[For PC] সাবধান!!! ক্র্যাক সফটওয়্যার ডাউনলোড করতে গিয়ে ভাইরাস ডাউনলোড করে ফেলছেন না তো? খুবই জরুরি একটি পোস্ট।

আসসালামু আলাইকুম।আশা করি সবাই ভালো আছেন।আমিও ভালো আছি।

আমরা অনেকেই পিসি ইউজ করার সময় সফটওয়্যার কিনে ব্যবহার করতে চাই না।ফলে আমরা ক্র‍্যাক ফাইল ডাউনলোড করতে যাই।অনেক সময় pro software ক্র‍্যাক করে ডাউনলোড করতে সক্ষম ও হই তবে এখানেই থাকতে পারে ভয়ানক একটি হ্যাকিং ফাঁদ! সাধারণত বর্তমানে ক্র্যাক ফাইলের মাধ্যমেই এ ভাইরাস সরবরাহ করা হয়।

ক্র‍্যাক ফাইল ডাউনলোড করে ইনস্টল সাথে সাথে আপনার পিসিতে ইনস্টল হয়ে যাবে ভাইরাস যা আপনার পিসির সকল গোপনীয়, প্রয়োজনীয় ফাইল নষ্ট করে দিতে পারে।

কারণ এই ভাইরাসের সাথে দেয়া থাকে একটি পারমিশন যা আপনার পিসির ফাইল ইনকোডেড বা Encrypt করে দেয়ার ক্ষমতা রাখে। ফলে আপনি চিরতরে হারাতে পারেন আপনার সকল জমিয়ে রাখা ফাইলস।তারা এমন একটি কোড দিয়ে আপনার ফাইল আটকে রাখবে,যা আপনি তাদের দেয়া কোড ছাড়া Decryptবা খুলতে পারবেন না।

দুর্ভাগ্যবশত আমার পিসি ও এই ভাইরাস দ্বারা আক্রান্ত হয়েছিল  ,যা Ransomware নামে পরিচিত। এই ভাইরাসে আক্রান্ত হলে ফাইলের শেষে একটি কোড দেয়া থাকে ।যার কারণে আপনার ফাইল আটকে থাকে এবং তা ওপেন করা যায়না।

এ ফাইলগুলো নিম্নলিখিত ফরম্যাটের মতো Encrypted হয়ে থাকে।

.shadow, .djvu, .djvur, .djvuu, .udjvu, .uudjvu, .djvuq, .djvus, .djvur, .djvut, .pdff, .tro, .tfude, .tfudet, .tfudeq, .rumba, .adobe, .adobee, .blower, .promos, .promoz, .promorad, .promock, .promok, .promorad2, .kroput, .kroput1, .pulsar1, .kropun1, .charck, .klope, .kropun, .charcl, .doples, .luces, .luceq, .chech, .proden, .drume, .tronas, .trosak, .grovas, .grovat, .roland, .refols, .raldug, .etols, .guvara, .browec, .norvas, .moresa, .vorasto, .hrosas, .kiratos, .todarius, .hofos, .roldat, .dutan, .sarut, .fedasot, .berost, .forasom, .fordan, .codnat, .codnat1, .bufas, .dotmap, .radman, .ferosas, .rectot, .skymap, .mogera, .rezuc, .stone, .redmat, .lanset, .davda, .poret, .pidom, .pidon, .heroset, .boston, .muslat, .gerosan, .vesad, .horon, .neras, .truke, .dalle, .lotep, .nusar, .litar, .besub, .cezor, .lokas, .godes, .budak, .vusad, .herad, .berosuce, .gehad, .gusau, .madek, .darus, .tocue, .lapoi, .todar, .dodoc, .bopador, .novasof, .ntuseg, .ndarod, .access, .format, .nelasod, .mogranos, .cosakos, .nvetud, .lotej, .kovasoh, .prandel, .zatrov, .masok, .brusaf, .londec, .krusop, .mtogas, .nasoh, .nacro, .pedro, .nuksus, .vesrato, .masodas, .cetori, .stare, .carote ইত্যাদি

এরকম যদি আপনার ফাইল ইনকোডেড হয়ে যায় এবং আর ওপেন না হয় তাহলে আপনি ধরে নিতে পারেন আপনার পিসিটি ভাইরাস আক্রান্ত হয়েছে।

আমার ফাইলস যে ভাইরাস দ্বারা আক্রান্ত হয়েছিলো তার শেষে .YGKZ লেখা ছিল।এভাবে সকল ফাইলের শেষে  .YGKZ  হয়ে সব ফাইল encrypt হয়ে গিয়েছিলো।এরপর আমার হারডডিস্ক ফরম্যাট দিয়ে নতুন করে উইন্ডোজ দেয়া ছাড়া আর উপায় ছিলো না।

আর প্রতিটি ফোল্ডারে নিচের মতো একটি txt ফাইল ক্রিয়েট হয়েছিল।

এভাবে একটি হ্যাকার গ্রুপ আমার কাছে টাকা চেয়েছিলো কিন্তু কিছু করার ছিলো না। আর ফাইলগুলো নিচের মতো হয়ে গিয়েছিলোঃ

দেখুন এভাবে সকল ফাইল YGKZ এ Encrypt হয়ে গিয়েছিলো।যার ফরম্যাট রিমুভ দিয়ে সেইভ করলেও ফাইল ওপেন হবেনা। আর উপরের মেসেজটি তো দেখেছেনই।তারা বলছে যে তারা ফাইল ফিরিয়ে দিবে যদি তাদের নির্দিষ্ট এমাউন্ট ডলার পে করা হয়।কিন্তু সাবধান! কেউ এ  ফাঁদে পা দেবেন না। কারণ অতগুলো টাকা পে করলেও তারা কখনো আপনার ফাইল ফিরিয়ে দেবে না।

কেউ যদি কোনোভাবে এ ভাইরাসে আক্রান্ত হন তাহলে ফাইল রিকভারি/decrypt করা ছাড়া উপায় নেই।

ভাইরাসে আক্রান্ত হলে সবার প্রথম আপনার কাজ হলো ভাইরাস ফাইলগুলো রিমুভ করা।এক্ষেত্রে Malwarebytes  এন্টিভাইরাস টি কাজে দেয়।

এছাড়া ফাইল রিকভারি করার জন্য Recuva ব্যবহার করতে পারেন।এতে করে কিছু ফাইল ফিরিয়েও আনতে পারেন।

আর ফাইল decrypt এর জন্য  Emisoft এর Decryption tool কাজে দিতেও পারে।

তবে সব ফাইল ফিরিয়ে আনার গ্যারান্টি দিতে পারছি না। সবচেয়ে ভালো হয় নতুন করে উইন্ডোজ দিয়ে ফাইল রিকভারি করলে। কারণ কোনজায়গায় এ ভাইরাস লুকায়িত থাকে তা সব এন্টিভাইরাস ডিটেক্ট করতে পারেনা।তাই নতুন করে উইন্ডোজ ইনস্টল করাই ভালো।

এ তো গেল প্রতিকার।এবার প্রতিরোধ জানা যাক।সফটওয়্যার যথাসম্ভব ক্রয় করে ব্যবহার করবেন। প্রো সফটওয়্যার ব্যবহার করতে গিয়ে পিসিকে ঝুঁকিতে ফেলতে যাবেন না।তারপরেও যদি ক্র্যাক ফাইল ডাউনলোড করার প্রয়োজন হয় তাহলে  Sadeempc বিশ্বাসযোগ্য।

 

এখান থেকে ক্র্যাক করা সফটওয়্যার ডাউনলোড করতে পারেন।  আর কখনো পিসির উইন্ডোজের সাথে থাকা এন্টিভাইরাস,ফায়ারওয়্যাল ডিজেবল করবেন না ক্র্যাক ফাইল ডাউনলোড করতে গিয়ে।এভাবে সকল সিকিউরিটি নিশ্চিত করে নিবেন আপনার পিসির। এরপর ও যদি ক্র্যাক ফাইল ইনস্টল দেয়া যায় তাহলে ইনস্টল দিবেন।অন্যথায় নয়।

মনে রাখবেন ,আপনার পিসির সিকিউরিটি নিশ্চিত করা আপনার দায়িত্ব।

আজকে এই পর্যন্তই।

পোস্টটি ভালো লাগলে ঘুরে আসতে পারেন আমাদের সাইট ঃ Tipsnewsbd

সবাই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন।আল্লাহ হাফেজ।

Leave a Reply