জান্নাতের আটটি দরজা সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিন।

আসসালামুআলাইকুম।আশা করি সবাই অনেক ভাল আছেন।প্রতিবারের মতো আবারো আপনাদের মাঝে আরেকটি আর্টিক্যাল নিয়ে হাজির হলাম।টাইটেল দেখে অনেকে হয়তো বুঝে গেছেন, আজকে কোন বিষয় আপনাদের মাঝে লিখতে যাচ্ছি। আজকের বিষয় হলো,জান্নাত এর আটটি দরজা সম্পর্কে বিস্তারিত। একজন মুমিন বান্দার জন্য সর্বশ্রেষ্ঠ গন্তব্য হলো জান্নাত। আমরা মুসলমান আমরা পৃথিবীতে আসছি, আমাদের অবশ্যই মৃত্যুবরন করতে হবে।মৃত্যুর পর জান্নাত-জাহান্নাম নির্ধারিত হবে। জান্নাত হলো চির শান্তির স্থান, অপরদিকে জাহান্নাম কঠিন আজাব এর স্থান।আমাদের মুল লক্ষ্য, আল্লাহকে খুশি করা ও নবী-রাসুলদের পথ অনুযায়ী চলা। তাহলে আমাদের জন্য থাকবে চির শান্তির স্থান জান্নাত। জান্নাত এর কাজের ভিত্তিতে চিন্ন ভিন্ন স্তর রয়েছে। জান্নাত এর আটটি দরজা রয়েছে,আজকে এই জান্নাত এর আটটি দরজা সম্পর্কে বিস্তারিত জানাব আপনাদের। এই জান্নাত এর দরজা গুলোর সম্পর্কে সহীহ বুখারী সাওম অধ্যায় থেকে ও আরো বিভিন্ন জায়গা থেকে জেনে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে। কথা না বাড়িয়ে শুরু করা যাক, জান্নাত এর আটটি দরজা গুলোর সম্পর্কে বিস্তারিতঃ

১) বাব আত-তওবা( ক্ষমা পার্থনের দরজা)-

কোনো মুসলমান বান্দা যদি নিজের ভুল বুঝতে পারে,এবং সে ভুলের জন্য ক্ষমা পার্থনা করে,তাদের জন্য এই দরজার নাম করন করা হয়েছে। আল্লাহ অনেজ বান্দাকে ক্ষমা করে দেয়,ক্ষমা পার্থনের জন্য।

২) বাব আত-রাযিয়িন( সন্তুষ্টদের দরজা)-

আল্লাহ যাদের উপর সন্তুষ্ট করেছেন,এবং আল্লাহর উপর যারা সন্তুষ্ট , তাদের সম্মানে এই দরজার নাম করন করা হয়েছে।

৩) বাব আত-কাযিমিন( রাগ দমনকারীদের জন্য)-

যারা লোকদের ভুলকে ক্ষমা করে দিয়ে থাকেন,ও রাগকে দমন করে,তাদের সম্মানের জন্য এই দরজার নামকরণ করা হয়েছে।

৪)বাব আল-ঈমান( ঈমানের দরজা)-

যাদের কোনো পাপ নেই,এবং যারা বিনা হিসাবে জান্নাতে যাবে তাদের জন্য এই দরজা নির্ধারন করা হয়েছে।

৫) বাব আস-সদাকা( দানের দরজা)-

অনেক গরীব-দুঃখি মানুষদের যারা সাহায্য করছে ও মানুষদের যারা দান করছে, তাদের সম্মানের জন্য এই দরজার নাম করণ করা হয়েছে।

৬) বাব আর-রাইয়ান( সাওমের দরজা)-

যারা আল্লহর ইবাদত বান্দেগী করেন ও সাওম পালন করে, তাদের জন্য এই দরজার নাম করণ করা হতেছে।

৭) বাব আল-জিহাদ( জিহাদের দরজা)-

যারা আল্লহর পথে তার জীবন ও সম্পদ দিয়ে সংগ্রাম করে গেছেন,তাদের সম্মানের জন্য এই দরজার নামকরণ করা হয়েছে।

৮) বাব-আস-সালাহ( সালাতের দরজা)-

যারা আন্তরিকতার সহিত আল্লাহর পথে চলছেন।যারা নিয়মির সালাত আদায় করছেন,তাদের সম্মানের জন্য এই নাম নির্ধারন করা হয়েছে।

টেকনিক্যাল বিষয়ে যাবতীয় ভিডিও ও সমাধান পেতে আমাদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুনঃ

Youtube Channel

আজ এ পযন্ত,
ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র জ্ঞান আপনাদের মাঝে তুলে ধরার চেস্টা করি।
পরবর্তী আর্টিক্যাল এর জন্য অপেক্ষা করুন, আবারো ভাল কিছু নিয়ে হাজির হবো।
সে পযন্ত ভাল থাকুন,সুস্থ থাকুন।

যে কোনো প্রয়োজনে আমার সাথে ফেসবুকে যোগাযোগ করতে চাইলেঃ- Sk Shipon

ধন্যবাদ

Leave a Reply