ব্রন হলে যে কাজগুলো কখনো করবেন না,জেনে নিন।

আশা করি সবাই ভাল আছেন, প্রতিবারের মতো আবারো আরেকটা আর্টিক্যাল নিয়ে হাজির হয়েছি আপনাদের মাঝে। টাইটেল দেখে সবাই হয়তো বুঝে গেছেন,আজকে কোন আর্টিক্যাল টা নিয়ে লিখতে বসেছি। আজকের আর্টিক্যাল এর বিষয় ব্রন হলে কোন কাজ গুলো করা উচিৎ না। ববয়ঃসন্ধি কালে ব্রন ওঠাই স্বাভাবিক। ছেলে -মেয়ে সকলের ব্রন ওঠাই স্বাভাবিক। কিন্তু যখন আমাদের ব্রন ওঠে তখন আমরা বিভিন্ন চিন্তাভাবনায় পড়ে যাই।এবং বিভিন্ন কিছু ব্যাবহার করি ব্রন দূর করার জন্য। কিন্তু আসলে এসব করা উচিৎ না। কারন এতে আরো বেশি সমস্যা হতে পারে। এবং ব্রন আরো বেড়ে যেতে পারে।তাই আমাদের সাবধান ও সতর্ক হতে হবে।
সাধারণত বয়স একটু বাড়ার সাথে সাথে ব্রন উঠতে পারে। পরিস্কার ও পরিচ্ছন্ন থাকতে হবে এ সময়। আরো বিভিন্ন দিক আছে,যেগুলো আমাদের মেনে চলা উচিৎ এ সময়। ব্রন উঠলে বিভিন্ন আজে বাজে কসমেটিক ব্যাবহার না করে,ডাক্তার এর থেকে পরামর্শ নেয়া টা অনেক ভাল। এতে করে সঠিক পরামর্শ পাওয়া যাবে।
কথা না বাড়িয়ে শুরু করা যাক,ব্রন হলে যে কাজগুলো করা উচিৎ নাঃ

১] ব্রন হলে কখনো সেই স্থানে চুলকাবেন না। কারন সেখানে চুলকালে ব্রন আরো বেড়ে যাবে।এবং আরো অনেক সমস্যা দেখা দিবে। এবং ব্রন হলে কখনো টিপ দিয়ে হুল বের করার চেস্টা করবেন না।এতে মুখ এর অনেক বড় সমস্যা হতে পারে এবং কালো দাগ ও হতে পারে। ব্রন হলে এদিকে সব সময় খেয়াল রাখতে হবে।

২] খুশকি থেকে ও অনেক সময় ব্রন দেখা দিতে পারে। তাই খুশকি হলে এই খুশকি দূর করার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা নিতে হবে। কখনো খুশকি নিয়ে বসে থাকা উচিৎ না। দরকার হলে ডাক্তার এর কাছে যেতে হবে। এবং ডাক্তার এর পরামর্শ নিতে হবে।

৩] ব্রন হলে মেয়েদের ক্ষেত্রে মেকাপ করা থেকে বিরত থাকুন।কারন এই মেকাপ করলে ব্রন আরো বেড়ে যেতে পারে ও দীর্ঘস্থায়ী হতে পারে।তাই খেয়াল রাখতে হবে, যে মেয়েদের ব্রন সে মেয়েদের কখনো মেকাপ করা উচিৎ না।

৪] যাদের ব্রন তাদের মুখ বার বার পানি দিয়ে ধোয়া উচিৎ না।কারন বার বার মুখ ধুলে ব্রন এর প্রকোপ বেড়ে যায়। তাই আমাদের মধ্য যাদের ব্রন এর সমস্যা আছে,তারা দিনে অন্তত একবার ঠান্ডা পানি দিয়ে মুখ ধোয়া উচিৎ, বার বার মুখ ধোয়া থেকে বিরত থাকতে হবে।

৫] ব্রনের স্থানে কসমেটিক থেকে পাওয়া যায়,এরকম ক্রিম ব্যাবহার করা থেকে বিরত থাকুন। কারন এসব ক্রিম ব্যাবহার করলে ব্রন আরো বেড়ে যায়। তাই খেয়াল রাখতে হবে এসব কসমেটিক ক্রিম না ব্যাবহার করাই ভাল। প্রয়োজন হলে ঘরের পেস্ট লাগাতে পারেন।

৬] ব্রন হলে কখনো টেনশন করবেন না,কারন অতিরিক্ত টেনশন করলে ব্রন এর মাত্রা আরো বেড়ে যায়। তাই আমাদের মধ্য যাদের ব্রন, তাদের কখনো ব্রন নিয়ে টেনশন করা উচিৎ না। প্রয়োজনে ভাল ডাক্তার এর থেকে পরামর্শ নিতে পারেন।

আশা করি আজকের পোস্ট থেকে আপনাদের একটু হলেও উপকার হয়েছে। যাদের ব্রন সমস্যা আছে, তারা আজকের পোস্ট টা ফলো করলে আপনাদের অনেক উপকার হবে। এবং উক্ত নিয়মগুলো সবাই মেনে চলার চেস্টা করুন।

সুত্রঃ সংবাদ প্রতিদিন।

টেকনিক্যাল বিষয়ে যাবতীয় ভিডিও ও সমাধান পেতে আমাদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুনঃ

Youtube Channel

আজ এ পযন্ত,
ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র জ্ঞান আপনাদের মাঝে তুলে ধরার চেস্টা করি।
পরবর্তী ট্রিক এর জন্য অপেক্ষা করুন, আবারো ভাল কিছু নিয়ে হাজির হবো।
সে পযন্ত ভাল থাকুন,সুস্থ থাকুন।

যে কোনো প্রয়োজনে আমার সাথে ফেসবুকে যোগাযোগ করতে চাইলেঃ- Sk Shipon

ধন্যবাদ

Leave a Reply