Home Login Register
Click here to share any of your writing

ওয়ার্ডপ্রেস সম্পর্কে আপনার যা কিছু জানা দরকার । ৫ মিনিটের ক্র্যাশ কোর্স !!

Home / ওয়ার্ডপ্রেস / ওয়ার্ডপ্রেস সম্পর্কে আপনার যা কিছু জানা দরকার । ৫ মিনিটের ক্র্যাশ কোর্স !!

Ràkíb › 1 month ago

ওয়ার্ডপ্রেস কি ??

ওয়ার্ডপ্রেস হচ্ছে একটি কন্টেন্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (CMS-Content Management System) । ওয়ার্ডপ্রেস এমন একটি প্ল্যাটফর্ম যেখানে আপনি কোডিং দক্ষতা ছাড়াই যেকোন প্রফেশনাল ওয়েবসাইট তৈরি করতে এবং মেইনটেইন করতে পারবেন । ওয়ার্ডপ্রেস দ্বারা আপনি খুব সহজেই ওয়েবসাইটের যেকোন কন্টেন্ট কাস্টমাইজ করতে পারবেন ।

ওয়ার্ডপ্রেস সর্বপ্রথম Matt Mullenweg এবং Mike Little তৈরি করেন ২০০৩ সালে । শুরুর দিকে এটা দিয়ে শুধুমাত্র ব্লগ ওয়েবসাইট তৈরি করা হতো, কিন্তু এখন ওয়ার্ডপ্রেস এমন একটি পাওয়ারফুল টুল হয়েছে যেটা দিয়ে অলমোস্ট যেকোন ধরণের ওয়েবসাইট তৈরি করা যায় ।

WordPress.com এবং WordPress.org এই দুই রুপে ওয়ার্ডপ্রেসকে পাওয়া যায় । WordPress.com এ আপনি খুব সহজেই একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে এবং হোস্ট করে ফেলতে পারবেন কিন্তু এটাতে কিছু লিমিট রয়েছে যেমন আপনি কাস্টম থিম বা প্লাগিন ইউজ করতে পারবেন না এবং আরও কিছু কাজ আপনি WordPress.com এ করতে পারবেন না । অন্যদিকে WordPress.org অনেক বেশি পাওয়ারফুল প্ল্যাটফর্ম যেখানে আপনি ওয়ার্ডপ্রেসের সবগুলো সুবিধাই অ্যাক্সেস করতে পারবেন । তাই এই আর্টিকেলে আমরা WordPress.org এর উপরেই ফোকাস করব ।

কেন আপনি ওয়ার্ডপ্রেস ব্যাবহার করবেন ??

প্রথমত ওয়ার্ডপ্রেস হচ্ছে একটি ওপেন সোর্স সফটওয়্যার যা যে কেউ ফ্রীতেই ব্যাবহার করতে এবং মডিফাই করতে পারবেন । ওয়ার্ডপ্রেস কমিউনিটি টীম প্রতিদিনই ওয়ার্ডপ্রেসকে আরও উন্নত করার জন্য কাজ করছেন । ওয়ার্ডপ্রেসের ইউজার ইন্টারফেস একদমই ইউজার ফ্রেন্ডলি । ওয়ার্ডপ্রেসে একটি ওয়েবসাইট তৈরির জন্য যা যা লাগে সব আছে । অনেক ফ্রী টুলস এবং লো কস্ট টুলস ওয়ার্ডপ্রেসের জন্য তৈরি করা হয়েছে । আপনি যদি কোডিং জানেন তাহলে কোডিং করেও আপনি ওয়ার্ডপ্রেসকে কাস্টমাইজ করতে পারবেন ।

দুনিয়ার সকল ওয়েবসাইটের ২৮ পারসেন্ট ওয়েবসাইট ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে তৈরি করা হয় ।

ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে আপনি একটি সিম্পল ব্লগ তৈরি করতে পারবেন এবং আপনি চাইলে ই-কমার্স সাইট সহ যেকোন বড় ধরণের ওয়েবসাইটও তৈরি করতে পারবেন । ওয়ার্ডপ্রেস ব্যাবহার করার সবচেয়ে বড় কারণ হচ্ছে ওয়ার্ডপ্রেস নিয়ে ইন্টারনেটে ডকুমেন্টেশনের অভাব নেই । ওয়ার্ডপ্রেসের কোন কাজে আটকে গেলে জাস্ট ইন্টারনেটে সার্চ করবেন দেখবেন কেউ এই কাজটা কেউ আগেই করে রেখেছে এবং আপনি সেখান থেকে সহজেই হেল্প নিতে পারবেন ।

ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে আপনি কি কি করতে পারবেন ??

ওয়ার্ডপ্রেস শুরু হয়েছিল ব্লগ ওয়েবসাইট তৈরির জন্য । তাই নিঃসন্দেহে ওয়ার্ডপ্রেসে ব্লগ ওয়েবসাইটের জন্য সুপার কিছু সুবিধা রয়েছে । কিন্তু এখন ওয়ার্ডপ্রেস শুধুমাত্র ব্লগ ওয়েবসাইটের জন্যই ব্যাবহার হয় না । ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে সবধরনের ওয়েবসাইট তৈরি করা সম্ভব যা আপনি কল্পনা করতে পারেন ।

ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে কি কি ধরণের ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারবেন তার একটি ছোট লিস্ট নিচে দেওয়া হলো ঃ-

অনলাইন পোর্টফোলিও অ্যাফিলিয়েট ওয়েবসাইট নিউজ সাইট ই-কমার্স স্টোর কমিউনিটি হাব ব্যাবসায়িক ওয়েবসাইট ইত্যাদি ইত্যাদি … ।

ওয়ার্ডপ্রেস কাস্টমাইজেশন

ওয়ার্ডপ্রেস একটি পাওয়ারফুল প্ল্যাটফর্ম হওয়া সত্ত্বেও এখানে ওয়েবসাইট তৈরির জন্য কিছু বেসিক কনসেপ্ট রয়েছে । কিন্তু আপনি যদি এইচটিএমএল সিএসএস এবং হালকা কিছু জাভাস্ক্রিপ্ট পারেন তাহলে আপনি আপনার ওয়েবসাইট আপনার মত করে সাজাতে পারবেন । আপনার যদি কোডিং দক্ষতা না থাকে তাহলেও সমস্যা নেই, ওয়ার্ডপ্রেস কাস্টমাইজেশনের জন্য প্রচুর পরিমাণ থিম এবং প্লাগিন রয়েছে ।

থিম হচ্ছে আপনার ওয়েবসাইটের চেহারা । আপনি ইচ্ছা করলে ইন্টারনেট থেকে থিম ডাউনলোড ও ইন্সটল করে আপনার পছন্দমত ওয়েবসাইটের চেহারা পরিবর্তন করতে পারবেন । কিছু কিছু থিম রয়েছে যেগুলো আপনি আপনার ওয়েবসাইট ক্যাটাগরি অনুযায়ী কাস্টমাইজ করে নিতে পারবেন । এগুলোকে জেনারেল থিম বলে । আবার কিছু পার্টিকুলার থিম রয়েছে যেগুলো বিভিন্ন ধরণের ক্যাটাগরির উপর ফোকাস করে তৈরি করা হয়েছে । ব্লগ, অনলাইন-স্টোর, পোর্টফোলিও, ই-কমার্স ইত্যাদি ক্যাটাগরির জন্য আলাদা আলাদা থিম রয়েছে । যেকোন থিম আপনি আপনার মত কাস্টমাইজ করে আপনার ওয়েবসাইটের ইউনিক লুক দিতে পারেন ।

আর প্লাগিন ব্যাবহার করে আপনি আপনার ওয়েবসাইটে বাড়তি ফিচার্স বা ফাংশনালিটি যোগ করতে পারবেন । কিছু কিছু সিম্পল প্লাগিন রয়েছে যেগুলো দ্বারা শুধুমাত্র একটি মাত্র সুবিধা যোগ করতে পারবেন । যেমন ঃ- কনটাক্ট ফর্ম, ইমেজ গ্যালারী ইত্যাদি ।
প্লাগিন ইউজ করে আপনি যা যা করতে পারবেন ঃ-

স্টোরফ্রন্ট তৈরি সিকিউরিটি উন্নয়ন সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন ফোরাম বা উইকি তৈরি ইত্যাদি ইত্যাদি ।

অনলাইনে এমন অনেক ওয়েবসাইট রয়েছে যেখানে আপনি ওয়ার্ডপ্রেস থিম এবং প্লাগিন পাবেন । আপনি যদি ওয়ার্ডপ্রেসে নতুন হয়ে থাকেন তাহলে আমরা আপনাকে রিকম্মেন্ড করব ওয়ার্ডপ্রেসের অফিসিয়াল থিম ডিরেক্টরি এবং প্লাগিন ডিরেক্টরি থেকে ঘুরে আসতে ।

কিভাবে ওয়ার্ডপ্রেসে শুরু করবেন ??

 

আশা করি বুঝতে পেরছেন ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য ওয়ার্ডপ্রেস কতটা ইফেক্টিভ । এখন কিভাবে শুরু করে দিবেন তা দেখুন ঃ-

১। ডোমেইন নির্বাচন করা

প্রথমেই আপনাকে একটি ডোমেইন নেইম রেজিস্ট্রেশন করে নিতে হবে । ডোমেইন নেইম হচ্ছে আপনার ওয়েবসাইটের নাম বা আপনার ওয়েবসাইটের ইউনিক ঠিকানা । ডোমেইন নেইম কিনার সময় ইউনিক এবং ভিজিটররা যাতে সহজেই মনে রাখতে পারে তেমন নাম নির্বাচন করবেন । আপনার পছন্দের ডোমেইন নেইম যদি এভেইলেবল হয় তাহলে আপনি ওয়েব হোস্টিং কম্পানি থেকে ডোমেইন নেইম কিনতে পারবেন ।

২। হোস্টিং কেনা

হোস্টিং হচ্ছে একটি ওয়েব সার্ভার যেখানে আপনার ওয়েবসাইটের সকল ফাইল এবং ডাটা সংরক্ষিত থাকবে । হোস্টিংয়ে সংরক্ষিত ডাটা ভিজিটররা আপনার ওয়েবসাইটের ডোমেইন নেইমের মাধমে এক্সেস করতে পারবে । তার মানে আপনার একটি হোস্টিং প্ল্যান কিনা দরকার । আপনার ওয়েবসাইত যদি বেশি বড় হয় তাহলে বেশি হোস্টিং স্পেস লাগবে । ছোটখাট ওয়েবসাইটের জন্য ছোটখাট হোস্টিং প্ল্যান কিনলেই এনাফ ।

৩। ইন্সটল ওয়ার্ডপ্রেস

আপনার যদি একটি ডোমেইন নেইম এবং এবং একটি হোস্টিং প্ল্যান কিনা হয়ে যায় তাহলে আপনি ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল করার জন্য প্রস্তত । ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল করা অনেক সহজ কাজ । আপনি ইচ্ছা করলে ইন্টারনেট হতে টিউটোরিয়াল দেখে নিজে নিজেই ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল করে ফেলতে পারবেন । তাছাড়া এক্ষেত্রে অনেক হোস্টিং প্রোভাইডর রয়েছে যারা আপনাকে ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল করিয়ে দিবে ।

৪। থিম এবং প্লাগিন ইউজ করা

ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল করা হয়ে গেলে আপনাকে আপনার ওয়েবসাইট কাস্টমাইজ করার জন্য থিম এবং প্লাগিন ইউজ করতে হবে । আমরা রিকম্মেন্ড করব প্রথমে একটি কোয়ালিটি থিম ইউজ করা এবং তারপরে আপনার প্রয়োজন অনুযায়ী প্লাগিন ইউজ করা । আপনি অনেকগুলো প্লাগিন ইউজ করতে পারবেন । যেসব পপুলার প্লাগিনগুলো অলমোস্ট সব ওয়েবসাইটে ব্যাবহার করা হয়ে থাকে সেগুলো এখান দেখে নিতে পারবেন ।

৫। কন্টেন্ট তৈরি করা

সবকিছু হয়ে গেলে আপনার ওয়েবসাইটের জন্য কন্টেন্ট তৈরি করতে হবে । ওয়ার্ডপ্রেসে দুইধরণের কন্টেন্ট রয়েছে পোস্ট এবং পেইজ । এগুলো তৈরি করা একদম সহজ কাজ । ওয়ার্ডপ্রেসের ইউজার ফ্রেন্ডলি ইন্টারফেস থেকে আপনি খুব সহজেই পোস্ট করতে পারবেন এবং পেইজ তৈরি করতে পারবেন ।

 

শেষকথা

ওয়ার্ডপ্রেস একটি পাওয়ারফুল এবং জনপ্রিয় কন্টেন্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম কারণ যেকোন ধরণের ওয়েবসাইটের জন্য এটি একটি পারফেক্ট সল্যুশন । বিগিনার এবং দক্ষ ডেভেলপার সবার জন্যই ওয়ার্ডপ্রেস সেরা । তাছাড়া ওয়ার্ডপ্রেসে শুরু করা একদম সিম্পল ।

আপনার প্রথম ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য একটি ডোমেইন নেইম এবং একটি হোস্টিং প্ল্যান কিনুন । তারপর আপনি ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল করে আপনার ওয়েবসাইট কাস্টমাইজ করুন । এবং কন্টেন্ট তৈরি করা শুরু করে দিন । গুড লাক… <3

ওয়ার্ডপ্রেস নিয়ে কোন প্রশ্ন ?? কমেন্টে জানান … ।


About Author


Contributor
Total Post: [15]

Leave a Reply

You Must be Login or Register to Submit Comment.

AmarTips.Mobi 2017
Powered by - AmarTips.Mobi