পবিত্র রমযান মাসে ইফতারের তালিকায় রাখবেন বেলের শরবত,কেন? বেলের উপকারীতা গুলো জেনে নিন।

আসসালামুআলাইকুম।আশা করি সবাই অনেক ভাল আছেন।প্রতিবারের মতো আবারো আপনাদের মাঝে আরেকটি আর্টিক্যাল নিয়ে হাজির হলাম।টাইটেল দেখে অনেকে হয়তো বুঝে গেছেন, আজকে কোন বিষয় আপনাদের মাঝে লিখতে যাচ্ছি। আজকের বিষয় হলো,বেলের শরবতের উপকারীতা।বেল সেই প্রাচীনকাল থেকে উপকারী ফল হিসাবে খাওয়া হয়ে থাকে৷ বেলে রয়েছে অনেক পুস্টিগুন। তাই পবিত্র ইফতার এর সময় বেল এর শরবত খাওয়া উচিৎ।এই বেলে রয়েছে অ্যান্টি এক্সিডেন্ট। ১০০ গ্রাম বেলে পাবেন,

পটাশিয়ামঃ ৬০০ মিঃগ্রাম,
ক্যালসিয়ামঃ ৮৫ মিঃগ্রাম,
ভিটামিন-সিঃ ৬০ মিঃগ্রাম,
ভিটামিন-এঃ ৫৫ মিঃগ্রাম,
ফ্যাটঃ ০.৩ গ্রাম,
কার্বোহাইডেটঃ ৩১.৮ গ্রাম,
প্রোটিনঃ১.৮ গ্রাম।

বুঝলেন তো বেলে অনেক উপকারী পুস্টিউপাদান রয়েছে।

এবার শুরু করা যাক, বেলের শরবত এ কি কি উপকাতা রয়েছেঃ

১) আমাশয় কমায়ঃ

বেলে অনেক পুস্টিউপাদান রয়েছে। যাদের আমাশয় রয়েছে তারা কচিবেল কেটে টুকরো করে,পানিতে ভিজিয়ে রাখুন।সেই পানি সকালে সেকে খাবেন,তাহলে আমাশয় থেকে মুক্তি পাবেন।

২) ব্লাড প্রেসারঃ

এই বেল এর শরবত খেলে ব্লাড প্রেসার নিয়ন্ত্রন রাখে। যাদের ব্লাড প্রেসার রয়েছে তারা বেল খেতে পারেন, ইফতার এর তালিকায় বেল এর শরবত রাখতে পারেন।

৩) লিভারের যত্নেঃ

লিভার ভাল রাখতে বিটা ক্যারোটিন প্রচুর ভুমিকা পালন করে। এই বেলে রয়েছে বিটা ক্যারোটিন। এছাড়া ও লিভার ভাল রাখতে থিয়ামিন ও ভুমিকা পালন করে।এই বেলে এই উপাদান গুলো রয়েছে।তাই লিভার ভাল রাখতে বেল এর শরবত বা বেল খেতে পারেন। পবিত্র রমযান মাসে ইফতারের তালিকায় বেল এর শরবত রাখতে পারেন।

৪)এনার্জি বাড়ায়ঃ

বেল এনার্জি বাড়াতে প্রচুর সাহায্য করে।কারন একটি ১০০ গ্রাম বেল এ ১৪০ ক্যালরি এনার্জি পাওয়া যায়।বেলে রয়েছে প্রটিন, যা এনার্জি বাড়াতে প্রচুর সাহায্য করে। যাদের এনার্জি বাড়ানো দরকার,তারা বেল এর শরবত খেতে পারেন।

৫) রক্ত শুদ্ধ করেঃ

রক্ত আমাদের দেহের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের শরীরের রক্ত শুদ্ধ করতে বেল প্রচুর ভুমিকা পালন করে।

৬) ম্যালেরিয়া কমায়ঃ

ম্যালেরিয়া কমাতে বেল প্রচুর ভুমিকা পালন করে। ম্যালেরিয়া কমানোর জন্য,কাচা বেল গুড়ো করে নিন।এবার ১ চামচ বেল এর গুড়োর সাথে তুলসীর রস মিশিয়ে নিন।এটি দিনে দুবার খাবেন।ভাল ফল পাবেন।

৭) ক্যান্সার থেকে দূরে রাখেঃ

ক্যান্সার কিন্তু ভয়াবহ একটি মরণব্যাধি। এই বেল কিন্তু ক্যান্সার থেকে দূরে রাখে।বেলে রয়েছে অ্যান্টি প্রলেফিরেটিভ,ও অ্যান্টি মুটাজেন। যা ক্যান্সার থেকে দূরে রাখে। তাই নিয়মিত বেল খাওয়ার অব্যাস করুন।

৮) স্কার্ভি কমায়ঃ

স্কার্ভি হলো দাতের রোগ, ভিটামিন-সি এর অভাবে এই রোগ হয়ে থাকে। বেলে রয়েছে ভিটামিন-সি,যা স্কার্ভি রোগ থেকে দূরে রাখে।

৯) যক্ষা কমায়ঃ

পাকা বেলে রয়েছে অ্যান্টি মাইক্রোবায়াল,যা যক্ষা কমাতে সাহায্য করে। তাই বেলের শরবত খেতে পারেন। যাদের যক্ষা সমস্যা,তারা বেল খেতে পারেন।

১০) ডায়াবেটিস কমায়ঃ

পাকা বেলে রয়েছে মেথানল উপাদান। যাদের ডায়াবেটিস রয়েছে,তারা বেল ও বেলের শরবত খেতে পারেন। ভাল ফলাফল পাবেন।

১১) কোষ্ঠকাঠিন্য কমায়ঃ

পেট পরিস্কার করতে বেল প্রচুর ভুমিকা পালন করে। যাদের কোষ্ঠকাঠিন্য সমস্যা যাদের আছে, তারা বেল এর শরবত খেতে পারেন। এছাড়া ও বেল মল পরিস্কার করতে সাহায্য করে। তাই যাদের কোষ্ঠকাঠিন্য সমস্যা আছে তারা বেল এর শরবত খেতে পারেন।

বেলের উপকারীতা তো জানলেন, তাই এই পবিত্র রমযান মাসে,বেল এর শরবত রাখতে পারেন।

টেকনিক্যাল বিষয়ে যাবতীয় ভিডিও ও সমাধান পেতে আমাদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুনঃ

Youtube Channel

আজ এ পযন্ত,
ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র জ্ঞান আপনাদের মাঝে তুলে ধরার চেস্টা করি।
পরবর্তী আর্টিক্যাল এর জন্য অপেক্ষা করুন, আবারো ভাল কিছু নিয়ে হাজির হবো।
সে পযন্ত ভাল থাকুন,সুস্থ থাকুন।

যে কোনো প্রয়োজনে আমার সাথে ফেসবুকে যোগাযোগ করতে চাইলেঃ- Sk Shipon

ধন্যবাদ

Leave a Reply