অবশেষে সাতমাসের যাত্রার পর মঙ্গল গ্রহের মাটি স্পর্শ করতে সক্ষম হল পারসিভিয়ারেন্স রোভার,এবার আপনিও সঙ্গী হোন এই যাত্রায়

মঙ্গল গ্রহ আমাদের সৌরমণ্ডলের চতুর্থ এবং পৃথিবীর সবচেয়ে নিকটবর্তী গ্রহ।যেটাকে আমরা লাল গ্রহ নামেও চিনি।

মঙ্গল গ্রহে প্রচুর লৌহ পাথরে/কণায় পূর্ণ, আর পাথরগুলো যখন বায়ুর সংস্পর্শে থাকে তখন তা জারিত হয় (মরিচা পড়ে) আর লালচে দেখায়।

সেই লোহার অক্সাইড গুলো ধূলো যখন বায়ুতে ছড়িয়ে যায় তখন মঙ্গলের আকাশ ফ্যাকাশে লাল দেখায়।
আর আমরা অনেকদূর থেকে দেখি বলে পুরো গ্রহটাকে লালচে মনে হয়।

পৃথিবীর সবচেয়ে নিকটবর্তী গ্রহ হওয়ার কারণে এই গ্রহ নিয়ে মানুষের গবেষণার শেষ নেই।

দুঃখজনক হলেও সত্যি, মঙ্গলে পাঠানো নভোযানগুলোর মধ্যে অন্তত দুই-তৃতীয়াংশ নভোযান ব্যর্থ হয়েছে।


কিন্তু অবশেষে সেই ব্যর্থতাকে কাটিয়ে সাত মাসে যাত্রা পর অক্ষত অবস্থায় মঙ্গলের মাটি ছুঁলো মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা’র পারসিভারেন্স রোভার।

বাংলাদেশ সময় শুক্রবার সকালে, গ্রহটির বিষুবরেখা এলাকা কাছে জেজিরো’র কাছে অবতরণ করে রোবটরূপী ছোট্ট মহাকাশযানটি।


এ নিয়ে মহাকাশ ও জ্যোতির্বিজ্ঞান প্রিয়দের উৎসাহ ও আনন্দের কমতি নেই।

এই আনন্দ উৎসবকে আরো একটু রঙ্গিন করতে নাসার ওয়েবসাইটে একটি ফটোবুথ রাখা হয়েছে।

নিজের ছবির সাথে পছন্দের ব্যাকগ্রাউন্ড সিলেক্ট করে পেয়ে যাবেন চমৎকার একটি ছবি।

তাহলে আর দেরি না করে মঙ্গলের সাথে জুড়ে দিন নিজেকে।

প্রথমে নিচের লিংকে ক্লিক করুন,

লিংক:- Nasa

তারপর Screenshot অনুসরণ করুন,






Congratulation!আপনার মিশন মঙ্গল সফল হয়েছে।

পরিশেষে একটি কথা,এটাকে কেউ সিরিয়াসলি নিবেন না।এটা শুধু মজা করার উদ্দেশ্যে তৈরি করা হয়েছে।

সবাই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন আর পোস্টটি ভালো লাগলে লাইক কমেন্ট করবেন, নিয়মিত নামাজ আদায় করবেন|
আল্লাহ হাফেজ

Leave a Reply