মসজিদে বাচ্চাদের পিছনের কাতারে যেতে বলায় এক বাবা ও চাচার কথোপকথনে শিক্ষা

আসসালামু আলাইকুম।

এটা সম্পূর্ণ আমার নিজের অভিজ্ঞতা

এবং আমার ব্লগে পূর্বপ্রকাশিত +

  নিচে সম্পূর্ণ পোষ্টের লিংক  দেওয়া রয়েছে  as a Source LINK.

এক চাচা আমার বাড়ির পাশে মসজিদে একটি বাচ্চাকে সামনের কাতার থেকে পিছনের যেতে বলেন । এবং তিনি বলেন সমস্ত বাচ্চারা পেছনের কাতারে চলে যাও ।

এতে ওই ছেলের বাবা এবং উক্ত চাচার মধ্যে যা কথোপকথন হয় তা সরাসরি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম। দেখি এতে যদি আমাদের কোন শিক্ষা/ উপকার হয়:

চাচা:
সামনে যত বাচ্চা আছে সবাই পিছনে যাও।
বাবা:

কেন আমার ছেলে কেন পিছনে যাবে আমাকে বুঝিয়ে বলুন সে তো আমার সাথে দাঁড়িয়েছে আমার ছেলে আমার সাথে দাঁড়াবে এত সমস্যা টা কি?

চাচা:
ও আপনার ছেলে আগে বুঝতে পারিনি।
বাবা: 
আমার ছেলে বলে কথা না । আপনি অন্য যে কোন ছেলের ব্যাপারে এটা কেন বলবেন? বাচ্চারা নামাজে আসবে . তাদেরকে সামনের কাতারে দাঁড়াতে অভ্যাস করানো উচিত।

∆ চাচা:
আচ্ছা আমি আপনার সাথে তর্ক করতে চাচ্ছি না আমার ভুল হয়েছে মাফ করেন।
বাবা:
ভুল হয়েছে বুঝলাম। কিন্তু ভুলটা কেন হল এটা আমাকে একটু বুঝিয়ে বলবেন তো, না বললে আমি শুনবো না এটা বলায় লাগবে। তাছাড়া কোরআন হাদীসে কোথাও তো এ ব্যাপারে নিষেধ নাই।

চাচা:
আসলে আমি মনে করছিলাম যে বাচ্চাটা দুষ্টু ,এদিক ওদিক তাকাচ্ছে, দুষ্টুমি করতে পারে এজন্য আমি পিছনে যাইতে বলছি।

বাবা:
আপনার কথা যদি সঠিক হয়,তাহলে তো বাচ্চাকে অবশ্যই সামনের কাতারে বড়দের সাথে সাথে রাখতে হবে। এতে ওই বাচ্চাটা সামনে থাকলে আর দুষ্টুমি করার সুযোগ পাবে না।অন্যথায় পেছনে গেলে অন্যান্য বাচ্চাদের সাথে মিশে, এর চেয়ে আরো বেশি দুষ্টুমি করতে পারে।

 ফলাফল :  আমি ওই বাচ্চার বাবার প্রতি অনেক অনেক খুশি হয়েছি যে এই মসজিদের  থাকা প্রত্যেকটা ব্যক্তি তার কথা শুনতে পেয়েছে এবং সবাই শিক্ষা পেয়েছে.

মসজিদে বাচ্চা সামনের কাতারে দাঁড়ানোর ও পিছনের কাতারে যেতে বলা প্রসঙ্গে

FULL POST SOURCE LINK

Leave a Reply