্রস্তুতি আনিয়ে

আখেরাতের জন্য আগেই পাঠিয়ে দিন

প্রত্যেক ব্যাক্তির দেখা উচিত যে সে তার আখেরাতের জন্য আগে কি পাঠিয়েছে। সুরা হাশরে ১৮ নম্বর আয়াতে আল্লাহ তায়ালা বলেছেনঃ
“হে ইমানদার লোকেরা আল্লাহকে ভয় কর। আর দেখ আগামীকালের জন্য (আখেরাতের জন্য) কি পাঠাচ্ছ।” (সূরা হাশর: ১৮)
সূরা মুযযাম্মিল এর ২০ নম্বর আয়াতে বলা হয়েছেঃ
“তোমরা নিজেদের জন্য অগ্রিম যা পাঠাবে তা আল্লাহর কাছে ঠিকমতই তুমি তা পাবে।” (সূরা মুযযাম্মিল: ২০)
একজন সাহাবী তার বন্ধু আর এক সাহাবীর বাড়ী বেড়াতে গিয়েছিলো। সেখানে বসার কোন গদী ছিলো না। এটা জানতে চাইলে তার বন্ধু তাকে জানালো আমার গদী আমার আসল বাড়ীতে পাঠিয়ে দিয়েছি। যেখানে থাকতে পারবো না সেখানে গদী করে লাভ কি? যেখানে চিরদিন থাকতে হবে সেখানেই গদী দরকার। তাই সবই সেখানে পাঠিয়ে দিয়েছি। রাসুলুল্লাহ সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ
ফেরেশতাগণ বলেন পরকালের জন্য অগ্রীম কি পাঠিয়েছে, মানুষেলা বলে সে কী রেখে গেছে। (বায়হাকী, আবু হরায়রা রা:)
তিনি আরো বলেছেন: হেদায়েতের আলো যার মধ্যে প্রবেশ করেছে তাকে চিনিবার উপায় হলোঃ
১. প্রতারণার ঘর (দুনিয়ার ঘর) হতে দূরে সরে থাকা।
২. চিরস্থায়ী ঘর (আখেরাতের ঘর) এর প্রতি ঝুঁকে পড়া।
৩. মৃত্যু আসার পূর্বে মৃত্যুর জন্য প্রস্তুত থাকা। (বায়হাকী, ইবনে মাসউদ রা:)

বিচারের দিনে সবই সাক্ষী দিবে

আখেরাতের প্রস্তুতির জন্য যার যার সাথে সাক্ষাত হয়েছে সকলের নিকট থেকে যাতে ভালো সাক্ষী পাওয়া যায় সে জন্য এখনই ব্যবস্থা করতে হবে।
এমনকি রাস্তার সফর সঙ্গী যদি আধা ঘন্টার জন্যও সাথে থাকে তাহলে তার হক সম্পর্কে জিজ্ঞেস করা হবে। শরীরের অঙ্গ, প্রতংগসহ দুনিয়ায় যা কিছু আছে তারা সবাই আল্লাহর কাছে সাক্ষী দেয়ার জন্য প্রস্তুত হয়ে আছে। এ যেন তার সেনাবাহিনী, গোয়েন্দা বাহিনী NSI, DFI, CID ইত্যাদি। সব রেকর্ড করা হচ্ছে, তলব করা মাত্র হাজির করা হবে। আল্লাহ তায়ালা কুরআন মাজিদে বলেছেনঃ
“আসমান জমিনে সব কিছুই আল্লাহর সেনাবাহিনী।” (আল-ফাতহ: ৪)
আল্লাহ তায়ালা আমাদের সবাইকে উক্ত কথাগুলোর উপর আমল করার তৌফিক দান করুন।আমিন।

Leave a Reply