ল্যাপটপ এর ওয়েবক্যাম গুলো কেন খারাপ কোয়ালিটি দেয়া হয়, বিস্তারিত দেখে নিন।

কেমন আসেন সবাই?
আশা করি সবাই ভাল আছেন।

কারন, আমারটিপ্সর সাথে থাকলে নিত্য নতুন ট্রিক ও টিপস সম্পর্কে ধারনা পাওয়া যায়।

আজকে আপনাদের মাঝে আরেকটি টিপস নিয়ে হাজির হলাম।
টাইটেল দেখে হয়তো অনেকে বুঝে গেছেন, কোনটার বিষয় এ আজ আলোচনা করব।

আজকে আলোচনা করব ল্যাপটপ এর ক্যামেরা নিয়ে।
কেন ল্যাপটপ এর ওয়েনক্যাম গুলো খারাপ কোয়ালিটি হয়।

আমরা যারা ল্যাপটপ ব্যাবহার করি আরা লক্ষ করে দেখবেন যে আমাদের ল্যাপটপ এর ওয়েবক্যাম খারাপ কোয়ালিটি এর।
দামি ল্যাপটপ এর ও ওয়েবক্যাম খারাপ কোয়ালিটি এর হয়।
কেন এমন খারাপ কোয়ালিটি দেয় ল্যাপটপ এর ওয়েবক্যাম এটি নিয়ে আজ আলোচনা করব।

কথা না বাড়িয়ে শুরু করা যাক।

ল্যাপটপ এর ওয়েবক্যাম ২০১০ সালে যেমনটি ছিল এখন ২০২১ সালে ও তেমনি আছে।
এর বড় কারন হলো ইউজেস।

আপনি হয়তো জানেনই যে সাধারনত আমরা কেউই ল্যাপটপের ক্যামেরা ব্যাবহার করি না বললেই চলে। গত কয়েক বছর ধরে, কোনো ল্যাপটপ ইউজার বছরে একবারও তার ল্যাপটপ ওয়েবক্যাম ওপেন করেছেন কিনা তা নিশ্চিতভাবে বলা সম্ভব হবেনা।

এছাড়াও যারা ল্যাপটপ এ ওয়েবক্যাম ব্যাবহার করে জুম মিটিং বা ভিডিও কনফারেন্সে কথা বলে তারা এক্সটার্নাল ক্যামেরা সেটআপ দিয়ে ভাল কোয়ালিটি ভিডিও কনফারেন্স এ কথা বলতে পারে।
এক্সটার্নাল ভাবে ওয়েবক্যাম সেট আপ করা যায় এজন্য আমাদের কোনো অভিযোগ নেই ল্যাপটপ এর ওয়েবক্যাম এর উপর।
এবং প্রযুক্তিবিদরা ও এজন্য ওয়েবক্যাম আগের মতো ই রাখছেন কোয়ালিটি।

আর এই কারণেই ল্যাপটপ ম্যানুফ্যাকচাররা চিন্তা করে যে, সাধারন ল্যাপটপ ইউজারদেরকে ভালো এইচডি বা আলট্রা এইচডি কোয়ালিটির ওয়েবক্যাম দেওয়াটা শুধুমাত্র টাকা এবং রিসোর্সের অপচয় ছাড়া আর কিছুই নয়। কারণ, যে ভালো ওয়েবক্যামের পেছনে তারা এক্সট্রা টাকা খরচ করবে, সেই ওয়েবক্যামটি ইউজার হয়তো কখনো ওপেন করেই দেখবেন না।
আমরা অনেকে তো ল্যাপটপ এর ওয়েবক্যাম খারাপ এজন্য ওপেন ই করি না।

আপনার যদি ল্যাপটপ এর ওয়েবক্যাম খুব দরকার বা প্রয়োজন হয়।
তাহলে এক্সটার্নাল ক্যামেরা বাজারে কিনতে পাওয়া যায়।
এটি আপনি ল্যাপটপ এর সাথে কানেক্ট করে ব্যাবহার করতে পারবেন।

এছাড়া ও এপোল কোম্পানি বর্তমানে বাজারে ভালমানের ওয়েবক্যাম ওয়ালা ল্যাপটপ এনেছে।
আপনি ইচ্ছা করলে এগুলা নিতে পারেন।আপনার যদি ওয়েবক্যাম ব্যবহার করা জরুরি হয়।

একটি এক্সটারনাল হাই কোয়ালিটি ভিডিও ক্যামেরা বা দরকার হলে ডিএসএলআর ক্যামেরাও কানেক্ট করে সেটিকে আপনার ভিডিও ইনপুট ডিভাইস বা ওয়েবক্যাম হিসেবে ব্যবহার করতে পারবেন।

আজ এ পযন্ত,
ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র জ্ঞান আপনাদের মাঝে তুলে ধরার চেস্টা করি।

পরবর্তী ট্রিক এর জন্য অপেক্ষা করুন, আবারো ভাল কিছু নিয়ে হাজির হবো।
সে পযন্ত ভাল থাকুন,সুস্থ থাকুন।

আমার সাথে ফেসবুকে যোগাযোগ করতে চাইলেঃ- Sk Shipon

ধন্যবাদ

Leave a Reply