Bhoot.com এর অরিজিনাল ফাইল ডাউনলোড করে নিন। ফুল এইচডি অডিও।

এপিসোড ০১:

ইস্তোনিয়ার তালিন নামক এক নির্জন শহরে রিয়াদ এর বসবাস। গবেষণার জন্য মাটির তলদেশে যেতেই আবছা আলোয় চোখে পড়লো মরচে ধরা চারকোণা একটা কৌটা। কি ছিল সেই কৌটায় আর কেনই সেই কৌটা রিয়াদকে আকর্ষিত করল? আনুলিয়া ইউনিয়ন এর আকশোরা বাজার এর মেম্বার সাহেব এর কবর কেনই বা বারবার ভেঙ্গে যাচ্ছে? তখন ভোর ৪টা, স্টেশন থেকে নামার পরই ফয়সাল এর সামনে এসে দাঁড়ালো ভয়ার্ত লোকটি……

এপিসোড ০২:

৩০০ বছরের পুরনো চার্চ। তার পাশের হোস্টেল এর মেয়েরা দেখলো তাদেরই এক সহপাঠী বেরিয়ে যায় রোজ রাতে ঠিক পুরনো কবরের কাছে। দুর্গম সাইবেরিয়ার ওয়েমিয়াকন শহরের এক পাহারের মাঝে ঘুমিয়ে যায় একদল লোক। ঠিক মাঝে রাতেই হয় এক প্রকম্পন কি ছিল সেই আবছা ছায়া? বাড়িওয়ালা সাহেব তাহাজ্জুত নামাজে অনুভব করলেন কে যেন তাকে অনুসরণ করছে। ঘটে গেল অনেক ঘটনা…… তারই মাঝে মারা গেলেন তার স্ত্রী। পুরনো বাড়িতে জীনেরা অনেক সমস্যা শুরু করলো, কেনই বা ছেলেটি বাধ্য হল তাদের পুরনো বাড়ি ছাড়তে।

এপিসোড ০৩:

বিয়ে বাড়ি থেকে ফেরার পথেই মেয়েটির চোখে পরলো সেই রহস্যজনক পুকুরটি। কে ছিল সেই মহিলা ওই রহস্যে ঘেরা পুকুর পাড়ে! পুরনো মন্দির ঘেঁষেই ছিল একটি জবা ও শিউলি গাছ। রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময়ই এক এস এস সি পরীক্ষার্থী দেখলো একটি ছেলে বসে আছে এক পুরনো গাছের ডালে। তার পায়ের পাতা ছিল পরীক্ষার্থীর দিকে আর তার পিঠ ছিল অপর দিকে। পুরান ঢাকার এক বাড়িওয়ালা সাহেব বাড়ি থেকেই বের হয়েই শুনতে পেলেন এক অদ্ভুত শব্দ। কে কাঁদছিল ফুঁপিয়ে সেই গাছের ডালে। মিরপুরের এর মাজার রোডের ছেলে বন্ধুগুলো কি পারবে সেই পুরনো মাদ্রাসা বাড়ির রহস্য উন্মোচন করতে। রহস্যের শেষ এখানেই নয়! কি ঘটেছিল বরিশালের দম্পতির ছেলে সন্তানটির সাথে, সেদিন পানির অতলতলে আর কিভাবেই ফিরে আসলেন সেই অসুস্থ ব্যাক্তি অজানা,নিরুদ্দেশ গা ছমছমে সেই স্বপ্নের রাজ্য থেকে।

এপিসোড ০৪:

ঢাকার এক প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের হোস্টেলে দুই বন্ধুর সাথে সেই রাতে ঘটে গেল এক অদ্ভুত ঘটনা। তাদের ওয়াশ রুমে ঝুলছিল এক ভয়ার্ত রক্তাক্ত কাটা মাথা… কে ছিল সেই ব্যক্তি! দেশ ভাগের পর তৎকালীন বাগেরহাট শহরের নদীর ওপারে এক মামা ও ভাগ্নে ফিরেতো গিয়েছিল তাদের বাড়িতে কিন্তু মামার শেষ মৃত্যু অবদি কি সেই অশরীরী আত্মা ছাড়তে পেরেছিল মামার দেহ… রয়ে গেছে অনেক প্রশ্ন, সমাধান করতে হবে রহস্যের। ভূত দেখতে যাওয়ার উন্মাদনায় তিন বন্ধুকি ভুলে গিয়েছিল তারা খেতে গিয়েছিল সেই রাতে ওই জ্বিনের হোস্টেলে! পরের ঘটনাটি আরো শিহরন ও ভয় জাগাবে সবার মনে, পুরনো গোরস্থানে পাওয়া যায় রিমঝিম এর পালিত কুকুরের কাটা মাথা। কে এইসব রহস্যের পিছে, রিমঝিম কি পারবে রহস্যের উন্মোচন করতে। সুন্দরী মেয়েটির জীবনে আর দুর্গতি নেমে আসে তার বিয়ের পর। এক এতো ছিল খারাপ জ্বিনের আছর তার উপর জ্বিনটির ক্রোধ ছিল তার স্বামীর উপর… কি হবে পরিশেষে। আর রিমঝিম কি পারবে তার ফুপু মারা যাওয়ার মর্মান্তিক ঘটনার রহস্যভেদ করতে।

এপিসোড ০৫:

“ফ্রাইডে দ্যা থার্টিন্থ” নামটি শুনলেই চিত্রপটে ভেসে উঠে ভয়ঙ্কর সব চিত্র। শুক্রবার যীশুখ্রীষ্টকে ক্রুশবিদ্ধ করা হয়েছিল আর ১৩ হচ্ছে শয়তানের সবচেয়ে প্রিয় নম্বর৷ জুডাসেরও প্রিয় নম্বর ছিল ১৩৷ ১৩ সংখ্যা এবং শুক্রবার যখন এক সঙ্গে আসে তখন ঘটে অমঙ্গল। ভারতের রাজস্থানে এক শুক্রবারে ঘটেছিল ভয়ানক কিছু ঘটনা সুকান্ত মৈতি ও তার বন্ধুদের সাথে। যার জন্য রাখতে হয়েছিল তাদের জীবন বাজি। এসব ঘটনার মাঝেই আজকে আরও শুনবেন, প্রাত্যহিক জীবনে ঘটে যাওয়া কিছু অলৌকিক ঘটনা। শাহ নেওয়াজ এমনই এক ঘটনার স্বীকার। হুট করে তার মা মারা যাওয়ার পর থেকেই শুরু হলো অঘটন। একটি ফোন কল থেকেই বদলে গেল তার জীবন। রহস্যময়ী মেয়েটির প্রতিটি কথাতেই লুকিয়ে আছে অনেক সমস্যার সমাধান। পারবে কি শাহ নেওয়াজ এই রহস্য উন্মোচন করতে। তারই মাঝে ধানমণ্ডির স্টাফ কোয়ার্টারের এক পরিবারের উপর নেমে এসেছে কালো জাদুর গভীর ছায়া। ছেলেটি কি পারবে তার বাবাকে বাঁচাতে এই কালো জাদুর ছোবল থেকে! আত্মহত্যা একটি জঘন্য অপরাধ। এটাই কাল হলো বাপ্পীর পরিবারের জন্য। নতুন বাসায় উঠেই শুরু হল তাণ্ডব। কিভাবে নিস্তার পাবে সেই মায়াবিনী থেকে! শেষ ঘটনাটি আরও রহস্যজনক। গ্রাম অঞ্চলের মেয়েদের সাথে ঘটে চলছে অনেক অজানা ঘটনা, জানতে হলে শুনতে হবে পুরো ঘটনা।

Leave a Reply