ধূমপানের ক্ষতিকর দিক গুলো জেনে নিন,ও ধূমপান বাদ দেয়ার কৌশল। [ part 2-Last Part]

কেমন আছেন সবাই?
আশা করি সবাই অনেক ভাল আছেন।
কারন আমারটিপ্সর সাথে থাকলে নিত্য নতুন ট্রিক ও টিপস সম্পর্কে জানা যায় এবং অনেক বেশি ভাল থাকা যায়।
টাইটেল দেখে হয়তো বুঝে গেছেন আজকে কোন বিষয় নিয়ে পোস্ট করতে যাচ্ছি।
প্রথম পার্টে জানিয়েছি, ধূমপান এর ক্ষতিকর দিকগুলো।
দ্বিতীয় পার্টে জানাব, আপনি ধূমপান কিভাবে বাদ দিবেন,ধূমপান থেকে বেড়িয়ে আসার কিছু কৌশল নিয়ে আলোচনা করব।
যে কৌশল অবলম্বন করলে, আশা করি আপনি ধূমপান বিষপান থেকে বেড়িয়া আসতে পারবেন।
আশা করি এখনো যারা ধূমপান করি,আজকের পোস্ট ফলো করে আমরা ধূমপান বাদ দিব।

ধূমপান অনেক খারাপ একটি জিনিস আমার প্রথম পার্ট পোস্ট দেখলে বুঝতে পারবেন,যে কতটা খারাপ এই ধূমপান করা।
আপনাকে তিলে তিলে মৃত্যুর দিকে নিয়ে যাবে এই ধূমপান।
তাই এখন থেকে সবাই সাবধান হোন।
এবং ধূমপান এখনো বাদ দিন,সময় থাকতে।
আজকে এমন কিছু টিপস দিব, আপনারা যারা ধূমপান করেন, যদি ফলো করতে পারেন তাহলে ধূমপান নেশা থেকে মুক্তি পাবেন।

কথা না বাড়িয়ে শুরু করা যাক,
ধূমপান বাদ দেয়ার কিছু কৌশলঃ

১] আপনি আজ থেকে ই পুরোপুরি প্রস্তুত হন।
আজ থেকে ভাববেন আপনি সিগারেট চেনেন না,জানি কস্ট হবে।
তবুও চেস্টা করবেন, প্রতিজ্ঞা করে নিন।
যে আপনি আজ থেকে সিগারেট স্পর্শ করবেন না। যত কস্ট হয় হোক,আপনি প্রতিজ্ঞা হবে এটাই যে আপনি সিগারেট স্পর্শ করবেন ই না।

২] আপনার আশে পাশে দেখুন, যারা আগে ধূমপান করতো তাদের দেখুন স্বাস্থগত কি পরিবর্তন এসেছে।
এটা লক্ষ্য করুন,এবং ভাবুন যে সে যদি বাদ দিতে পারে আপনি কেন পারবেন না।
এবং ধূমপান এর ক্ষতিকর দিকগুলো ফলো করে ভাবুন একবার, এবং সিগারেট ছুরে ফেলে দিন।

৩] একবার আপনি হিসাব করে দেখুন, সিগারেট এর জন্য আপবার কত টাকা খরচ হচ্ছে।
তার পর ভাবুন ধূমপান ছাড়াটা আপনার জন্য কত টা জরুরি হয়ে দাড়াইছে।এই হিসাব করুন, আপনাকে ধূমপান ছাড়তে বাধ্য করবে।

৪] একদিন ধূমপান না করলে কি হবে, এভাবে এক দিন পর পর ছেড়ে থাকার চেস্টা করুন।
তার পর বাড়িয়ে দিন ৩-৪ দিন তার পর ৫-৭ দিন পর পর এভাবে কিছুদিন পর পর ধূমপান করতে করতে ছাড়ুন।কারন একদিনেই তো আর ধূমপান ছাড়া যায় না।

৫] ধূমপান বিরোধী বা স্বাস্থ সচেতনতামূলক বই পড়তে পারেন, এবং ধূমপান বিরোধী ভিডিও দেখতে পারেন।এতে আপনাক অনেক সাহায্য করবে ধূমপান ছাড়তে।

৬] যে জায়গায় ধূমপান করেন সে জায়গায় থেকে দূরে থাকুন। ধূমপান মুক্ত এলাকা থেকে দূরে থাকুন।
তাই আপনার বেশি মনে পড়বে না ধূমপান করার কথা টা।

৭] আপনার যখন ধূমপান করতে ইচ্ছা হবে, তখন রাস্তা দিয়ে হাটুন বা অন্যান্য কিছু করেন তাহলে আপনার ধূমপান করার ইচ্ছাটা জাগবে না।

৮] সিগারেট ছাড়ার পর আদা,গোলমরিচ,চিংগাম এগুলা চিবাতে পারেন এতে সিগারেট এর নেশা থাকবে না।

৯] ধূমপান করে না এমন লোকদের সাথে বেশি মিশুন।এবং তাদের সাথে ভাল কর্মকান্ডে অংশগ্রহণ করুন।

১০] সর্বশেষ সব ব্যার্থ হলে ডাক্তার এর নিকট যাবেন৷ এবং পরামর্শ নিবেন।

প্রথম পার্ট দেখতে চাইলে নিচের লিংক এ ক্লিক করুনঃ

ধূমপানের ক্ষতিকর দিক গুলো জেনে নিন,ও ধূমপান বাদ দেয়ার কৌশল। [ part 1]

আজ এ পযন্ত,
ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র জ্ঞান আপনাদের মাঝে তুলে ধরার চেস্টা করি।
পরবর্তী ট্রিক এর জন্য অপেক্ষা করুন, আবারো ভাল কিছু নিয়ে হাজির হবো।
সে পযন্ত ভাল থাকুন,সুস্থ থাকুন।

যে কোনো প্রয়োজনে আমার সাথে ফেসবুকে যোগাযোগ করতে চাইলেঃ- Sk Shipon

ধন্যবাদ

Leave a Reply