ইমামে আযম আবু হানিফার সাথে এক মদখোর ব্যাক্তি বন্ধুত্ব করে আল্লাহর ওলি হয়েছেন! সুন্দর একটি ইসলামিক গল্প।

আস্সালামুআলাইকুম। আশা
করি সবাই আল্লাহ
তাআলার অশেষ রহমতে
ভালো আছেন। আপনাদের
দোয়ায় আমিও ভালো
আছি।
.
আশা করি Post টা সবার
উপকারে আসবে। সবাই
ধৈর্য ধরে সবাই পোষ্ট টা
পড়বেন আর কিছু না বুঝলে
কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করবেন।
তো শুরু করা যাক।
.
অনেকেই হয়ত টাইটেল
দেখে বুঝে গেছেন কি
নিয়া আলোচনা করব।

.
আজকে আমি একটি সুন্দর ইসলামি গল্প নিয়ে আলোচনা করবো।

ইমামে আযম আবু হানিফা রহমাতুল্লাহী আলাই এর জমানায় এক জন পাপীষ্ট ভাবল যে, আমি প্রায় অনেক মানুষের মুখে শুনেছি যে, যার সাথে যার মুহাব্বত তার সাথে তার কিয়ামত।
.
তখন পাপীষ্ট মানুষটিকে অনেক চিন্তাভাবনা করতে লাগলেন, যে আমি এমন কোন মানুষের সাথে বন্ধুত্ব করবো যে সে একজন পরহেজগার ব্যাক্তি। এভাবে চিন্তা করতে করতে ইমামে আযম আবু হানিফা রহমাতুল্লাহী আলাই এর কথা মনে পড়ে গেল যে, সবার পরিচিত এক ব্যাক্তি আছে তিনি একজন পরহেজগার ব্যাক্তি।
.
তখন সেই ব্যাক্তি আবু হানিফা রহমাতুল্লাহী আলাই এর মাদরাসার দিকে রওয়ানা দিলেন।
.
তারপরে সেই ব্যাক্তি আবু হানিফা রহমাতুল্লাহী আলাই কে ডেকে বললেন আমি আপনার সাথে বন্ধুত্ব করতে চাই।
.
আর তখন আবু হানিফা রহমাতুল্লাহী আলাই বললেন, হ্যা আমি তোমাকে বন্ধু বানাবো তবে শর্ত আছে।
.
তারপর সে ব্যাক্তি বলল, আমি শর্ত মানে পারবোনা।(কারণ সে ব্যাক্তিটি মদখোর এবং নারীর প্রতি আসক্তি ছিল। এজন্য তিনি শর্ত মানতে পারবেনা।)
.
অনেক্ষণ পর ইমামে আযম আবু হানিফা রহমাতুল্লাহী আলাই বললেন, আচ্ছা শর্ত লাগবেনা। তবে একটি কথা, তুমি কখনো মিথ্যা কথা বলবানা।
.
লোকটি বলল, আচ্ছা এটা ব্যাপার না।
.
ইমামে আযম আবু হানিফা রহমাতুল্লাহী আলাই বলেন, আজ হতে তুমি আমার বন্ধু। তাহলে খোজ খবর বন্ধুর রাখবা এবং আমার কাছে আসবা। ঐ দিন লোকটি বিদায় নিল।
.

ঐ ব্যাক্তি ঐ দিন থেকে তিনি তার বন্ধু বান্ধবদের সাথে কথা বললেন না। তার বন্ধুরা তাকে মত পান করতে বললে তিনি মদ পান করতেছে না। এর কারণ জিজ্ঞাসা করলে বলে, কালকে আমি ইমামে আযম আবু হানিফার সাথে বন্ধুত করেছি এবং বলে আসছি যে জীবনে মিথ্যা বলবোনা। ভাবতেছি যে, আমি যদি তোমাদের সাথে মদ পান করি আর যদি ইমামে আযম আবু হানিফা আমাকে বলে বন্ধু মদ পান করছ কিনা। আমি যদি বলি করি নাই। তাহলে মিথ্যা হয়ে যাবে। তাহলে হাজার হাজার ছাত্রদের মাঝে অসম্মান হবো। কিয়ামতের দিন লক্ষাধিক নবী রাসুলের সামনে আমার এ মিথ্যা সকলে জানবে। তখন কী হবে। আমার ইজ্জত থাকবেনা।
.
তখন সেই ব্যাক্তি বন্ধুদের সামনে ওয়াদা করল যে, আমি আজ থেকে মিথ্যা কথা তো বলবোনা বরং জীবনে আর কোনো খারাপ কাজই করবো না।(আল্লাহু আকবার)
তখন সেই ব্যাক্তি আল্লাহর ওলীতে পরিণত হন। (সুবহানআল্লাহ)
.
এখান থেকে যা শিখতে পারলামঃ
সৎ সঙ্গে সর্ব বাশ, অসৎ সঙ্গে সর্বনাশ।
ভালো মানুষের সাথে ঘুরলে একজন ভালো মানুষ হওয়া যায়।
.
আল্লাহ তায়ালা আমাদের সবাইকে এইরকম শিক্ষণীয় গল্প পড়ে একজন ভালো মানুষ হওয়ার তৌফিক দান করুন। আমিন।

লা হাওলা ওয়ারা ক্বুওয়াতা ইল্লা বিল্লাহ।

Leave a Reply